স্টার্টআপদের সহায়তায় ৫০০ কোটি টাকার কোম্পানি!

আইসিটি বিভাগের অধীনে স্টার্টআপ কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড নামের একটি কোম্পানি হবে যার কাজ হবে উদ্ভাবনী ধারণার স্টার্টআপগুলোকে বেড়ে উঠতে সহায়তা করা। সরকারি এ কোম্পানি গঠনের প্রস্তাব পরবর্তী মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের কথা রয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে, আনুমানিক ৩৬ জন লোক নিয়ে ৫০০ কোটি টাকা মূলধন সহ কোম্পানিটি যাত্রা করবে। তবে ঠিক কতদিনে এটা কার্যকর হবে তা জানা যায়নি।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, গত ৪ বছর ধরে স্টার্টআপ বাংলাদেশ প্রকল্পের আওতায় এ নিয়ে কাজ করছে আইসিটি বিভাগ। এরপর নানা ধাপ পেরিয়ে অবশেষে এ বিষয়ক প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে ।

গত বৃহস্পতিবার প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে দেশের এক হাজার স্টার্টআপের পাশে দাঁড়াতে তারা এ কোম্পানি গঠন করতে যাচ্ছেন।

নয় সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হবে। এতে চেয়ারম্যান হবেন আইসিটি সচিব। এ ছাড়া অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও অতিরিক্ত সচিব পদ মর্যাদার কর্মকর্তারা এখানে থাকবেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, সরকারের এক হাজার কোম্পানিতে বিনিয়োগের লক্ষ্য থেকে যদি একটি বিশ্বমানের কোম্পানি বেরিয়ে আসে তাহলে তা পুরাে দেশের চেহারা বদলে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট হবে। সরকার চায় না শিক্ষিত তরুণ শুধু চাকরি খুঁজবে, বরং তারা নতুন চাকরির ব্যবস্থা করবে। সে জন্য দেশে স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তোলা দরকার।

তিনি আরো বলেন, স্টার্টআপ বাংলাদেশ প্রকল্পের আওতায় অর্থায়নের জন্য বেশ কয়েকশ আবেদন পাওয়া গেছে, যেগুলোর মধ্য থেকে কিছু আবেদন বাছাই করে রেখেছে কর্তৃপক্ষ। তবে এখনও সেখানে বিনিয়োগ করার কাজ শেষ হয়নি।

উল্লেখ্য, চলতি অর্থবছরের বাজেটে স্টার্টআপ খাতে অর্থমন্ত্রী ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছেন। যা নতুন উদ্যোগতাদের অনেক কাজে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

-সিনিউজভয়েস/ডেস্ক/২১জুলাই/১৯

Please Share This Post.