লকডাউনের মধ্যে খাবার ও মুদিপণ্য ডেলিভারি করবে ফুডপ্যান্ডা

গ্রাহকরা এখন বাসায় বসেই পাবেন তাদের পছন্দের খাবার, মুদিপণ্যসহ জরুরি অন্যান্য পণ্য [ঢাকা, ৪ এপ্রিল, ২০২১] গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বেড়ে চলেছে কোভিড-১৯ সংক্রমণ। বৈশ্বিক এ মহামারির বিস্তার রোধে সরকার ইতিমধ্যেই নতুন পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছে। সরকারের নানা নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে দেশজুড়ে এক সপ্তাহের লকডাউন। আগামীকাল সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে এ লকডাউন।
লকডাউনের এ সময়ে ভোক্তাদের দুর্দশা লাঘবে এবং স্বল্প সময়ের মধ্যে তাদের কাছে খাবার, মুদিপণ্যসহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য পণ্য পৌঁছাতে অনলাইনে খাবার ও মুদি পণ্য ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম ফুডপান্ডা সরকারের সকল নির্দেশনা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রোটোকল মেনে গ্রাহকদের সেবা দিবে।
অর্থাৎ, লকডাউন চলাকালীন ফুডপ্যান্ডার সকল সেবা, যার মধ্যে রয়েছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি, প্যান্ডামার্ট গ্রোসারি সার্ভিস ও শপস ভোক্তাদের সুবিধার্থে চলমান থাকবে। প্রতিকূল এ সময়ে সেবাদান ছাড়াও কমিউনিটি নিরাপদ রাখতে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ফুডপ্যান্ডা। রাইডাররা বারবার হাত স্যানিটাইজ করছে এবং মাস্ক পড়বে এটা নিশ্চিত করবে ফুডপ্যান্ডা। এছাড়াও, ফুডপ্যান্ডায় গ্রাহকদের জন্য কন্ট্যাক্টলেস ডেলিভারির নেয়ার সুযোগ রয়েছে, যেখানে আগে ডিজিটাল মাধ্যমে পেমেন্ট করতে হবে।
উল্লেখ্য, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যেনো টিকে থাকতে পারে এবং গ্রাহকরা বাসায় নিরাপদে থেকে খাবার ডেলিভারি নিতে পারেন, তাই নির্দেশনা অনুযায়ী লকডাউনে রেস্টুরেন্ট খোলা থাকবে । খাবার ডেলিভারি ছাড়াও, ফুডপ্যান্ডা মুদিপণ্য, ওষুধ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্য ডেলিভারি দিবে। এক্ষেত্রে, অ্যাপের প্যান্ডামার্ট বা ‘শপস’ সেকশন থেকে অর্ডার করতে হবে।
তাই, যখনই প্রয়োজন, গ্রাহকরা তাদের পছন্দের রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার অর্ডার করতে অথবা তাদের প্রয়োজনীয় মুদিপণ্য, শিশু খাদ্য, ডায়াপার এবং অন্যান্য পণ্য অর্ডার করতে পারবেন। আর এটা করতে তাদেরকে শুধুমাত্র ফুডপ্যান্ডা অ্যাপ ওপেন করে পছন্দের পণ্য অনলাইনে অর্ডার করতে হবে।

ফুডপ্যান্ডা সম্পর্কে:ফুডপ্যান্ডা এশিয়া প্যাসিফিকের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম। সুবিধামতো ও দ্রুততম সময়ে গ্রাহকদের কাছে খাবার এবং নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যসহ অন্যান্য জিনিস পৌঁছে দিতে নিবেদিতভাবে কাজ করে যাচ্ছে ফুডপ্যান্ডা। অভিনব প্রযুক্তি ও সুদক্ষ পরিচালনার সমন্বয় এবং রিটেইল পার্টনারদের শক্তিশালী নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এ অঞ্চলের কুইক-কমার্সে (কিউ-কমার্স) নেতৃত্ব দিচ্ছে ফুডপ্যান্ডা। এর খাবার ডেলিভারি দেয়ার লক্ষাধিক অপশন ছাড়াও অন-ডিমান্ড পণ্য ডেলিভারি সুবিধা প্রদানে রয়েছে প্যান্ডামার্ট ক্লাউড স্টোর। সিঙ্গাপুর, হংকং, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, তাইওয়ান, ফিলিপাইন, বাংলাদেশ, লাওস, কম্বোডিয়া, মায়ানমার এবং জাপান- এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ১২টি বাজারের তিনশো’রও বেশি শহরে ফুডপ্যান্ডার কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। ফুড ডেলিভারি ইন্ডাস্ট্রিতে বিশ্বব্যাপী নেতৃত্ব প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ডেলিভারি হিরো’র একটি অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ফুডপ্যান্ডা।
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.foodpanda.com.bd

ডেলিভারি হিরো সম্পর্কে:ডেলিভারি হিরো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্থানীয় ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম। এশিয়া, ইউরোপ, লাতিন আমেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকার ৪৯টি দেশে এটি তার সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ২০১১ সালে ফুড ডেলিভারি সার্ভিস হিসেবে যাত্রা শুরু করে ডেলিভারি হিরো। বর্তমানে সাতশো’রও বেশি শহরে সফলতার সাথে নিজস্ব ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম পরিচালনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়া, মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য এবং গৃহস্থালির দ্রব্যাদি গ্রাহকদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে ই-কমার্সের পরবর্তী ধাপ কুইক-কমার্সে নেতৃত্ব দিচ্ছে ডেলিভারি হিরো। জার্মানির বার্লিন ভিত্তিক এই প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান কর্মী সংখ্যা ২৭ হাজারেরও বেশি। ডেলিভারি হিরো ২০১৭ সাল থেকে ফ্রাঙ্কফুর্ট স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্ত এবং ২০২০ সালে প্রতিষ্ঠানটি শীর্ষস্থানীয় সূচক ডিএএক্স (ডয়েচার অ্যাকটিয়েনিন্ডেক্স)-এর সাথে যুক্ত হয়েছে।
বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন www.deliveryhero.com

 

Please Share This Post.