সিটিস: স্কাইলাইন স্নোপল

সিমসিটি ধরনের গেমের যারা ভক্ত তাদের কাছে ‘সিটিস: স্কাইলাইন স্কাইলাইন স্নোপল’ গেমটি ভাল লাগবে। এটি মূলত ‘সিমসিটি: স্কাইলাইন’-এর নতুন একটি ভার্সন। সিমসিটি ধরনের গেমের মূল বিষয় হচ্ছে শহর নির্মাণ। ‘সিটিস: স্কাইলাইন স্কাইলাইন স্নোপল’ গেমেও আপনার মূল কাজ হবে শহর তৈরি করা, তবে যেহেতু এর নামের সাথে তুষারপাতের উল্লেখ আছে সেহেতু বুঝতেই পারছেন, এখানে শহর নির্মাণের পটভূমিটি হবে তুষার বা বরফের রাজ্যে। শহর তৈরি করতে গিয়ে বরফ বা তুষারের যত রকমের প্রয়োগ বা সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে তার সবই এখানে আছে। শহর নির্মাণের ব্যাপারটি সম্পন্ন করার জন্য এখানে তিনটি নতুন মানচিত্র আছে: স্নোয়ি কোস্ট, আইসি ল্যান্ডস এবং ফ্রস্টি রিভারস। প্রতিটি ম্যাপেরই ঋতু একটাই, আর তা হচ্ছে শীতকাল। চারদিকে বরফ আর তুষারপাত আর শীতের এত ছড়াছড়ি যে আপনার মনে হবে আমি কি আবার সেই বরফযুগ বা ‘আইএসএজ’-এ ফিরে গেলাম নাকি? এ কারণে এটি খেলতে গিয়ে অনেক গেমারেরই মনে হতে পারে, এত শীত-শীত না করে যদি একের পর এক ঋতুর মধ্য দিয়ে বৈচিত্র্যপূর্ণ একটি পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে শহর নির্মাণের কাজটি করা হত তাহলে গেমাররা হয়ত আরো একটু বেশি আনন্দ পেতেন। যাই হোক, গেমের ধরনের মধ্যে কিছুটা একেঘেয়েমি এর ফলে এসে গেলেও এই গেমে আসলে আনন্দ পাওয়ার মতও অনেক উপকরণ আছে। গেমের স্নোয়ি ফল বা তুষারপাতের দৃশ্যটির কথাই বলি, এটি খুবই চমৎকারভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এবং এর মধ্যে চিরন্তন একটা ব্যাপার আছে।

click april skyline6

আগের ভার্সনের তুলনায় গেমপ্লেতে কিছু পরিবর্তন নিয়ে আসা হয়েছে, যার মধ্যে এক নম্বর হল, শীতকালের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যকে এখানে জায়গা করে দেয়া হয়েছে। স্ক্রিনের নিচের দিকে তাপমাত্র বোঝানোর জন্য একটি নতুন বাটন যুক্ত করা হয়েছে, যাতে মূলত জিরো ডিগ্রির নিচের আবহাওয়ার ছড়াছড়িই বেশি। তুষার ক্রমাগত রাস্তায় পড়তে পড়তে বিপুল আকার ধারণ করে, তখন ট্রাক্টর আর হেভি ইকুইপমেন্ট দিয়ে বরফ ও তুষার পরিষ্কার করতে হয় এবং তা শহর নির্মাণ ও ব্যবস্থাপনার অন্যতম একটি অঙ্গে পরিণত হয়। এর সঙ্গে জড়িত আছে শহর ব্যবস্থাপনার ছোটখাট আরো অনেকগুলো বিষয়। যেমন পয়ঃনিষ্কাষণ বা পানি সরানোর কাজটিও এর মধ্যে আছে। ভয়ঙ্কর শীতের মধ্যে শহরের বাড়িঘরে উত্তাপ প্রদান করার জন্যও নিতে হয় জরুরি কিছু পদক্ষেপ। এজন্য বয়লার স্টেশন আর জিওথারমাল পাওয়ার প্ল্যান্টগুলোর সঠিক ব্যবস্থাপনা জরুরি, এবং এই গেমের মূল চরিত্র, অর্থাৎ মেয়র হিসেবে গেমারকে এসব ব্যাপারেও মনোযোগ দিতে হয়।
আছে প্রতিকূল পরিস্থিতিতে শহরের জীবনযাত্রা ঠিক রাখার বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলাও। এর মধ্যে একটি বড় বিষয় হল গাড়িঘোড়া যাতে ঠিকমত চলতে পারে, মানুষ যাতে তাদের দৈনন্দিন কাজগুলো করতে পারে সে ব্যবস্থা। এই গেমে নতুন কিছু বিল্ডিং ও পার্ক যুক্ত হয়েছে যা নগর ব্যবস্থাপনার কাজে বাড়তি দায়িত্বও এনে দিয়েছে। যদি বরফের রাজ্যে একটি শহরকে ঠিকঠাকমত রাখার এই জটিল কাজটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পারেন তাহলে আপনি নিজেও কোনো একদিন একটি শহরের মেয়র হিসেবে কাজ করার সামর্থ্য অর্জন করতেই পারেন!

click april skyline4
গেমটি খেলতে যা লাগবে: 
অপারেটিং সিস্টেম: উইন্ডোজ ৮/৭ এসপি১/ভিস্তা এসপি২
প্রসেসর: ইন্টেল কোর টু ডুয়ো ই৬৬০০, ২.৪ গিগাহার্টজ
র‌্যাম: ৩ গিগাবাইট
গ্রাফিক্স: ইন্টিগ্রেটেড গ্রাফিক্স
সাউন্ড: ইন্টিগ্রেটেড
মনিটর: ১২৮০X৭২০ পিক্সেল ন্যূনতম
ডিরেক্টক্স: ডিএক্স৯
ফ্রি হার্ড ডিস্ক স্পেস: ২ জিবি

-সিনিউজভয়েস/ডেক্স