সিডস্টারস ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করবে সিমেড হেলথ

জিপি হাউজে অনুষ্ঠিত সিডস্টারস ওয়ার্ল্ডের বাংলাদেশ পর্ব সিডস্টারস ঢাকার বিজয়ী হয়েছে সিমেড হেলথ লিমিটেড।

বিজয়ী দল সুইজারল্যান্ডে সিডস্টারস সামিটে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার পাশাপাশি, মূলধন বিনিয়োগ হিসেবে ১০ লাখ মার্কিন ডলার জিতে নিতে প্রতিযোগিতা করবে। এই আয়োজনের টাইটেল স্পন্সর ছিল লংকাবাংলা ফিনান্স লিমিটেড এবং সহায়তায় ছিল ডাক, টেলিযোগাযোগ ও আইসিটি মন্ত্রণালয়ের আইসিটি ডিভিশন।

বিশ্বজুড়ে উদীয়মান বাজার এবং স্টার্টআপ সম্প্রসারণে বৈশ্বিক সিড স্টেজ স্টার্টআপ প্রতিযোগিতা সিডস্টারস ওয়ার্ল্ডের বাংলাদেশ পর্ব ‘সিডস্টারস ঢাকা’ গ্রামীণফোন অ্যাকসেলেরেটরের পৃষ্ঠপোষকতায় ২৩ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাপনী অনুষ্ঠানে নির্বাচিত আটটি স্টার্টআপ স্থানীয় বিচারকদের সামনে তাদের ব্যবসায়িক ধারণার উপস্থাপন করেন।

অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্টার্টআপগুলোকে উৎসাহিত করেন। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের তরুণরা অত্যন্ত মেধাবী। এখন তাদের ওপর বিশ্বের মনোযোগ দরকার। এমন একটি প্রতিযোগিতার আয়োজনের জন্য আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এ ধরনের আয়োজন তরুণ উদ্যোক্তাদের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রতিযোগিতা করার ক্ষেত্রে সহায়তা করবে।’

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, ‘আমি অংশগ্রহণকারীদের অভিনব সব পণ্য দেখে বিমোহিত। এ উদ্ভাবকরাই দেশের ডিজিটালকরণের ক্ষেত্রে একটি পারস্পারিক সহযোগিতামূলক ইকোসিস্টেম নির্মাণে আমাদের সহায়তা করবে।’

স্থানীয় বিজয়ী সিমেড হেলথ লিমিটেড আইওটি ভিত্তিক ক্লাউড নির্ভর স্বাস্থ্যসেবা প্লাটফর্ম পরিচালনা করে, যা স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য পর্যলোচনা করে স্বাস্থ্য ঝুঁকি নির্ণয় করে। রেপটো এডুকেশন সেন্টার ও কুকআপ টেকনোলজিস যথাক্রমে প্রথম ও দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছে।

বিজয়ী সিমেড আগামী নভেম্বরে ব্যাংককে সিডস্টারস এশিয়ার রিজিওনাল সামিটে অংশগ্রহণের পাশাপাশি, সকল ব্যয়ভারসহ আগামী এপ্রিলে সুইজারল্যান্ডে সিডস্টারস গ্লোবাল সামিটে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। গ্লোবাল সামিটে সপ্তাহব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে ৭৫টি দেশের বিজয়ী এবং বিশ্বের বিভিন্ন বিনিয়োগদাতা ও প্রশিক্ষকদের মধ্যে সাক্ষাতের সুযোগ হবে। সামিটের শেষ দিন, উপস্থিত এক হাজার অতিথি্র সামনে অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের ব্যবসায়িক ধারণা উপস্থাপনের মাধ্যমে নিজেদের ব্যবসার মূলধন বিনিয়োগ হিসেবে সর্বোচ্চ ১০ লাখ মার্কিন ডলার জিতে নেয়ার সুযোগ পাবে।

সিডস্টারসের ঢাকা পর্বে ১৭০টি আবেদনের মধ্যে থেকে আটটি স্টার্টআপকে ব্যবসায়িক ধারণা প্রদর্শনের জন্য নির্বাচিত কর হয়।

স্টার্টআপ বাংলাদেশ- আইডিয়ার টিনা জাবিন, গ্রামীণফোনের কাজী হাসান, লঙ্কা বাংলা ফাইন্যান্সের খুরশেদ আলম, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেডের প্রিন্স মজুমদার, সিভিসিএফএল’র মুস্তাফিজুর রহমান, রেজর ক্যাপিটালের আহাদ মোহাম্মদ, স্টার্টআপ ঢাকার সামাদ মির‍্যালি, সোচিয়ানের তারেক আল মুনতাসির এবং সিডস্টারসের আদ্রিয়ানা কলিনির সমন্বয়ে গঠিত বিচারক প্যানেলের সামনে নিজেদের ব্যবসায়িক ধারণার উপস্থাপন করে নির্বাচিত আটটি স্টার্টআপ।

এ আয়োজনকে সফল করে তুলতে এবং স্থানীয় উদ্যোক্তাদের সুযোগ করে দিতে সিডস্টারস বাংলাদেশে এর স্থানীয় অ্যাম্বাসেডর তানভীর সৌরভসহ একাধিক অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করছে। সিডস্টারস ঢাকার কো স্পন্সর হিসেবে ছিল লঙ্কা বাংলা ফাইন্যান্স, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড ও সিভিসিএফএল এবং আমরা টেকনোলজিস। এছাড়াও, এ অনুষ্ঠানের সফল সমাপ্তিতে সার্বিক সহযোগিতা করেছে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, সুইস দূতাবাস, ইএমকে সেন্টার, বেটার স্টোরিজ, ডিজিটাল বাংলাদেশ ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ।

সিডস্টারস ঢাকা পর্বের চূড়ান্ত লড়াইয়ে অংশগ্রহণকারী ৮ স্ট্যার্টআপ হচ্ছে :

* আরেকটু: ই-কমার্স সফটওয়্যার ‘আরেকটু’ বাংলাদেশে ফেসবুকের মাধ্যমে পণ্য বিক্রিতে ১০ হাজারের বেশি ব্র্যান্ডের জন্য সেবা দিচ্ছে।

* মাইক্রোটেক ইন্টারঅ্যাকটিভ: অগমেন্টেড রিয়ালিটি প্রযুক্তি ব্যবহার করে শিশুদের আনন্দদানের মাধ্যমে শিশুদের শেখানোর কাজ করে ‘মাইক্রোটেক ইন্টারঅ্যাকটিভ’।

* সিএমইডি হেলথ লিমিটেড: আইওটির সুযোগ থাকা ক্লাউডভিত্তিক রোগ প্রতিরোধমূলক হেলথকেয়ার প্ল্যাটফর্ম ‘সিএমইডি হেলথ লিমিটেড’ প্যারামিটার পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে স্বাস্থঝুঁকি নির্ণয় করে স্বাস্থ্যব্যয় কমিয়ে আনে।

* বাড়িকই: লজিস্টিক ও ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের কার্যকারিতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে ‘বাড়িকই’।

* হেড ব্লকস: ভুল মানুষের ওপর বিনিয়োগে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভুল করে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে, প্রতিষ্ঠানের উৎকর্ষে সঠিক মানুষ খুঁজে পেতে সহায়তা করে ‘হেড ব্লকস’।

* কুকআপস টেকনোলজিস: বাসায় তৈরি খাবারের জন্য এয়ারবিএনবি হচ্ছে ‘কুকআপস’। বাসায় তৈরি সব ধরনের খাবার বেচাকেনার প্ল্যাটফর্ম এটি।

* জলপাই টেকনোলজিস: স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ‘জলপাই টেকনোলজিস’ একটি সামগ্রিক হেলথকেয়ার প্ল্যাটফর্ম যা ডাক্তারের সাক্ষাৎকার, পরামর্শ, ওষুধ ও চিকিৎসার রেকর্ড নিয়ে কাজ করে।

* রেপ্টো: বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার গণতন্ত্রায়নে অনলাইন কোর্স মার্কেটপ্লেস রেপ্টো এডুকেশন সেন্টার।

* মেঘদূত অ্যানালিটিকস: উদীয়মান অর্থনীতির প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ক্লাউডভিত্তিক ‘সেলফ সার্ভিস বিআই সল্যুশন’ ব্যবহার করে তাদের ডাটাচালিত প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরে কাজ করে ‘মেঘদূত অ্যানালিটিকস’।


– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.