সাইবার অপরাধ মোকাবেলায় প্রণীত হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

সাইবার নিরাপত্তায় বিঘ্ন সৃষ্টিকারী ও সাইবার অপরাধীদের মাধ্যমে সংঘটিত সাইবার অপরাধ মোকাবেলায় সক্ষমতা বৃদ্ধিসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণীত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

২০ অক্টোবর শুক্রবার, রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি) এ চলমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে আয়োজিত ‘ইউ আর নট সেইফ! ডিজিটাল ফর এভরি সিটিজেন’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশ খুব দ্রুততার সাথে এগিয়ে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি খসড়া অনুমোদন হয়েছে। শিগগিরই আইনটি পাশ হতে যাচ্ছে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল আরও বলেন, জঙ্গীবাদসহ সাইবার অপরাধ দমনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ডিভিশন নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণের জন্য ২০১২ সালে প্রণীত পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন এবং পুলিশের ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ডিপার্টমেন্টে একটি ডিজিটাল ফরেনসিক ল্যাবরেটরি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। যার মাধ্যমে প্রতিনিয়তই অপরাধীদের সনাক্ত করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এসব আইনের মাধ্যমে এ পর্যন্ত বিভিন্ন থানায় ১ হাজার ৬১২টি মামলা হয়েছে। যার আসামী করা হয়েছে ৫ হাজার ৪৪৯ জনকে। এছাড়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণীত হলে অপরাধী সনাক্ত এবং দমনে বর্তমান সরকার আরও সমৃদ্ধি অর্জন করবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, দেশের প্রত্যেক মানুষের নিরাপদ ইন্টারনেটের জন্য আমরা কাজ করছি। ১৬ কোটি মানুষের সাইবার সচেতনতা সৃষ্টি করাই মূল লক্ষ্য।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মেট্রোনেট বাংলাদেশের নিরাপত্তা গবেষক আলমাস জামান। এছাড়া অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম। আরও উপস্থিত ছিলেন বেসিসের পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবির প্রমুখ।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.