রিভ অ্যান্টিভাইরাস ও ওয়ালটন পণ্য ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে

বাংলাদেশের নিজস্ব অ্যান্টিভাইরাস রিভ ও ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী এখন ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারসমূহে পাওয়া যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের অধীনে প্রাথমিকভাবে ৬৯টি সেন্টারে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে এবং ধীরে ধীরে দেশব্যাপী সকল ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার এই উদ্যোগের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

সম্প্রতি ওয়ালটনের কর্পোরেট কার্যালয়ে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে ই-কমার্স সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অর্পণ কমিউনিকেশনের আয়োজনে, রিভ অ্যান্টিভাইরাস, ওয়ালটন এবং এক শপের সহযোগিতায় এ বিষয়ে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালা পরিচালনা করেন ওয়ালটনের আইসিটি ডিরেক্টর লিয়াকত আলি, রিভ অ্যান্টিভাইরাসের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক ইবনুল করিম রূপেন এবং অর্পণ কমিউনিকেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুল হক অনু।

দেশব্যাপী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারসমূহে রিভ অ্যান্টিভাইরাস, ইন্টারনেট সিকিউরিটি, টোটাল সিকিউরিটি ও মোবাইল সিকিউরিটিসহ ওয়ালটনের ল্যাপটপ, কিবোর্ড, মাউস, পেনড্রাইভ ও মনিটর সাশ্রয়ী মূল্যে পাওয়া যাবে। আর www.arpondigital.com থেকে এসব পণ্য অর্ডার করলে গ্রাহকের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেবেন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাবৃন্দ।

রিভ অ্যান্টিভাইরাসের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক ইবনুল করিম রূপেন জানান, ‘প্রযুক্তি এখন শহর এবং গ্রাম সব জায়গায়ই ক্রম বিকশিত হচ্ছে। ফলে দৈনন্দিন জীবনে যেমন একদিকে বাড়ছে কম্পিউটার ও মোবাইল ফোনের ব্যবহার; তেমনি উঁকি দিচ্ছে সাইবার নিরাপত্তা বিঘ্ন হওয়ার আশঙ্কাও। ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার থেকে রিভ অ্যান্টিভাইরাস ও ওয়ালটনের পণ্যসমূহ পাওয়া যাওয়ার এই সুযোগে তাই দুরবর্তী অঞ্চলের মানুষ সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে। আর সরাসরি প্রিন্সিপাল কোম্পানি থেকে দিনরাত ২৪ ঘণ্টা গ্রাহক সেবা তো থাকছেই।’

প্রসঙ্গত, সরকারি-বেসরকারি তথ্য ও সেবাসমূহ জনগণের কাছাকাছি নিয়ে যেতে, প্রযুক্তি বিভেদ দূর করতে ও সকল নাগরিককে তথ্য প্রবাহের আধুনিক ব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত করতে ২০১০ সালে দেশে প্রথম ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার চালু করা হয় এবং পর্যায়ক্রমে দেশের সকল ইউনিয়ন পরিষদেই এই তথ্য ও প্রযুক্তি সেবাকেন্দ্র চালু করা হয়।

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.