রূপকল্পের ভিত্তিতেই ডাক বিভাগে এসেছে “নগদ”-মোস্তাফা জব্বার

দেশের মানুষকে সহজে মানসম্পন্ন আর্থিক সেবাদানে আজ ডিজিটাল কেওয়াইসি নিবন্ধন প্রক্রিয়া উদ্বোধন করেছে ডিজিটাল আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান নগদ। আর্থিক স্বাধীনতা প্রদানের ধারণা নিয়ে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ প্রদত্ত দেশের প্রথম ডিজিটাল আর্থিক সেবা “নগদ”-এর আবির্ভাব।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার; ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার মন্ডল এবং নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ. মিশুক। এ সময় বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ও নগদের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণও উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন,  দেশের মানুষের সুবিধার্থে বাংলাদেশ সরকার স্বপ্রণোদিতভাবে নানা ধরনের সেবা নিয়ে আসছে। এর ধারাবাহিকতা এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ রূপকল্পের ভিত্তিতেই এসেছে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের সেবা “নগদ”।

মহাপরিচালক বলেন, আর্থিক লেনদেন ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে আমাদের একশ’ বছরেরও বেশি অভিজ্ঞতা রয়েছে। দেশজুড়ে ডাক বিভাগের ৯৮৮৬টি ডাকঘর ও এর কর্মী নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ডিজিটাল আর্থিক খাতে দ্রুততা ও কার্যকরীতার সাথে আমরা যেকোনো অনিয়ম মোকাবিলায় প্রস্তুত।’

ডিজিটাল কেওয়াইসি নিবন্ধন উন্মোচন করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ক্রেতাদের জাতীয় পরিচয়পত্র ও নিবন্ধনকৃত মোবাইল ফোন নিয়ে আসতে হবে। গ্রাহকের ছবি ও পরিচয়পত্রের তথ্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহায়তায় রিয়েল টাইমে নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেজের সাথে মিলিয়ে দেখা হবে। কেওয়াইসি আবেদন পত্রের নির্দিষ্ট ঘর স্বয়ংক্রিয় স্ক্যানিং প্রক্রিয়ায় পরিচয় পত্রের তথ্য থেকে পূরণ হবে। এক্ষেত্রে, প্রত্যেক গ্রাহকের জন্য এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে ৩০ সেকেন্ডেরও কম সময়ে।

বর্তমানে নগদ অ্যাপটি শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মেই রয়েছে। কম মেগাবাইটের সহজে ব্যবহারযোগ্য এ অ্যাপটির বেটা সংস্করণে ব্যবহারকারী ছিলো ৫০ হাজারেরও বেশি।

এ নিয়ে নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ. মিশুক বলেন, ‘দেশের যেসব মানুষ আর্থিক অন্তর্ভুক্তির বাইরে রয়েছে তাদের আর্থিক স্বাধীনতা প্রদানের লক্ষ্যেই নগদ কাজ করে যাচ্ছে।

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি/২৫এফ/১৯

Please Share This Post.