১৪৫ দেশের পার্টনারদের নিয়ে মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার

প্রযুক্তি খাতে গ্রাহকসেবায় অভিনব উদ্ভাবনগুলোকে স্বীকৃতি দিতে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডি.সি.-তে পার্টনার সম্মেলন ‘মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার’ আয়োজন করেছে মাইক্রোসফট।

ক্লাউড প্রযুক্তি, সরকারি খাত, মাইক্রোসফট ফিলানট্রপিসসহ মোট ৩৪টি ক্যাটাগরিতে দক্ষ পার্টনার নির্বাাচিত করা হয়েছে এবারের সম্মেলনে। উক্ত অ্যাওয়ার্ডে বিশ্বের ১১৫টি দেশ থেকে ২৮০০-এর বেশি পার্টনার কোম্পানি থেকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। অংশগ্রহণকারী পার্টনার কোম্পানিগুলো গ্রাহকসেবার ক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী দক্ষতা, মার্কেটে তাদের সল্যুশনের কার্যকারীতা এবং মাইক্রোসফট প্রযুক্তির উল্লেখ্যযোগ্য ব্যবহার নিশ্চিত করেই উক্ত অ্যাওয়ার্ডে নিজেদের নাম তালিকাভূক্ত করে।

মাইক্রোসফট কান্ট্রি পার্টনার ২০১৭ -তে বাংলাদেশ থেকে অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়েছে আমরা টেকনোলজিস লিমিটেড। মাইক্রোসফট প্রযুক্তিভিত্তিক গ্রাহক সেবার ক্ষেত্রে অভিনব উদ্ভাবন ও বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখায় বিশ্ব মঞ্চে ‘মাইক্রোসফট কান্ট্রি পার্টনার অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছে আমরা টেকনোলজিস লিমিটেডকে।

আয়োজনের মূল বক্তা হিসেবে মাইক্রোসফটের সিইও সত্য নাদেলা বলেন, ‘বিশ্বের সব মানুষ ও প্রতিষ্ঠানগুলোকে দক্ষ ও স্বক্ষমতায় গড়ে তোলার ব্যাপারে মাইক্রোসফট দৃঢ়-প্রতিজ্ঞ। প্রযুক্তির স্বার্থে প্রযুক্তির উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমরা কোনোভাবেই অবহেলা করি না, আর এ লক্ষ নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের গ্রাহকদের সাফল্যেই আমাদের সাফল্য।’

তিনি আরো বলেন, ‘পার্টনারদের প্রতি আমাদের একনিষ্ঠতা ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতা প্রযুক্তি খাতের জন্য উদাহরণস্বরূপ। এক্ষেত্রে মোবাইল-ফার্স্ট, ক্লাউড-ফার্স্ট বিশ্ব থেকে ইন্টেলিজেন্ট এজ ও ইন্টেলিজেন্ট ক্লাউডে রূপান্তরের বিষয়টি উল্লেখ্যযোগ্য। এভাবেই ডিজিটাল প্রযুক্তিকে নিয়ে আসা যাবে প্রতিটি জীবনে, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে।’

বিশ্ব ব্যাপী মাইক্রোসফট পার্টনারদের দ্বারা ১৭ মিলিয়ন মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে এবং ৬৪,০০০ পার্টনার বর্তমানে ক্লাউড সেবা নিয়ে কাজ করছে। আর এভাবেই পার্টনারদের সঙ্গে নিয়ে ভবিষ্যৎ নির্মাণ করছে মাইক্রোসফট।

পার্টনার সম্মেলনে নতুন মাইক্রোসফট ৩৬৫ উন্মোচন করে প্রতিষ্ঠানটি। গ্রাহকদের নতুন অভিজ্ঞতা দেয়ার পাশাপাশি সৃষ্টিশীল ও দলগত স্বক্ষমতাকে প্রাধান্য দিয়েছে মাইক্রোসফট। অফিস ৩৬৫, উইন্ডোজ ১০ এবং এন্টারপ্রাইজ মোবিলিটি ও সিকিউরিটি পণ্যের ক্ষেত্রে সহজ ও নিরাপদ প্ল্যাটফর্মের প্রসার ঘটিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

সৃষ্টিশীলতা ও দলগত স্বক্ষতাকে প্রাধান্য দিয়ে মাইক্রোসফট ৩৬৫ তৈরি করা হয়েছে যার মাধ্যমে ডিভাইস, অ্যাপস ও সেবা ব্যবহারের মাধ্যমে কৌশলগত পরিচালনার ক্ষেত্রে গ্রাহকদের তথ্য থাকবে সম্পূর্ণ নিরাপদে। ডাইনামিক্স ৩৬৫ ও লিংকডইন বিজনেস সল্যুশনসের মাধ্যমে বিজনেস অ্যাপ্লিকেশনস থেকে গ্রাহকদের চাহিদা পূরণে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে মাইক্রোসফট।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.