কম্পিউটার সিটি সেন্টারে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার

‘ডিজিটাল লিটারেসি ফর এভরিওয়ান’ স্লোগানে ঢাকার এলিফ্যান্ট রোডে কম্পিউটার সিটি সেন্টারে জাঁকজমকভাবে অনুষ্ঠিত হবে পাঁচ দিন ব্যাপী ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৮। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মেলা চলবে।

৯ম বারের মতো আয়োজিত এ কম্পিউটার মেলায় প্রযুক্তিপণ্যের ওপর থাকবে নানা ছাড় ও উপহার। মেলায় তরুণ থেকে শুরু করে সব শ্রেণী পেশার মানুষের আগমণে মুখরিত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।  ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৮ উপলক্ষে ৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন কম্পিউটার সিটি সেন্টারের সভাপতি ও ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার ২০১৮ এর আহ্বায়ক তৌফিক এহেসান

সম্মেলনে তৌফিক এহেসান বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের মানুষ এখন আমরা। ডিজিটাল যন্ত্র এখন আমাদের হাতের নাগালেই।

আমরা এবার ডিজিটাল বাংলাদেশের জন্য প্রয়োজনীয় ডিজিটাল লিটারেসিকে থিম করেছি। আমাদের এবারের মেলার স্লোগানে হচ্ছে-‘ডিজিটাল লিটারেসি ফর এভরিওয়ান’। প্রতিবারের মতো এবারের মেলাতেও থাকছে নতুন নতুন প্রযুক্তিপণ্যর সমাহার। মানুষের কাছে সহজে ডিভাইস তুলে দেওয়ার পাশাপাশি নানা ছাড় ও উপহার রাখা হয় মেলায়।

দেশের সর্বস্তরের মানুষের মাঝে কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার এবং এর সুফল ছড়িয়ে দিয়ে, বহুল প্রত্যাশিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যেই নিয়মিত এ মেলার আয়োজন করা হয়। একসঙ্গে এত প্রতিষ্ঠান এই মেলায় অংশগ্রহণ করে যা সবার জন্য সহজে পণ্য দেখার জন্য কেনার সুবিধা থাকে।

তৌফিক এহেসান আরও বলেন, দেশে ডিজিটাল লিটারেসির কোনো বিকল্প নেই। তাই সবার হাতে ডিভাইস পৌঁছাতে হবে। ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার আয়োজনের মাধ্যমে সে লক্ষ্য থাকে। এ বছর তাই স্লোগানে রাখা হয়েছে ডিজিটাল লিটারেসি ফর এভরিওয়ান। ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার ২০১৮ এর আহবায়ক জানান, এ মেলায় বাংলাদেশের শীর্য আইসিটি পন্য আমদানীকারক ও ব্যবসায়ীদের বিশ্বের মানসম্পন্ন ব্র্যান্ডের লেটেস্ট প্রযুক্তি প্রদর্শন করা হবে।

মেলায় আসা বিভিন্ন প্রযুক্তি পন্যে থাকবে বিশেষ ছাড় ও আকর্ষনীয় উপহার। তৌফিক এহেসান বক্তব্যের এক পর্যায়ে বলেন, পাঁচ দিন ব্যাপী এ মেলায় অংশগ্রহন করবে দেশের আইসিটি মার্কেটের ৬৫০টি আইটি প্রতিষ্ঠান। মেলায় বিশেষ আয়োজন হিসেবে থাকছে শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, সেলিব্রিটিদের মেলা পরিদর্শন, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশ ও মেলা পরিদর্শনের ব্যবস্থাসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এ ছাড়াও মেলা চলাকালীন সময়ে প্রবেশ টিকেটের উপর র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হবে। সংবাদ সম্মেলনে এবারের মেলার আহ্বায়ক ও কম্পিউটার সিটি সেন্টার সভাপতি তৌফিক এহেসান বলেন, এবারের মেলায় জোর দেওয়া হয়েছে ডিজিটাল ডিভাইস যাতে সবার হাতের নাগালে থাকে সে বিষয়টির ওপর। প্রয়োজনীয় পণ্য যাতে কিনতে কোনো অসুবিধা না হয় সে লক্ষে নানা ছাড় দেবে প্রতিষ্ঠানগুলো। মেলা চলাকালীন ডিজিটাল উন্নয়নমূলক  বেশ কিছু আয়োজন থাকবে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানের দিন কম্পিউটার সিটি সেন্টারের লেভেল ১ এ অনুষ্ঠিত হবে আগত অতিথিদের শুভেচ্ছা বক্তব্য, লেভেল ৯ এ জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে ফিতা কেটে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন, লেভেল-৭ এ মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও শেষে মেলা পরিদর্শন।

এছাড়াও মেলা চলাকালীন সময়ে থাকছে পিঠা উৎসব, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, র‌্যাফেল ড্র সহ প্রতিটি ফ্লোরে নানা আয়োজন। ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল দশটায় তিন বছর থেকে ১২ বছর বয়সীদের তিনটি গ্রুপে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। মেলা চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ পর্যন্ত। মেলায় প্রবেশ মূল্য ১০ টাকা। তবে স্কুল শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন। ৭ ফেব্রুয়ারি বুধবার সকাল ১১ টায় মেলার উদ্বোধন করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রাণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মুক্তিযুদ্ধকালীন ঢাকা জেলা কমান্ডার, সাবেক সংসদ সদস্য ও বৃহত্তর এলিফ্যান্ট রোড দোকান মালিক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মোস্তফা মহসীন মন্টু।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ঢাকা ১০ আসনের মাননীয় সাংসদ ব্যারিষ্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, শিক্ষাবিদ ও  ইউনিভার্সিটি এশিয়া প্যাসিফিক এর উপাচার্য  ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, এফবিসিসিআই এর সভাপতি মোঃ শফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন), ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শাহে আলম মুরাদ, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি  আলী আশফাক, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির চেয়ারম্যান মোঃ হেলাল উদ্দিন, ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনের ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জসীম উদ্দিন আহমেদসহ বিশিষ্টজনেরা। মেলার প্ল্যাটিনাম স্পন্সর হল এসার, ডেল, এইচপি, লজিটেক, এক্সট্রিম। গোল্ড স্পন্সর হল আসুস, এফোরটেক, লেনেভো।সিলভার স্পন্সর হল টিপি-লিংক, ডি-লিংক, ইউসিসিস্পন্সর টেন্ডা এবং গেমিং পাটনার গিগাবাইট। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন কম্পিউটার সিটি সেন্টারের অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এ ছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে মেলার আয়োজক কমিটির সকল সদস্য ও দেশের খ্যাতিমান আইসিটি ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।এক নজরে “ডিজিটাল আইসিটি ফেয়ার-২০১৮” তারিখ: ০৭-১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ শ্লোগান:“Digital literacy for everyone” সময়: প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা আয়োজক: কম্পিউটার সিটি সেন্টার দোকান মালিক সমিতি, অংশ গ্রহনকারী প্রতিষ্ঠান: ৬০০টির অধিক, প্রবেশমূল্য: ১০ টাকা। স্কুল/কলেজশিক্ষার্থী ও সংবাদকর্মীদের বিনামূল্যে প্রবেশ সুবিধা।

-সিনিউজ প্রতিবেদক

Please Share This Post.