শারিরীক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি শিশুদের পাশে রবি

শারিরীক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি শিশুদের জীবন সহজ করতে বিশেষ সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে মোবাইলফোন অপারেটর রবি। কর্পোরেট দায়বদ্ধতার আওতায় স্বাস্থ্য সহায়তা উপকরণ ও ফিজিও থেরাপির জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রি প্রদান করেছে অপারেটরটি।

শারিরীক প্রতিবন্ধকতার কারণে বিশেষ যতেœর প্রয়োজন থাকা শিশুদের সহায়তাকারী সংগঠন এসইআইডি’কে (সোসাইটি ফর এডুকেশন অ্যান্ড ইনক্লুশন অব দ্যা ডিজঅ্যাবলড) এসব স্বাস্থ্য সহায়ক উপকরণ বিতরণ করা হয়।

বৃহস্পতিবার এসইআইডি অফিসে শিশুদের অভিভাবকের উপস্থিতিতে তাদের মাঝে কানে শোনার যন্ত্র, দাঁড়ানোর জন্য ফ্রেম, কক-আপ স্পিøন্টস ও ট্রেডমিলসহ ফিজিও থেরাপির বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করেন রবি’র চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।

এসইআইডি’র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর দিলারা সাত্তার মিতু, রবি’র পার্টনার অর্গানাইজেশন জেনেক্স ইনফোসিসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আদনান ইমাম এবং রবি ও এসইআইডি’র অন্যান্য কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এ পদক্ষেপে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে রবি’র সিসিপিও বলেন, সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ কোম্পানি হিসাবে রবি সবসময়ই নিজ উদ্যোগে সামাজিক সমস্যা নিরসনে এগিয়ে আসে। সে দিকটি মাথায় রেখেই রবি ২০১৬ সালের কর্পোরেট ডায়রি ডিজাইনে এসআইডি’র শিশুদের আঁকা কয়েকটি ছবি ব্যবহার করেছে। মূলত সমাজে ‘অটিজম’র ওপর সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উদ্যোগটি নেয়া হয়েছে। আমাদের উদ্যোগকে সার্থক করার জন্য এসইআইডি’র শিশুদের ও ম্যানেজমেন্টকে ধন্যবাদ জানাই। এ উদ্যোগে গ্রাহক ও স্টেকহোল্ডাদরদের বিপুল সাড়া আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে।

তথ্যপ্রযুক্তি-শিক্ষা, পরিবেশ ও স্বাস্থ্য- এই তিনটি স্তম্ভের ওপর ভিত্তি করে রবি কর্পোরেট দায়বদ্ধতা প্রকল্পগুলো পরিচালনা করে। এ প্রকল্পটি স্বাস্থ্য বিষয়ক স্তম্ভের আওতাভূক্ত। একই স্তম্ভের আওতায় দেশজুড়ে প্রধান রেলওয়ে স্টেশনগুলোতে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট স্থাপন করেছে রবি। এছাড়া স্বাস্থ্য বিষয়ক কার্যক্রমের আওতায় প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করে অপারেটরটি।

এসইআইডি একটি বেসরকারী স্বেচ্ছা উন্নয়ন সংস্থা যারা এমন শিশুদের অধিকার ও সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে যারা সমাজের সুবিধাবঞ্চিত এবং বুদ্ধি ও শারিরীক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি, অটিজম, ডাউন সিনড্রোম ও সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। তিনটি কেন্দ্র থেকে পরিচালিত এ সংস্থাটি বস্তি এলাকাগুলোতে বিশেষ সুবিধা প্রয়োজন এমন ৪৫০ জনের বেশি শিশুকে সহায়তা প্রদান করছে।

সিনিউজভয়েস/ডেক্স

Please Share This Post.