স্যামসাং ইস্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশীপ বিজয়ী আইইউবি’র ফাইনাল রাইজ

স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশ আয়োজিত ‘স্যামসাং ইস্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশীপ ২০১৯’ শীর্ষক জনপ্রিয় গেমিং প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়নশীপ শিরোপার জন্য দেশের ৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৪৮টি দল অংশ নিয়েছে। গত মার্চ ৬ থেকে শুরু হয়ে গতকাল ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশের অডিটরিয়ামে প্রতিযোগিতাটির সমাপনী ঘোষণা করা হয়। আইইউবি-এর দল ফাইনাল রাইজ উক্ত গেমিং প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়নশীপ খেতাব জিতে নিয়েছে।

অংশ নেয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সকল শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিযোগিতাটি উন্মুক্ত থাকায়, দল গঠন করে তারা গেমিং প্রতিযোগিতাটিতে অংশ নিয়েছিলো। ৬টি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সেরা ১টি করে মোট ৬টি দল মূল আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিযোগিতায় ১টি দল প্রথমবারের মতো ‘স্যামসাং ইস্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশীপ’-এর গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়ন খেতাব জিতেছে। উল্লেখ্য, পুরো প্রতিযোগিতায় স্যামসাং-এর কিউএলইডি সুপার আল্ট্রা-গেমিং মনিটরে গেম খেলে অংশগ্রহণকারী দলগুলো।

সেরা ৬টি দল হচ্ছে ব্র্যাকের নো প্র্যাকটিস, ইডব্লিউইউ-এর ডেমিগডস, এআইইউবি-এর টিম সুনামি, এনএসইউ-এর ইলিসিট গেমিং, ইউল্যাবের কেটিআর ২ এবং আইইউবি-এর ফাইনার রাইজ। এদের মধ্যে গ্র্যান্ড চ্যাম্পিয়নশীপ খেতাব জিতে নিয়েছে আইইউবি-এর ফাইনাল রাইজ এবং রানারআপ খেতাব জিতেছে ইউল্যাবের কেটিআর ২। সেরা ৬টি দলই পেয়েছে স্যামসাং-এর পক্ষ থেকে আকর্ষণীয় উপহার। চ্যাম্পিয়ন দলের ৫ জনের প্রত্যেককে একটি করে স্যামসাং ২৭ ইঞ্চির গেমিং মনিটর, রানারআপ দলের ৫ জনের প্রত্যেককে একটি করে স্যামসাং ২৪ ইঞ্চির গেমিং মনিটর এবং বাকি ৪টি দলের ২০ জনের প্রত্যেককে একটি করে স্যামসাং ১৮.৫ ইঞ্চির গেমিং মনিটর পুরস্কার হিসেবে দিয়েছে স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশ।

বিশ্বব্যাপি ইস্পোর্টস বা অনলাইনে গেমিং বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, যা প্রায় সব ধরনের মিডিয়া ও চ্যানেলগুলোকে আকৃষ্ট করছে। বাংলাদেশে ছোট পরিসরে হলেও দ্রুততার সাথে ইস্পোর্টসের পরিচিতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। উক্ত খাতে প্রবৃদ্ধির জন্যে এধরনের প্রতিযোগিতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাংলাদেশে স্যামসাং-এর মতো শীর্ষস্থানীয় ব্র্যান্ডের আয়োজনে এই গেমিং প্রতিযোগিতার সেরা গেমাররা গ্লোবাল ইস্পোর্টসে অংশ নেয়ার লক্ষ্যে পেশাদার যোগাযোগের নেটওয়ার্ক তৈরির মাধ্যমে নিজেদের গড়ে তুলতে পারবে।

প্রতিযোগিতা প্রসঙ্গে স্যামসাং বাংলাদেশের কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্সের হেড অব বিজনেস শাহরিয়ার বিন লুৎফর বলেন, “গ্লোবাল ইস্পোর্টস প্ল্যাটফর্মে অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে আমাদের নতুন এই দীর্ঘ-মেয়াদী পদক্ষেপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। দক্ষিণপূর্ব এশিয়া অঞ্চলে অনলাইন গেমিং ইকোসিস্টেম তৈরিতে স্থানীয় অনলাইন গেমারদের সার্বিক উন্নয়নে সহায়তা করাই আমারদের মূল লক্ষ্য।”

স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশের হেড অব সেলস সাদ্ বিন হাসান; স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশের হেড অব মার্কেটিং খন্দকার আশিক ইকবাল এবং স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশের প্রোডাক্ট ম্যানেজার-আইটি মাহবুবুল আকরামসহ স্যামসাং-এর অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ ছাড়াও আইইউবি-এর হেড অব সিএসই ড. মেহেদী হাসানসহ অংশগ্রহণকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা, ক্লাব সদস্য এবং স্বেচ্ছাসেবকরা এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এবারের আসরে অংশগ্রহণকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হচ্ছে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এবং ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/২৫এম/১৯