সমন্বিত মার্কেটিং বিজনেস ‘অ্যাডা’ চালু করল আজিয়াটা ডিজিটাল

ডিজিটাল ক্ষেত্রে ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠার সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সম্প্রতি সমন্বিত মার্কেটিং বিজনেস ‘অ্যাডা’ চালু করেছে আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের একটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আজিয়াটা ডিজিটাল। নতুন এই ব্যবসায়িক ধারণাটি ডেটা সায়েন্স, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী ক্ষেত্রে নিত্য নতুন অফার নিয়ে আসবে যার ফলে ব্র্যান্ড ও বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য একটি শক্তিশালী ডিজিটাল ইকোসিস্টেম গড়ে উঠবে। আজিয়াটা বাংলাদেশের অন্যতম মোবাইল ফোন অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেড’র মূল কোম্পানি।

ডেটা ম্যানেজমেন্ট প্লাটফর্ম এক্সঅ্যাক্ট’র সহায়তায় ভোক্তা বিশ্লেষণের মাধ্যমে এবং বিশেষ প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে ‘অ্যাডা’ কাজ করে থাকে। এশিয়াজুড়ে আজিয়াটা গ্রুপের অন্যান্য বাজারের পাশাপাশি বাংলাদেশে অ্যাডা’র সেবা প্রদান করবে আজিয়াটা ডিজিটাল বাংলাদেশ (এডিবি)।

চারটি ভাগে ‘অ্যাডা’ ডিজিটাল মার্কেটিং সার্ভিস প্রদান করবে। সুনির্দিষ্ট ডিজিটাল কৌশল প্রণয়নের মাধ্যমে ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য পূরণে সহায়তা করবে ‘অ্যাডাফিউচার’। ডেটা সংশ্লিষ্ট উদ্ভাবনী কাজগুলোতে সহায়তা করবে ‘স্টুডিও এ’ যা জীবনমান বাড়ানোর পাশাপাশি নির্দিষ্ট লক্ষ্য পূরণে সহায়ক হবে। ‘অ্যাডারিচ’র মাধ্যমে তিনশ’ মিলিয়ন ব্যক্তির মধ্যে নির্দিষ্ট গ্রাহকের কাছে বার্তা পৌঁছানো এবং প্রোগ্রামেটিক মিডিয়া বায়িং করা যাবে। বিজ্ঞাপনদাতাদের জন্য ঝুঁকি কমিয়ে সর্বোচ্চ ফলাফল অর্জন করতে সহায়তা করবে ‘অ্যাডাঅ্যাকোয়ার’।

আজিয়াটা ডিজিটালের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. খায়রিল আবদুল্লাহ বলেন, “বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপনের অভিজ্ঞতা এই অঞ্চলে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে আমাদের অবস্থানকে দৃঢ় করেছে। এ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আমরা বিভিন্ন ব্রান্ডের জন্য কার্যকর ডিজিটাল বিজ্ঞাপন নিশ্চিত করতে আত্মবিশ্বাসী।”

অ্যাডা’র ভারপ্রাস্ত সিইও শ্রীনিভাস গাত্তামনেনি বলেন, ডেটা বিশ্লেষণই ভবিষ্যত বিজ্ঞাপনের চাবিকাঠি। আমরা আশা করি, পরবর্তী তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে সব ধরণের মার্কেটিং সিদ্ধান্তগুলোর ৯০ শতাংশই হবে ডেটা-নির্ভর।

তিনি আরো বলেন, ব্যবসায়িক প্রসারের লক্ষে ব্র্যান্ড ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে গ্রাহকদের সাথে কার্যকর যোগাযোগ রক্ষা করতে পারে এজন্য টেলিযোগাযোগ খাতের সমৃদ্ধ ডেটা এবং স্বচ্ছ ও নিবেদিত বিশেষজ্ঞ দলের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করে ‘অ্যাডা’।

আজিয়াটার গ্রাহকদের ডিজিটাল লাইফস্টাইলকে এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্যে আজিয়টা গ্রুপ বারহাদের (আজিয়াটা) অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় আজিয়াটা ডিজিটাল (এডি)। চার বছরের মধ্যে ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস (ই-ওয়ালেটস, রেমিটেন্স, মাইক্রো-ইন্স্যুরেন্স ও ক্ষুদ্র-ঋণ), ডিজিটাল অ্যাডভার্টাইজিং এবং এপিআই-নির্ভর (অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস) প্লাটফর্ম সেবার উপর ভিত্তি করে ২৬টি ডিজিটাল ব্র্যান্ড নিয়ে সমৃদ্ধ এডি’র পোর্টফোলিও।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.