হুয়াওয়ের নতুন উদ্ভাবনী প্রযুক্তি প্রদর্শন

গত ৫ সেপ্টেম্বর চীনের সাংহাইয়ে অনুষ্ঠিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্মেলন ‘হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০১৭’ – তে ডিজিটাল রূপান্তরে নিজেদের যৌথ উদ্যোগে উদ্ভাবিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উদ্ভাবনী নানা সমাধানের প্রদর্শনী করেছে হুয়াওয়ে এবং এর ফরচুন গ্লোবাল ৫০০ তালিকাভুক্ত অংশীদার প্রতিষ্ঠানগুলো। এছাড়াও, হুয়াওয়ে এ সম্মেলনে এন্টারপ্রাইজ পর্যায়ে ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি)-এর উন্নয়ন প্রচারণায় তাদের প্রযুক্তি বিষয়ক কৌশল ‘প্ল্যাটফর্ম + কানেকশন + ইকোসিস্টেম’র উন্মোচন করে।

প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা পেতে বর্তমান বিশ্বে এন্টারপ্রাইজগুলো ডিজিটাল রূপান্তরে জোর দিচ্ছে এবং বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন ধরনের শিল্পের ক্ষেত্রে ফরচুন গ্লোবাল ৫০০ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলি এ রূপান্তরের শীর্ষে অবস্থান করছে। এক্ষেত্রে, কানেকশন ও এনগেজমেন্ট বৃদ্ধিতে নতুন ব্যবসায়িক মডেলের উন্নয়ন ঘটানোই চ্যালেঞ্জ। ডিজিটাল রূপান্তরে এমন একটি প্ল্যাটফর্ম প্রয়োজন যা বুদ্ধিমত্তা, ডাটা ও ডিভাইসকে সংযুক্ত করবে এবং অংশীদারদের সঙ্গে সম্পৃক্ততা বাড়ানোর সুযোগ করে দিবে। যা সর্বোপরি উদ্ভাবনের বিস্তৃতিতে অ্যাপ্লিকেশনের উন্নয়ন ঘটাবে।

এ নিয়ে হুয়াওয়ের এন্টারপ্রাইজ বিজনেস গ্রুপের মার্কেটিং অ্যান্ড সল্যুশনের প্রেসিডেন্ট ডায়ানা ইউয়ান বলেন, ‘হুয়াওয়ে ডিজিটাল রূপান্তর অর্জনে এন্টারপ্রাইজগুলোর জন্য উন্মুক্ত, সহজে ব্যবহারযোগ্য, নিরাপদ ও কার্যকরী প্ল্যাটফর্ম উন্নয়নে অভিনব, পার্থক্য নির্ণয়কারী এবং নেতৃস্থানীয় সব সমাধান নিয়ে এর ক্রেতা ও অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘উদ্ভাবন কেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে হুয়াওয়ে ডিজিটালকরণে এর নিজস্ব কৌশল বাস্তবায়নে গতি বাড়াচ্ছে এবং আমরা বিভিন্ন শিল্প খাতসংশ্লিষ্ট সবাইকে এ বিষয়ক আমাদের অনুশীলনগুলো সম্পর্কে জানাবো। এখন পর্যন্ত ফরচুন গ্লোবাল ৫০০ তালিকাভুক্ত ১৯৭টি প্রতিষ্ঠান এবং ১০০ শীর্ষস্থানীয় উদ্যোক্তাদের মধ্যে ৪৫টি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েকে তাদের ডিজিটাল রূপান্তরের অংশীদার প্রতিষ্ঠান হিসেবে বেছে নিয়েছে। আর এটা আমাদের কৌশলগত ব্যবস্থাপনা ও সমাধানে ক্ষেত্রে হুয়াওয়ের শক্তির জায়গাকেই প্রমাণ করে।’

এ নিয়ে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার লিওনশিয়া বলেন, ‘আমরা মনে করি, ভবিষ্যতে যেসব প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল রূপান্তর অর্জন করবে তারা ডাটা জেনারেশন, ট্রান্সমিশন ও প্রসেসিং ঘিরেই গড়ে উঠবে। এক্ষেত্রে, হুয়াওয়ের বিস্তৃত আঙ্গিকের পণ্য ও সেবার পোর্টফোলিও রয়েছে যা বিভিন্ন শিল্পখাতে ডিজিটাল রূপান্তরের সুযোগ করে দিবে। এছাড়াও, হুয়াওয়ে নির্দিষ্ট শিল্প খাতভিত্তিক এর অংশীদারদের নতুন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেবা এবং ইকোসিস্টেমসহ নানা ধরনের সেবা দিচ্ছে। এসব সেবার মধ্যে রয়েছে আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য বিগডাটা সেবা এবং শক্তি ও জ্বালানি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আইওটি প্ল্যাটফর্ম ইত্যাদি।’

ভবিষ্যতে যেসব প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল রূপান্তর অর্জন করবে তারা ডাটা জেনারেশন, ট্রান্সমিশন ও প্রসেসিং ঘিরেই গড়ে উঠবে। এক্ষেত্রে, হুয়াওয়ের বিস্তৃত আঙ্গিকের পণ্য ও সেবার পোর্টফোলিও রয়েছে যা বিভিন্ন শিল্প খাতের এন্টারপ্রাইজগুলোর জন্য এ উন্নয়নের সুযোগ করে দিবে। এছাড়াও, হুয়াওয়ে নির্দিষ্ট শিল্প খাতভিত্তিক এর অংশীদারদের নতুন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সেবা এবং ইকোসিস্টেম সহ নানা ধরনের সেবা দিচ্ছে। এসব সেবার মধ্যে রয়েছে জননিরাপত্তায় ভিডিও ক্লাউড সেবা, আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য বিগডাটা সেবা এবং শক্তি ও জ্বালানিবিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আইওটি প্ল্যাটফর্ম ইত্যাদি।

এ বছর হুয়াওয়ে নতুন প্রজন্মের অলফ্লাশ স্টোরেজ সিস্টেম ওশানস্টোর ডোরাডো ভি৩ এবং নতুন প্রজন্মের ফিউশন সার্ভার, ফিউচশন সার্ভার ভি৫ এর মতো শিল্প খাতে নেতৃস্থানীয় সব পণ্য নিয়ে এসেছে। আইডিসি’র তথ্যমতে, ২০১৬ সালে চীনে হুয়াওয়ের ডাটা সেন্টার বাজার দখলে শীর্ষস্থান দখল করেছে। সাম্প্রতিক একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান গার্টনার জানিয়েছে, ২০১৭ সালের প্রথম প্রান্তিকে হুয়াওয়ে রাজস্ব আয়, রফতানি সংখ্যা, বিতরণ ও সরবরাহ দক্ষতা চীনের সার্ভার খাতে শীর্ষ অবস্থান দখল করেছে। এক্ষেত্রে, গার্টনার স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তাবিষয়ক কাজের ব্যাপারে হুয়াওয়ের ডাটা সেন্টার, ক্যাম্পাস নেটওয়ার্ক ও আইওটি প্ল্যাটফর্মসহ বিস্তৃত সেবার ওপরে আলোকপাত করেছে।

‘হুয়াওয়ে কানেক্ট ২০১৭’ সম্মেলনে হুয়াওয়ে হাইব্রিড ক্লাউড সল্যুশন ফিউশন ব্রিজ, পাবলিক ক্লাউড সল্যুশন ফিউশন ক্লাউড স্ট্যাক, নতুন প্রজন্মের স্মার্ট ক্লাউড হার্ডওয়্যার প্ল্যাটফর্ম অ্যাটলাস, নতুন নেটওয়ার্ক অবকাঠামো ইন্টেলিজেন্ট কানেকশন এবং নতুন প্রজন্মের এসডিডব্লিউএএন সেবার উন্মোচন করেছে যা প্রতিষ্ঠানটির পোর্টফোলিওর আরো বিস্তৃতি ঘটাবে। এছাড়াও, হুয়াওয়ে কানেকশন সেবাকে ত্বরাণ্বিত করতে সম্মেলনে এন্টারপ্রাইজ পর্যায়ে এর আইওটি সেবা নিয়ে একটি সম্পূর্ণ ধারণা প্রদান করেছে।

হুয়াওয়ে এর ক্রেতাদের ‘প্ল্যাটফর্ম + কানেকশন + ইকোসিস্টেম’ কৌশলের মাধ্যমে ব্যবসার অ্যাপ্লিকেশন উন্নয়ন ও প্রয়োগে সহায়তা করে। যা সবার জন্য উন্মুক্ত ও সুবিধাজনক ইকোসিস্টেম তৈরিতে কাজ করবে। হুয়াওয়ের এন্টারপ্রাইজ পর্যায়ের আইওটি সমাধান স্মার্ট সিটি, আইওটি ফর এলিভেটর, স্মার্ট বিল্ডিং ও শেয়ারিং ইকোনোমিসহ অনেক ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হয়েছে।

বিশ্বের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিল্প খাতে হুয়াওয়ের ফ্ল্যাগশিপ ইভেন্ট ‘হুয়াওয়ে কানেক্ট’ গত ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর ‘গ্রো উইথ দ্য ক্লাউড’ প্রতিপাদ্য নিয়ে সাংহাই নিউ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো সেন্টারে (এসএনআইইসি) অনুষ্ঠিত হয়েছে। উন্মুক্ত সহযোগিতার ক্ষেত্রে বৈশ্বিক এ প্ল্যাটফর্মে, হুয়াওয়ে এর ক্রেতাও অংশীদারদের নিয়ে ডিজিটাল রূপান্তরে প্রবৃদ্ধির সুযোগ নিয়ে কাজ করেছে। বিস্তারিত তথ্যের জন্য ভিজিট: www.huawei.com/en/events/huaweiconnect2017

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.