শিক্ষার্থী ও তরুণদের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে ওয়ালটনের প্রিলুড সিরিজ

প্রিলুড সিরিজের এই ল্যাপটপের মডেল ডব্লিউপিআর১৪এন৩৪জিএল (ডচজ১৪ঘ৩৪এখ)। ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে, নতুন এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ১৪.১ ইঞ্চির এইচডি ডিসপ্লে। পর্দার রেজ্যুলেশন ১৩৬৬ বাই ৭৬৮ পিক্সেল। উন্নত পারফরমেন্সের জন্য আছে ১.১ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল অ্যাপোলো লেক এন৩৪৫০ প্রসেসর। রয়েছে বিল্টইন ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৫০০। সঙ্গে ৪ গিগাবাইট ডিডিআর৩ র‌্যাম থাকায় প্রয়োজনীয় কাজ করা যাবে অনায়াসেই।

বেশি সংখ্যক ফাইল, সফটওয়ার, গেম, মুভি ইত্যাদি সংরক্ষণের জন্য এক টেরাবাইট হার্ডডিক্স ড্রাইভের সঙ্গে রয়েছে ৭ মিমি সাটা ইন্টারফেস। সুযোগ থাকছে আরো বেশি জায়গাযুক্ত হার্ডডিক্স ড্রাইভ ব্যবহারের।

দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ৭.৬ ভোল্ট বা ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। যা পাঁচ ঘণ্টা ব্যাকআপ দিতে সমর্থ। স্পষ্ট ও জোড়ালো শব্দের জন্য রয়েছে দুইটি বিল্ট ইন স্পিকার। আকর্ষণীয় সেলফি এবং ভিডিও কলের জন্য রয়েছে ২ মেগাপিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা।

Walton

কানেকটিভিটির জন্য রয়েছে ২টি করে ইউএসবি পোর্ট, টিএফ কার্ড স্লট, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ওয়্যারলেস ল্যান, এইচডিএমআই পোর্ট, হেডফোন ও মাইক্রোফোন জ্যাক ইত্যাদি। ল্যাপটপটির ডাইমেনশন ৩২৯.৮/২১৯.৭/২২ মিমি। ব্যাটারিসহ ওজন মাত্র ১.৩৩ কেজি। এতে ২ বছরের ওয়ারেন্টি মিলবে। সোনালি রঙের ল্যাপটপটির মূল্য ২২,৫০০ টাকা।

ওয়ালটন কম্পিউটার প্রজেক্ট ইনচার্জ ইঞ্জিনিয়ার মো. লিয়াকত আলী জানান, ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত এই ল্যাপটপটি তৈরি হয়েছে ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায়। শিক্ষার্থী ও তরুণদের ক্রয়ক্ষমতার কথা বিবেচনা রেখে এর কনফিগারেশন ও দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। এর অন্যতম ফিচার মাল্টি-ল্যাংগুয়েজ কিবোর্ড। যাতে স্ট্যান্ডার্ড ইংরেজির পাশাপাশি রয়েছে বিল্ট-ইন বাংলা ফন্ট এবং বিজয় বাংলা সফটওয়্যার। যে কেউ অনায়াসেই এই ল্যাপটপে বাংলা লিখতে পারবেন।

-গোলাম দাস্তগীর তৌহিদ

 

Please Share This Post.