শেষ হলো সচেতনামূলক আয়োজন ‘সোশ্যাল মিডিয়া প্যারেড’

ইন্টারনেট বিশেষত ফেইসবুক, টুইটার সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিরাপদ থাকতে করণীয় কি এবং সরকারি উদ্যোগগুলো সম্পর্কে ধারণা দিতে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আয়োজনে গত ২৫ থেকে ২৭ মে হস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারের সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে তিন দিনব্যাপী ভার্চুয়াল আয়োজন ‘সোশ্যাল মিডিয়া প্যারেড’ অনুষ্ঠিত হয়।

সোস্যাল মিডিয়া প্যারেডের ২৫ মে অন্য সেশনে উপস্থিত ছিলেন জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে গঠিত বাংলাদেশ পুলিশের কাউন্টার টেররিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম, সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতাধীন ন্যাশনাল ডেটা সেন্টারের পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহ, জাস্টিস ফর উইম্যান-বাংলাদেশ এর সাইবার ক্রাইম এন্ড সিকিউরিটি এনালিস্ট জাকারিয়া সিকদার এবং এই সেশনের সঞ্চালনা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের পাবলিক রিলেশন অফিসার মো: অাবু নাছের।

Social medai parad

 

এর আগে সোশ্যাল মিডিয়া প্যারেড উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সোশ্যাল মিডিয়ার ফেইসবুক, টুইটার সহ বিভিন্ন মাধ্যম এর অপব্যবহার করে অনেকেই ফায়দা লুটতে চায় এবং সুযোগ খুঁজে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, আমরা দেখি ধর্ম, বর্ণ-গোষ্ঠীকে অনেক উদ্দেশ্যমূলক, আক্রমণাত্মক, আমাদের নারীদেরকে, কোনো ব্যক্তিকে, কোনো পরিবারকে, কোনো রাষ্ট্রকে উদ্দেশ্য করে অনেক সময় ধর্মীয় উস্কানি দেওয়া হচ্ছে। রামুর যে ঘটনাটি সেটাও একটি ধর্মীয় উস্কানিমূলক বলে বলেন তিনি।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ মনে করে এসব ব্যবহারকারীকে সচেতন করা দরকার। তাই সচেতন করতে সেই সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মকেই বেছে নেওয়া হয়েছে।
পরে প্রতিমন্ত্রী পলক, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব হারুন-অর-রশিদ, মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির এবং বিডিওএসএনের সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কনসালটেন্ট মুনির হাসান একটি ফেইসবুক লাইভে অংশ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমগুলোকে আরও কিভাবে ইতিবাচক করা যায় তা আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানের ভিডিও লিংক:  https://www.facebook.com/ictdivisionbd/videos/1702357919782184/

-সিনিউজভয়েস ডেক্স

Please Share This Post.