লানিং এন্ড আর্নিং প্রকল্প সেরা প্রশিক্ষণার্থী ও প্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বিতরণ

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা আজ আইসিটি টাওয়ারে বিসিসি মিলনায়তনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন লানিং এন্ড আর্নিং প্রকল্প ও সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন প্রকল্পের আওতায় সেরা প্রশিক্ষণার্থী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, আগামী ২ বছরের মধ্যে দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইসিটি ল্যাব ও মাল্টিমিডিয়া ক্লাশরুম স্থাপন করা হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে শিক্ষকগণ নিজেদেরকে ডিজিটাল শিক্ষার উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, প্রতিদিন বিদ্যমান পেশা বিলুপ্ত হচ্ছে। তাই প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বের সাথে টিকে থাকতে হলে তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞান অর্জন অপরিহার্য।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার। অন্যান্যোর মধ্যে বক্তৃতা করেন আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক একেএম খায়রুল আলম, লানিং এন্ড আর্নিং প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সৈয়দা সালমা জাফরীন এবং সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ শাহাদাৎ হোসেন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেন, আগামী ২০১৯ সালের মধ্যে ৪,৫০০ ইউনিয়নকে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের আওতায় আনা হবে। বাংলাদেশ সারা বিশ্বে উন্নয়নের বিস্ময় হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি বলেন গত দশ বছরে দেশ দ্রুত এগিয়ে গেছে।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি  
Please Share This Post.