সাইবার সিকিউরিটি স্পেশালিস্ট প্রতিযোগিতার নিবন্ধন চলছে

দক্ষ সাইবার নিরাপত্তায় কর্মী খুঁজে বের করতে অ্যাডভান্স টেকনোলজি বিডি’র আয়োজনে দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হচ্ছে ‘সাইবার সিকিউরিটি চ্যালেঞ্জ ২০১৮’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা। আগামী ২ ডিসেম্বর রোববার রাজধানীর আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ ক্যাম্পাসে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন হবে।

‘বি দ্য আলটিমেট সিকিউরিটি স্পেশালিস্ট’ স্লোগানে প্রতিযোগিতার পাওয়ার্ড বাই স্পন্সর জনপ্রিয় রাইড শেয়ারিং প্লাটফর্ম পাঠাও। এছাড়া কোস্পন্সর হিসেবে রয়েছে আইপে, এসসিএসএল ও মেট্রোনেট। আর স্ট্রাটেজিক পার্টনার হিসেবে রয়েছে বেসিস, আইএসপিএবি, বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন)।

সাইবার সিকিউরিটি চ্যালেঞ্জ ২০১৮ প্রতিযোগিতার সমন্বয়ক আব্দুর রহমান শাওন জানিয়েছেন, প্রতিযোগিতায় দেশের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য ইতিমধ্যে নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সর্বোচ্চ ৩ জন করে দল গঠনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা যাবে। সাইবার সিকিউরিটি চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণের জন্য আগামী ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত নিবন্ধন করা যাবে। ঢাকায় উদ্বোধনের পর রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, চট্টগ্রাম, রংপুর, ময়মনসিংহে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ে সচেতনতামূলক কর্মশালা ও সেমিনার আয়োজিত হবে। নিবন্ধিত শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনলাইন ভিত্তিক বাছাই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বাছাই পর্বে উত্তীর্ণ দলগুলো আগামী ২০ ডিসেম্বর রাজধানীর ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে।

গত ২৮ নভেম্বর বুধবার রাজধানীর কাওরানবাজারের বেসিস অডিটরিয়ামে আয়োজিত প্রেস মিটে এ প্রতিযোগিতা শুরুর ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে উপস্তিত ছিলেন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এর সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক, পাঠাওয়ের লিড মার্কেটিং ম্যানেজার সৈয়দা নাবিলা মাহবুব, আইপে সিস্টেমস লিমিটেডের বিজনেস এন্ড স্ট্র্যাটেজি হেড মো. আবুল খায়ের চৌধুরী, স্টার কম্পিউটার সিস্টেমস লিমিটেড এর ম্যানেজার (মনবসম্পদ ও প্রশাসন) মুশফিকুল আলম খান, রিভ এন্টিভাইরাসের সিনিয়র মার্কেটিং ম্যানেজার ইবনুল করিম রূপেন এবং সাইবার সিকিউরিটি চ্যালেঞ্জ ২০১৮ এর আহবায়ক ও সমন্বয়কারী আব্দুর রহমান শাওন।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন দলের প্রত্যেকের জন্য ল্যাপটপ, প্রথম রানার্স আপ দলের জন্য স্মার্টফোন এবং দ্বিতীয় রানার্স আপ দলরে জন্য পুস্কার হিসেবে ট্যাবলেট পিসি দেওয়া হবে। পাশাপাশি থাকবে ক্রেস্ট এবং সনদপত্র দেওয়া হবে। বিজয়ী নারী দলের জন্য থাকবে বিশেষ সম্মননা। এছাড়া বিজয়ী দলগুলোর সদস্যরা দেশের শীর্ষ আইটি প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্ন করার সুযোগ পাবে। দেশের পাশাপাশি বিদেশি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সাইবার সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞরা প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

নিবন্ধন করা যাবে  https://cyberchallenge.com.bd/registration ঠিকানায়

 

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি

 

Please Share This Post.