লাশ ও রক্তের পাশেই সেলফি ব্যস্ততা

যেখানে সেখানে সেলফি তোলা নিয়ে অনেকেই সমালোচনার মুখে পড়েছেন। যতই সমালোচনা হোক না কেন, যাদের নেশা সেলফি তোলা তারা এই সব বিষয় কান দিতে নারাজ।

আশপাশে যদি মানুষের লাশও পড়ে থাকে, কিংবা মারধর, ভাঙচুর এসবও চলতে থাকে- তবু কারো কারো সেলফি-নেশা কমবার নয়।

এমনই দৃশ্য আজ রোববার দেখা গেলো রাজধানীর কুর্মিটোলা এলাকায়। বেলা ১টার দিকে সেখানে এক চালক তার বাস সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের ওপর তুলে দিলে ঘটনাস্থলেই মারা যান ২ জন।

এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন কলেজের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা। বিক্ষুদ্ধরা তখন সেখানে যে গাড়ি পেয়েছেন সেটিই ভাঙচুর করেছেন। ভাঙচুর করা গাড়িগুলো তখন দাঁড়িয়ে আছে ঘটনাস্থলে। রাস্তা ধ্বংসযজ্ঞের রূপ ধারণ করেছে। তিন কিশোর-কিশোরীর শরীরের তাজা রক্ত তখনও সড়কে বইছে।

এমতাবস্থায় এক তরুণকে দেখা গেলো সেখানকার দৃশ্য মোবাইল ক্যামেরার ফ্রেমে এনে সেলফি তুলছেন! কেউ কেউ সেখানে দাঁড়িয়েই ফেসবুক লাইভে নিজেদের চেহারা দেখাচ্ছেন!

অবশ্য এমন ঘটনা শুধু ঢাকা বা বাংলাদেশেই নয়, ভিনদেশেও এমন খবর সংবাদমাধ্যমে আসে মাঝে মাঝেই। সম্প্রতি ভারতের রাজস্থানের একটি সেলফি ভাইরাল হয়েছিল। দুর্ঘটনার পর আহতের সাহায্যে এগিয়ে না এসে সেলফি তুলতে দেখা গিয়েছিলো এক যুবককে। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ  মাধ্যেমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচিত হয়।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.