হয়রানি ঠেকাতে ব্যর্থ সামাজিক যোগাযোগ সাইটগুলো?

অনলাইনে ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দেয়ার মত কাজগুলোকে ঠেকানোর কাজে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলো ব্যর্থ বলে সম্প্রতি পরিচালিত একটি জরিপে মন্তব্য করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের চিলড্রেনস সোসাইটির এক জরিপে এই ব্যাপারটি উঠে এসেছে। এই জরিপের আওতায় ১০০০-এর বেশি ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর কাছ থেকে তথ্য গ্রহণ করা হয় যাদের বয়স ১১ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে।

এদের মধ্যে অর্ধেকই জানিয়েছে, তারা অনলাইনে ভীতি প্রদর্শনের মত কাজের শিকার হয়েছে, যার মধ্যে আছে হুমকি দেয়া সোশ্যাল মিডিয়া মেসেজ, ইমেইল বা টেক্সট। এদের মধ্যে আবার দুই তৃতীয়াংশ জানিয়েছে, এসব ঘটনার কথা তারা তাদের বাবা মাকে জানায়নি।

উত্তরদাতাদের মধ্যে ৮৩ শতাংশ এ ব্যাপারে একমত যে, সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিগুলোর উচিত এ ব্যাপারে আরো জোরালো পদক্ষেপ নেয়া। এই রিপোর্ট থেকে আরো জানা যায় যে, উত্তরদাতাদের সিংহভাগ মনে করে, অফলাইনে অন্যকে হুমকি দেয়া বা ভয় দেখানো লোকগুলোকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে নানারকম শাস্তির মুখোমুখি হতে হলেও অনলাইনে যারা এসব করে তারা তেমন কোনো শাস্তির মুখোমুখি হয় না।

জরিপে অংশগ্রহণকারী পনের বছর বয়সী এক মেয়ে যেমন বলেছে, ‘সামাজিক যোাগাযোগ কোম্পানিগুলোর উচিত এ সংক্রান্ত বিভিন্ন অভিযোগকে আরো সিরিয়াসলি নেয়া। কেউ কোনোকিছু রিপোর্ট করলে তারা এটি পর্যালোচনা করতেই অনেক সময় নিয়ে নেয়। তা না করে সাথে সাথে ঐসব লোককে তাদের সাইট থেকে সরিয়ে ফেলা উচিত।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক.
Please Share This Post.