স্যামসাং ওয়ান ইউআই ২.০ কি এবং কেন?

গত বছর নিজেদের স্মার্ট ডিভাইসগুলোতে ওয়ান ইউআই (ইউজার ইন্টারফেস) নিয়ে ব্যবহারকারীদের মন জয় করে নিয়েছিলো স্যামসাং। এরই ধারাবাহিকতায়, প্রতিষ্ঠানটি জনপ্রিয় এ ইন্টারফেসটির নতুন সংস্করণ ওয়ান ইউআই ২.০ অবমুক্ত করেছে। অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমের ওপর ভিত্তি করে তৈরি এ ইউআইটি প্রথমেই গ্যালাক্সি এস১০ ও গ্যালাক্সি নোট ১০ সিরিজের স্মার্টফোনগুলোতে অবমুক্ত হয়েছে, যা পর্যায়ক্রমিকভাবে এ সিরিজ ও এম সিরিজের স্মার্টফোনগুলোর জন্যও অবমুক্ত করা হবে। গ্যালাক্সির এ মডেলগুলোর ব্যবহারকারীরাও ইতিমধ্যেই উপভোগ করা শুরু করেছে এ আপডেট। এক্ষেত্রে, আগের ইন্টারফেস ও নতুন ইন্টারফেসের মধ্যে বেশকিছু পার্থক্য রয়েছে।

লক্ষ্যণীয় ফিচারগুলো হচ্ছে:  

ডার্ক মোডে রূপান্তর

ওয়ান ইউ আইয়ের নতুন সংস্করণ ওয়ান ইউআই ২.০-তে রয়েছে ‘এনহ্যান্সড ডার্ক মোড’, যা নোটিফিকেশন শেড এবং ইউজ্যুয়াল মেন্যুর পাশাপাশি ওয়ালপেপার ও উইজেটকে আরও ডার্ক করবে। ডিভাইসের লুক অ্যান্ড ফিলে পরিবর্তন আনা ছাড়াই এ মোডের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর চোখের আরামের জন্য স্ক্রিনের ব্রাইটনেস চমৎকারভাবে সমন্বয় করা হয়েছে। যা উল্লেখযোগ্যভাবে ব্যবহারকারীর চোখের অস্বস্তি দূর করবে।

স্বল্প সময়ের পপ-আপ

নাটিফিকেশনের জন্য স্বল্প সময়ের পপ-আপ। ব্যবহারকারীরা যখন ফোনে মুভি দেখবেন কিংবা গেম খেলবেন তখন পপ-আপগুলো যেনো তাদের বিরক্তির কারণ না হয় এজন্য নোটিফিকেশনের ক্ষেত্রে ওয়ান ইউআই ২.০-তে থাকবে স্বল্প সময়ের পপ-আপ সুবিধা।

গেম খেলার সময় পুরো স্ক্রিনজুড়েই মনোযোগ দিতে হয়। এসময় হঠাৎ করে কল চলে আসলে মনোযোগে বিঘ্ন ঘটানোর পাশাপাশি খেলার ধারাবাহিকতায় ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। এ সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে ওয়ান ইউআই ২.০-তে। ব্যবহারকারীরা যখন পুরো স্ক্রিন জুড়ে কোন অ্যাপ ব্যবহার করবেন, তখন মোবাইলে কোন ফোন কল আসলে তা স্ক্রিনের ওপরে ছোটো ব্যানার হিসেবে দেখাবে।

নেটিভ স্ক্রিন রেকর্ডিং

ওয়ান ইউআই ২.০-তে রয়েছে নেটিভ স্ক্রিন রেকর্ডিং। একজন ব্যবহারকারী যখন মোবাইলে কোনো কাজ করবেন, তখন সেই কাজগুলো স্বয়ংক্রিংভাবে জমা (রেকর্ড) হবে এবং ফ্রন্ট-ফেসিং ক্যামেরার মাধ্যমে ব্যবহারকারীর অভিব্যক্তি ধারণ করা যাবে। এছাড়াও,  মাইক্রোফোনের মাধ্যমে অডিও ধারণ করা যাবে।

অ্যাকসেসিবিলিটি সেটিংস

বিশ্বের জনপ্রিয় ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্যামসাংয়ের ফোনগুলোতে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষদের জন্যও রয়েছে বিশেষ সেটিংস সুবিধা। আর সবার কথা বিবেচনা করে স্যামসাং তাদের ফোনের ভিজ্যুয়াল আরও উন্নত করেছে। যেসব ব্যবহারকারীর দৃষ্টিজনিত সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য ওয়ান ইউআই ২.০ হবে আরও ব্যবহারবান্ধব।

যেসব ব্যবহারকারীর স্ক্রিনে টেক্সট পড়তে সমস্যা হয় তাদের জন্য লাউড ইয়েলো কিবোর্ডের মতো  হাই কন্ট্রাস্ট ভিজ্যুয়ালগুলো বেশ কার্যকরী হবে। ওয়ান ইউআই ২.০-এ সুবিধাগুলোর ওপর বিশেষভাবে আলোকপাত করা হয়েছে। এছাড়াও, যাদের হাত খানিকটা ছোট তারা ফোনের স্ক্রিনকে ছোট করে খুব সহজেই কাজ করতে পারবেন।

হিয়ারিং এনহ্যান্সমেন্ট

স্যামসাং সবাইকে সংযুক্ত করার মাধ্যমে নতুন উদ্ভাবনগুলো সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে চায়। তাই, অ্যাকসেসিবিলিটি সেটিংসে অ্যাম্বিয়েন্ট সাউন্ডের মতো হিয়ারিং এনহ্যান্সমেন্টস নিয়ে এসেছে ওয়ান ইউআই ২.০। গ্যালাক্সি বাডস এবং ওয়ান ইউআইয়ের সমন্বয় ব্যবহারকারীদের আরও স্পষ্ট শুনতে সহায়তা করবে।

ফোকাস মোড

ফোকাস মোড মোবাইল ব্যবহারকারীদের নির্বিঘ্নে কাজ করতে সহায়তা করবে। এর মাধ্যমে বেশি নোটিফিকেশন আসা অ্যাপগুলোর নোটিফিকেশনগুলো সাময়িকভাবে স্থগিত থাকবে। পরবর্তীতে, নির্দিষ্ট সময় পর ব্যবহারকারী ওই সময়ে আসা নোটিফিকেশনসহ নতুন নোটিফিকেশন পাবেন। এ সুবিধা ব্যবহারকারীদের রাতারাতি কর্মব্যস্ত না করে তুললেও তাদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

আইকন ও স্টিকার

ওয়ান ইউ আইয়ের নতুন সংস্করণ ওয়ান ইউআই ২.০-তে, ব্যবহারকারীর ফোনে কোন নোটিফিকেশন আসলে তা স্ক্রিনে ভেসে উঠবে এবং নোটিফিকেশন আইকনগুলো অনবরত নড়াচড়া করবে যাতে করে তা সহজেই ব্যবহারকারীর নজরে আসে।

ব্যবহারকারীরা স্যামসাং ক্যালেন্ডার এবং অন্যান্য স্থানীয় অ্যাপগুলোতে স্টিকার ব্যবহার করতে পারবেন। যেসব ব্যবহারকারী সৃষ্টিশীল ক্যালেন্ডার ব্যবহার করতে চান তাদের জন্য এটা বেশ উপভোগ্য একটি ফিচার।

ক্যামেরা

শাটারের ওপরে থাকা প্রো, প্যানোরোমা এবং স্লো-মো মোড বাটনে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সহজে ব্যবহারের সুবিধার্থে এ সবগুলো ফিচার থাকছে ‘মোর’বাটনে। শুধুমাত্র ফটো, ভিডিও এবং লাইভ ফোকাস শাটারের ওপরেই রাখা হয়েছে। এছাড়াও দু’টি এবং তিনটি ক্যামরায় জুম স্লাইডার যুক্ত করা হয়েছে, যা ব্যবহারকারীকে নির্বিঘ্নে জুম ইন এবং আউট করতে সহায়তা করবে।

ডায়নামিক এবং স্মার্ট লক স্ক্রিন

একই ফিক্সড লক স্ক্রিন দেখতে দেখতে বিরক্ত ব্যবহারীদের জন্য ওয়ান ইউ আইয়ের নতুন সংস্করণ ওয়ান ইউআই ২.০-তে রয়েছে ‘ডায়নামিক লক স্ক্রিন’ ফিচার, স্ক্রিন লক করার সাথে সাথে প্রতিবার নতুন ডাইনামিক ওয়ালপেপার প্রদর্শন করবে। ব্যবহারকারীকে শুধু ক্যাটাগরি নির্বাচন করে দিতে হবে তার পছন্দের ওয়ালপেপারের জন্য।

স্যামসাং’র লক স্ক্রীন আগের চেয়ে বেশি স্মার্ট করা হয়েছে এই সংস্করণে। নতুন ইউআই’তে ওয়ালপেপারের সাথে সহজেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে মানিয়ে যাবে ফোনের স্ক্রিন, ফন্টের কালারও স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেট হবে। এর ফলে, ব্যবহারকারীকে ঘড়ি দেখা কিংবা নোটিফিকেশন পড়ার জন্য চোখের অস্বস্তিতে ভুগতে হবে না।

ওয়ান ইউআই ২.০ সহজেই ব্যবহারযোগ্য। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা খুব দ্রুত ফোন ব্যবহার করতে পারবেন এবং মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ হ্রাস করা যাবে সহজেই। ব্যবহারকারীরা যা ভালোবাসেন সেভাবেই এটি সাধারণ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নকশা করা হয়েছে।

 

– সিনিউজভয়েস/জিডিটি/জানু.১৩/২০

Please Share This Post.