সিগনাল ও টেলিগ্রামের উল্লম্ফন

মেসেজ প্লাটফর্ম সিগনাল ও টেলিগ্রাম উভয়েই হঠাৎ করে তাদের জনপ্রিয়তায় বড় ধরনের উল্লম্ফন দেখতে পাচ্ছে। হোয়াটসঅ্যাপের মতো জনপ্রিয় অ্যাপ ব্যবহারের শর্তে কড়াকড়ি আসায় এসব অ্যাপের ব্যবহারকারী হঠাৎ করে বেড়ে গেছে। হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে যে, তাদের বিশ্বব্যাপী ছড়ানো ২০০ কোটি ব্যবহারকারীকে এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার জারি রাখতে হলে তাদের প্যারেন্ট কোম্পানি ফেসবুকের সাথে তাদের ডাটাকে শেয়ার করতে হবে। তবে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপের ব্যবহারকারীদের এটি মানার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। আগামি ৮ ফেব্রæয়ারির মধ্যে যদি হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহারকারীরা এই শর্তে রাজি না হয় তাহলে এর পর থেকে তারা আর হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে কোম্পানিটি। এই শর্তের কারণে অনেক ব্যবহারকারীই নাখোশ হয়েছে। আর ব্যবহারকারীদের এই নাখোশ হওয়ার সুযোগটিই নিতে চাচ্ছে টেলিগ্রাম ও সিগনালের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো। তারা ফ্রি টু ইউজ এনক্রিপ্টেড মেসেজিং সার্ভিস প্রদান করছে যা তাদের জনপ্রিয়তার এই আকস্মিক বৃদ্ধির জন্য মূলত দায়ী। অ্যানালিটিক্স ফার্ম সেন্সর টাওয়ার থেকে পাওয়া ডাটা অনুযায়ী সিগনাল অ্যাপটি বিশ্বব্যাপী হোয়াটসঅ্যাপের ঘোষনা আসার আগের সপ্তাহে আড়াই লাখ বারের মতো ডাউনলোড হয়েছিল। কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপের ঐ ঘোষণার পরের সপ্তাহেই এটি ডাউনলোড হয় ৮৮ লক্ষ বার। বিশেষ করে ভারতে এটির ডাউনলোড এক লাফে ১২ হাজার বার থেকে ২৭ লক্ষ বারে পৌঁছে গেছে। যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রেও এর ব্যবহারকারী দ্রুত বাড়ছে।

Please Share This Post.