স্যামসাং-এর কোডিং কনটেস্টে চ্যাম্পিয়ন জাবি’র শিক্ষার্থী

স্যামসাং রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে (এসআরবিডি) সফলভাবে দ্বিতীয় সিজনের কোডিং কনটেস্ট সম্পন্ন করেছে। এই প্রতিযোগিতার লক্ষ্য ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে কোডিং সম্পর্কিত দক্ষতা ও জ্ঞান বিকশিত করা এবং শিক্ষা ও প্রাযুক্তিক পেশাদারিত্বের সমন্বয় ঘটানো।

দেশের স্বনামধন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৪৭ জন শিক্ষার্থী প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতার পুরস্কার ছিল এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা। প্রতিযোগিতাটি তিনটি ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম ধাপের অনলাইন এলিমিনেশন রাউন্ডে ৫২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিযোগীরা অংশ গ্রহণ করে। এই রাউন্ডে প্রতিযোগীদের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সি/সি++/ জাভা ব্যবহারের মাধ্যমে অ্যালগরিদম সংক্রান্ত সমস্যা সমাধান করতে হয়। পরবর্তীতে দ্বিতীয় কোয়ালিফাইং রাউন্ডে অংশগ্রহণকারী ১১০ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ৫০ জন প্রতিযোগী ফাইনাল রাউন্ডে পৌঁছে। অতঃপর ফাইনাল রাউন্ড থেকে প্রতিযোগীদের মধ্য থেকে  বছরের সেরা ১০ জন কোডিং পারদর্শী নির্বাচিত হয়।

প্রতিযোগিতা প্রসঙ্গে, স্যামসাং রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে (এসআরবিডি)- এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক উনমো কু অংশগ্রহণকারীদের ভালো কাজ চালিয়ে যাওয়া এবং প্রতিনিয়ত এই ধরণের প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণের  জন্য উৎসাহ প্রদান করেন, যা বাংলাদেশি তরুণদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে। সমাপনী বক্তব্যে তিনি এই বছর প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী প্রতিভাবান শিক্ষার্থীদের সাধুবাদ জানান এবং ভবিষ্যতে তাঁরা যেন বাংলাদেশের মূল্যবান সম্পদে পরিণত হতে পারে সেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

কোডিং কনটেস্ট প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. তরিকুল ইসলাম। তিনি পুরস্কার হিসেবে পান একটি মেডেল, চ্যাম্পিয়ন ক্রেস্ট এবং ৫০,০০০ টাকা। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন যথাক্রমে মোহাম্মদ সোলাইমান এবং এইচ এম আশিকুল ইসলাম। তাঁরা দুজনেই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর শিক্ষার্থী। প্রতিযোগিতার পুরস্কার হিসেবে মোহাম্মদ সোলাইমান পেয়েছেন ৩০,০০০ টাকা এবং এইচ এম আশিকুল ইসলাম পেয়েছেন ২০,০০০ টাকা।

সাত জন প্রতিযোগীকে চতুর্থ পুরস্কার প্রদান করা হয়। প্রতিযোগীরা হলেন- তানভীর মুত্তাকীন (বুয়েট), হাসিন রায়হান দেওয়ান ধ্রুব (বুয়েট), মাহমুদ সাজ্জাদ আবির (ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি), তারিক সালাম সজল (বুয়েট), কাজী সোহান (জেইউ) এবং অনিক সরকার (বুয়েট)। এই দশ জন শিক্ষার্থী দেশের শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের আওতাধীন এসআরবিডি-তে কাজ এবং ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ পাবেন।

-সিনিউজভয়েস/ডেক্স/০৮সেপ্টেম্বর/১৯

Please Share This Post.