হার্ডওয়্যার রপ্তানি করবে বাংলাদেশ:পলক

তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশও হার্ডওয়্যার রপ্তানিকারক দেশ হতে চায়। এজন্য প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। বুধবার সকালে আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের আওতাধীন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭’ এর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা বলেন। ১৮ থেকে ২০ অক্টোবর এই এক্সপো অনুষ্ঠিত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে পলক বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হার্ডওয়্যার শিল্পে রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে চায়। এজন্য প্রয়োজনীয় পলিসি প্রণয়ন করছে সরকার ‘

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এবারের বাজেট দেশীয় হার্ডওয়্যার শিল্প বিকাশের বাজেট। মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাব ইত্যাদি উৎপাদন, সংযোজনে ব্যবহৃত হয় এমন কাঁচামাল ও যন্ত্রাংশে বিদ্যমান শুল্ক কমানো হয়েছে। ৯৪ ধরনের কাঁচামাল ও যন্ত্রাংশে আগের সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ শুল্ক এখন মাত্র ১ শতাংশ করা হয়েছে।’

দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো কারখানা স্থাপনে আগ্রহী হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশে স্যামস্যাং যেমন কনজ্যুামার ইলেকট্রনিক্স কারখানা স্থাপন করেছে তেমনিভাবে দেশীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনও তাদের মোবাইল সংযোজন কারখানার যাত্রা শুরু করেছে। এছাড়া মোবাইল ফোন ও ল্যাপটপ উৎপাদন ও সংযোজন কারখানা স্থাপনের জন্য কার্যক্রম শুরু করেছে দেশীয় প্রতিষ্ঠান সিম্ফনি ও আমরা টেকনোলজিস এবং বিদেশি প্রতিষ্ঠান এলজি ও হুয়াওয়ে।’

প্রতিমন্ত্রী জানান, হার্ডওয়্যার খাতে বাংলাদেশের এসব সাফল্য ও অগ্রগতি দেশে-বিদেশে ছড়িয়ে দিতে এবং এ খাতে আরও এগিয়ে যেতেই ‘বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭’ আয়োজন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এর সভাপতি আলী আশফাকের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি, বিসিএস মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিসিএর সদস্য এবং স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক

Please Share This Post.