সাশ্রয়ী মূল্যে ওয়ালটনের নতুন ফুল-ভিউ ফোরজি ফোন

ফুল-ভিউ ডিসপ্লের নতুন স্মার্টফোন বাজারে ছেড়েছে দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। ‘প্রিমো ইএফএইট’ মডেলের ওই ফোনটি চতুর্থ প্রজন্ম বা ফোরজি নেটওয়ার্ক সমর্থিত। এটিকে দেশে তৈরি সবচেয়ে সাশ্রয়ী মূল্যের ফুল ভিউ-ডিসপ্লের ফোরজি হ্যান্ডসেট বলছে ওয়ালটন।

মেরিন ব্লু, ব্ল্যাক এবং গোল্ডেন রঙের আকর্ষণীয় ডিজাইনের ফোনটি দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা, ব্র্যান্ড ও রিটেইল আউটলেটে মিলছে। এর দাম মাত্র ৪,৯৯৯ টাকা। তবে এই ফোনে ৩০০ টাকা ক্যাশব্যাক দিচ্ছে ওয়ালটন। ফলে মাত্র ৪,৬৯৯ টাকায় হ্যান্ডসেটটি হাতে পাবেন ক্রেতারা।

বিপণন বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান জানান, ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত এই ফোনটি তৈরি হয়েছে গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায়। বাংলাদেশে তৈরি এই স্মার্টফোনে ক্রেতারা পাবেন বিশেষ রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা। স্মার্টফোন কেনার ৩০ দিনের মধ্যে ত্রুটি ধরা পড়লে ফোনটি পাল্টে ক্রেতাকে নতুন আরেকটি ফোন দেয়া হবে। এছাড়াও, ১০১ দিনের মধ্যে প্রায়োরিটি বেসিসে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে ক্রেতা বিক্রয়োত্তর সেবা পাবেন। তাছাড়া, স্মার্টফোনে এক বছরের এবং ব্যাটারি ও চার্জারে ছয় মাসের বিক্রয়োত্তর সেবা তো থাকছেই।

ওয়ালটন সূত্র জানায়, প্রিমো ইএফএইট মডেলে ব্যবহৃত হয়েছে ৪.৯৫ ইঞ্চির নিউ জেনারেশন ১৮:৯ রেশিওর ফুল ভিউ ডিসপ্লে। ফলে ইন্টারনেট ব্রাউজিং, গেম খেলা কিংবা ভিডিও দেখায় গ্রাহক পাবেন অনন্য অভিজ্ঞতা।

Walton-Primo-EF8-pic-2

ফোনটির উচ্চগতি নিশ্চিতে ব্যবহৃত হয়েছে ১.৪০ গিগাহার্জের কোয়াড কোর প্রসেসর। রয়েছে ১ গিগাবাইট ডিডিআর৩ র‌্যাম। প্রাণবন্ত ভিডিও ও গেমিং অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-টি৮২০। প্রয়োজনীয় ফাইল সংরক্ষণে রয়েছে ৮ গিগাবাইট ইন্টারন্যাল স্টোরেজ। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

ফোনটির উভয় পাশে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরার বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে অটো মোড, ম্যানুয়াল মোড, ডিজিটাল জুম, সেলফ-টাইমার, ফেস এবং স্মাইল ডিটেকশন, এক্সপোজার কন্ট্রোল, কালার কন্ট্রোল, ফেস বিউটি, প্যানোরমা, এইচডিআর, নাইট শট, অডিও পিকচার, কিউআর কোড স্ক্যানার, টাইম ল্যাপস, স্লো মোশন ইত্যাদি। পেছনের ক্যামেরায় ফুল এইচডি এবং সামনের ক্যামেরায় এইচডি ভিডিও ধারণ করা যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ (গো এডিশন) পরিচালিত স্মার্টফোনটির প্রয়োজনীয় পাওয়ার ব্যাক-আপের জন্য রয়েছে ২০৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি। চার্জ সাশ্রয়ে ব্যবহারকারী স্মার্ট সেভিং, লো পাওয়ার এবং আল্ট্রা সেভিং মোড থেকে যে কোনো একটি বেছে নিতে পারবেন।

উল্লেখ্য, দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা এবং ব্র্যান্ড ও রিটেইল আউটলেটে রয়েছে কিস্তি এবং ইএমআই সুবিধায় ফোন কেনার সুযোগ। সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার জন্য রয়েছে দেশব্যাপী বিস্তৃত সার্ভিস নেটওয়ার্ক।

 

Please Share This Post.