আজকেই শেষ হচ্ছে স্পেস ইনোভেশন সামিট

ঢাকার ইন্ডিপেনডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে শুক্রবারে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় স্পেস ইনোভেশন সামিট। দেশে মহাকাশ বিজ্ঞান বিষয়ক শিক্ষায় আগ্রহ তৈরি করতে মহাকাশ গবেষণা যন্ত্রপাতি নিয়ে রকেট টেকনোলজির দক্ষতা বৃদ্ধি, গ্রাউন্ড স্টেশনের বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে ‘বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম ও নাসা সায়েন্টিফিক প্রবলেম সলভার বাংলাদেশ’ আয়োজন করেছে দ্বিতীয়বারের মতো এই স্পেস ইনোভেশন সামিট  ।

এই সম্মেলন  প্রায় ১ হাজার ৫০০ অংশগ্রহণকারী অংশ নিইয়েছেন। দু’দিনের এই আয়োজনে ১৬টি টেকনিক্যাল সেমিনার এবং হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য ২টি ওয়ার্কশপ হবে। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই সম্মেলন শেষ হবে  আজকেই।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এর সদস্য এবং বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানী লিমিটেডের পরিচালক প্রফেসর ড. সাজ্জাদ হোসেন। সামিটের উদ্বোধনী সেশনে সভাপতিত্ব করেন আইইউবির ট্রেজারার খন্দকার ইফতেখার হায়দার।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, স্পেস টেকনোলোজি নিয়ে আমাদের দেশের তরুণদের আগ্রহ দেখে আমি মুগ্ধ। এ ধরনের আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের তরুণদের মাঝে স্পেস বিষয়ে কাজ করার আগ্রহ তৈরি হবে।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন স্পেস ইনোভেশন সামিটের চিফ প্যাট্রন ও মূল সমন্বয়ক বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা আরিফুল হাসান অপু।

আয়োজনটি সম্পর্কে আরিফুল হাসান অপু বলেন, এবার আমরা প্রথমবারের থেকেও বড় কলেবরে স্পেস ইনোভেশন সামিট করছি। এই সামিটে দু’দিনে শিক্ষার্থীরা ১৮টি সেমিনার ও ২টি ওয়ার্কশপ থেকে মহাকাশ বিজ্ঞান সম্পর্কে অজানা অনেক কিছুই জানতে পারবে।

সামিটের শেষ দিন আজকে থাকছে সিমুলেশন বেসড রকেট মেকিংয়ের ওপর হাতে কলমে দিনব্যাপী কর্মশালা এবং আয়োজনটিতে বিশেষ চমক হিসেবে থাকছে চন্দ্র বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এক ঘণ্টার বিশেষ আয়োজন।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/১৯জুলাই/১৯

Please Share This Post.