দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় শেষ বেলায়

৪ আগস্ট (শনিবার) ২০১৮ : শেষ বিকেলে আরো জমজমাট ‘এফোরটেক সামার ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৮’। আজ মেলার তৃতীয় ও শেষদিন। দর্শনার্থীদের বিপুল উৎসাহ, সমাগম আর বেচাবিক্রির মধ্যে দিয়ে চলছে ল্যাপটপ মেলায়। সকাল থেকেই ভিড় লক্ষ্য করা গেলেও বিকেলের শুরুতেই ভিড় বেড়ে যায়। জমে উঠে বেচাবিক্রিও। ক্রেতাদের আগ্রহের ভিত্তিতে শেষদিনে মেলার সময় এক ঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে। মেলা শেষ হবে রাত নয়টায়।

Laptop fair in dhaka

এর আগে শুক্রবার ল্যাপটপ কিনে বেশ কয়েকজন ক্রেতা বাইসাইকেল পেয়েছেন। পেয়েছেন টিভি। তাই শেষদিনের মেলাতেও অনেকেই পছন্দের ল্যাপটপ কিনতে ভিড় করছেন। ক্রেতাদের আগ্রহের ভিত্তিতে শেষদিনের মেলার সময় বাড়ানো হয়েছে এক ঘণ্টা।

মেলাতে অংশ নেয়া বিভিন্ন স্টল ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা জানান, আজ খুব ভালো বেচা-বিক্রি হচ্ছে। শেষ সময়ে বিক্রির পরিমাণ আরো বাড়বে।

মেলাতে ল্যাপটপ কিনছেন সাদিয়া তাবাসুম। তিনি বলেন, শেষ সময়ে ল্যাপটপ কিনে বেশি ছাড় ও অফার পেয়েছি। গিফটও পেয়েছি অনেক। এ ছাড়া মেলাতে এতো সুন্দর পরিবেশ, দেখে প্রতিবারও মুগ্ধ হয়। কারণ আমি মেকার এক্সপোর সব মেলাতে আসি।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মেলা শুরু হয়েছে নির্ধারিত সময় সকাল ১০টায়। সকাল থেকেই মেলায় দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় ছিল স্টলগুলোতে। ছাড়, অফার ও নানা ধরনের উপহারের পসরা সাজিয়েছে ব্র্যান্ডগুলো ক্রেতাদের জন্য। শেষ বেলায় হতো আরো অনেক ছাড়, অফার ও উপহারের ঘোষণা দিবে ব্র্যান্ডগুলো।

গতকাল ছুটির দিনেও সকাল থেকেই মেলা জমে উঠে। মেলায় লেনেভোর ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ কিনে সাইকেল পায় অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী নাজমুস সাকিব মাহির। বসুন্ধরা থেকে মেলায় আসা মাহির জানান, ল্যাপটপ কিনে বাইসাইকেল পেয়ে খুব খুশি হয়েছে। ভাবতেই পারেনি ল্যাপটপ কিনে সাইকেল পাবে। এই সাইকেল চালিয়ে এখন থেকে স্কুলেও যাবে সে। বাইসাইকেল মাহির হাতে তুলে দেন লেনেভোর কর্তকর্তারা।

মেলাতে বিশ্বখ্যাত কম্পিউটার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনেভো ছাড়াও অংশ নিয়েছে আমেরিকান ব্র্যান্ড আইলাইফ। দেশীয় একমাত্র কম্পিউটার নির্মাতা ব্র্যান্ড ওয়ালটনও রয়েছে। পরিবেশক প্রতিষ্ঠান হিসেবে অংশ নিয়েছে স্টার টেক, গ্লোবাল ব্র্যান্ড ও স্মার্ট টেকনোলজিস। মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রির সঙ্গে মূল্যছাড় ও উপহার দিচ্ছে। রয়েছে স্ক্র্যাচ কার্ড, র‌্যাফেল ড্রতে উপহার জেতার সুযোগ।

মেলাতে সাধ্যের মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে  নানা ধরনের ল্যাপটপ। নতুন মডেলেরও বেশ কিছু ল্যাপটপও স্টলে এনেছে ব্র্যান্ডগুলো। এ ছাড়া পাওয়া যাচ্ছে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুষাঙ্গিক গ্যাজেট। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়কও  উন্মোচন হয়েছে।
এক্সপো মেকারের আয়োজনে এটি দেশের ২০তম ল্যাপটপ প্রদর্শনী। ল্যাপটপ ও ট্যাবলেট নিয়ে দেশের সবচেয়ে বড় এই প্রদর্শনী ও বিকিকিনির আয়োজনটি শেষ হবে আজ রাতে।

এবারের আয়োজনে ১টি টাইটেল স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ৫টি স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ১৪টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ২৭স্টলে দেশ বিদেশের শীর্ষ স্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে। মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক এফোরটেক। সহ-পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছে এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো। পার্টনার হিসেবে রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি ও টেলিকম বিষয়ক বিশেষায়িত নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম (techshohor.com) এবং এডুমেকার। এ ছাড়া মেলায় মিডিয়া বুথও রয়েছে।

প্রতিবারের মতো এবারো মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে ( facebook.com/laptopfair.bd) কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। কুইজে অংশ নিয়ে আকর্ষনীয় পুরস্কার জিতে নেবার সুযোগ রয়েছে।

মেলায় প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা। তবে স্কুলের শিক্ষার্থীরা ইউনিফর্ম পরিহিত অবস্থায়  কিংবা পরিচয়পত্র প্রদর্শন করে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবে। প্রতিবন্ধীরাও বিনামূল্যে প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে। প্রদর্শনীর সব আপডেট ও খবর মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ (facebook.com/laptopfair.bd) এবং টেকশহরডটকম (techshohor.com)-এ পাওয়া যাচ্ছে।

 

Please Share This Post.