ল্যাপটপ মেলায় ওয়ালটনের যত অফার

গ্রীষ্মকালীন ল্যাপটপ মেলায় মূল্যছাড় ও উপহারের ছড়াছড়ি নিয়ে এসেছে ওয়ালটন। মেলা থেকে ওয়ালটন ল্যাপটপ ও ডেস্কটপ ক্রয়ে মডেলভেদে মিলবে ২০ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট। এছাড়াও, থাকছে মাউস, কি-বোর্ড, পেন-ড্রাইভ এবং মোবাইল ফোন ফ্রি।

বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হচ্ছে ‘এফোরটেক সামার ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৮’। এক্সপো মেকারের আয়োজনে তিনদিনের এই মেলায় একমাত্র দেশীয় কম্পিউটার নির্মাতা ব্র্যান্ড হিসেবে থাকছে ওয়ালটন।

ওয়ালটন কম্পিউটার পণ্য ব্যবস্থাপক আবুল হাসনাত জানান, প্রিলুড, প্যাশন ও ট্যামারিন্ড সিরিজের যেকোনো মডেলের সেলেরন অ্যাপোলো লেক, পেন্টিয়াম কোয়াড কোর, কোর আই থ্রি, কোর আই ফাইভ এবং কোর আই সেভেন প্রসেসর সমৃদ্ধ ল্যাপটপ ক্রয়ে সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড় মিলবে। এছাড়াও, থাকছে মাউস, পেনড্রাইভ এবং ফিচার ফোন ফ্রি। এই ক্যাটাগরির ল্যাপটপের সর্বনি¤œ রেগুলার মূল্য ১৯,৯৯০ টাকা। সর্বোচ্চ মূল্য ৫৪,৫৫০ টাকা।

অন্যদিকে, কেরোন্ডা ও ওয়াক্সজ্যাম্বু সিরিজের ডিজাইন, সিমুলেশন অ্যান্ড গেমিং ল্যাপটপ ক্রয়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২০ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে। ডিসকাউন্টের পাশাপাশি থাকছে মাউস, পেনড্রাইভ এবং স্মার্টফোন ফ্রি। দুই মডেলের এই ল্যাপটপের রেগুলার দাম যথাক্রমে ৬৯,৯৫০ এবং ৭৯,৯৫০ টাকা।

পেন্টিয়াম, কোর আই থ্রি এবং কোর আই ফাইভ প্রসেসর সমৃদ্ধ ওয়ালটন ডেস্কটপ কিনলে ক্রেতারা ৯ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট পাবেন। এক্ষেত্রে, ফ্রি গেমিং মাউস ও কিবোর্ডেরও সুযোগ থাকছে। ডেক্সটপগুলোর রেগুলার মূল্য ২৩,৫৫০ টাকা থেকে ৪৪,৯৯০ টাকার মধ্যে।

এছাড়াও, ওয়ালটনের দুই মডেলের মনিটর ক্রয়ে ৯ শতাংশ এবং মাউস, কিবোর্ড ও পেনড্রাইভ ক্রয়ে সর্বোচ্চ ১৪ শতাংশ ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে। ডিসকাউন্ট ও উপহারের এই সুযোগ শুধুমাত্র মেলা থেকে কেনা পণ্যে উপভোগ করা যাবে।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বাজারে রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন দাম ও কনফিগারেশনের ২১ মডেলের ওয়ালটন ল্যাপটপ, ১১ মডেলের ডেস্কটপ, ২ মডেলের মনিটর, ১৫ মডেলের পেন ড্রাইভ, ১৯ মডেলের গেমিং ও স্ট্যান্ডার্ড কিবোর্ড এবং মাউস। সাশ্রয়ী মূল্যের এসব প্রযুক্তিপণ্য ক্রেতাদের কাছে দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন ওয়ালটন ল্যাপটপ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানিও হচ্ছে।

সম্প্রতি ওয়ালটন বাজারে এনেছে মাত্র ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা দামের ল্যাপটপ। প্রিলুড সিরিজের ওই ল্যাপটপটি তৈরি করা হয়েছে শিক্ষার্থী ও তরুণদের চাহিদা ও ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায় রেখে। সব মডেলের ওয়ালটন ল্যাপটপে মাল্টি-ল্যাংগুয়েজ কিবোর্ড দেয়া আছে। যাতে স্ট্যান্ডার্ড ইংরেজির পাশাপাশি বিল্ট-ইন বাংলা ফন্ট এবং বিজয় বাংলা সফটওয়্যার থাকায় যে কেউ অনায়াসেই এই ল্যাপটপ ব্যবহার করে বাংলায় লিখতে পারবেন।

সব মডেলের ওয়ালটন ল্যাপটপে থাকছে সর্বোচ্চ ২ বছরের এবং ডেস্কটপ পিসিতে সর্বোচ্চ ৩ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.