‘স্যামসাং স্টুডিও’-এর চ্যাম্পিয়ন ও রার্নাস আপ ঘোষণা

 

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ ‘স্যামসাং স্টুডিও’ ক্যাম্পেইনের চ্যাম্পিয়ন ডিজাইন ঘোষণা করেছে। এতে ফ্রিল্যান্স ডিজাইনার লুৎফুন্নাহার মুনমুনের ডিজাইনটি চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

‘স্যামসাং স্টুডিও’-এর প্রথম রার্নাস আপ হয়েছে অনিকেত ভট্টাচার্য এবং দ্বিতীয় রার্নাস আপ হয়েছে অনিমেশ শর্মার ডিজাইন।

‘স্যামসাং স্টুডিও-ডিজাইন্ড বাই ইউ। মেড বাই স্যামসাং’- এই স্লোগান নিয়ে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ গত ২৪ জানুয়ারি থেকে ‘স্যামসাং স্টুডিও’ ক্যাম্পেইন শুরু করে। স্যামসাং, বাংলাদেশে তাদের মোবাইল ফোন মোড়কজাত (ইউনিট বক্স) করতে প্রথমবারের মত বাংলাদেশি ডিজাইন ব্যবহার করার উদ্দেশ্যে এই ক্যাম্পেইনের উদ্ভাবন।

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ, দেশের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সৃজনশীল ব্যক্তিদের কাছে ‘স্যামসাং স্টুডিও’-এর আহ্বান নিয়ে যায়। এ পদক্ষেপের ফলশ্রুতিতে আগ্রহীদের পক্ষ থেকে প্রচুর সাড়া পাওয়া যায় এবং শত শত আকর্ষণীয় ডিজাইন জমা পড়ে।

‘স্যামসাং স্টুডিও’-এর চুড়ান্ত প্রতিযোগিতায় সর্বমোট ১৪ জন প্রতিযোগি অংশ নেন। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীকে প্রথম পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় নগদ এক হাজার ইউএস ডলার। পাশাপাশি বিজয়ীর ডিজাইন বাংলাদেশের মানুষের হাতে স্যামসাং হ্যান্ডসেটের বক্সের মাধ্যমে পৌঁছে যাবে। বিজয়ীর পাশাপাশি দুই রার্নাস আপকে দেওয়া হয় দুটি গ্যালাক্সি স্মার্টফোন এবং চুড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী ১৪ জন প্রতিযোগিকে স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে সনদপত্র দেওয়া হয়।

একটি বিশেষজ্ঞ বিচারক প্যানেল চুড়ান্ত পর্বের ডিজাইন নির্বাচন করেন। বিচারক প্যানেলে ছিলেন- শিল্পী রফিকুন্নবী, শিল্পী সব্যসাচী হাজরা, বৃটিশ অ্যামেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশের (বিএটিবি) মার্কেটিং ডিরেক্টর রেজাউল ইসলাম, এশিয়াটিক-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর নেভিল ফেরদৌস হাসান, স্যামসাং ইলেকট্রনিকস বাংলাদেশের জেনারেল ম্যানেজার ইয়াং উ লী।

 

 

সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.