রবি-টেন মিনিট স্কুল অ্যাপ উদ্বোধন করেন পলক

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্লাটফর্ম’র উদ্বোধন করলো দেশের বৃহত্তম অনলাইন স্কুল রবি-টেন মিনিট স্কুল । দেশের সব প্রান্তের শিক্ষার্থীদের কাছে মানসম্মত শিক্ষামূলক কন্টেন্ট পৌঁছে দিতে এ অ্যাপটি চালু করা হয়েছে।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় জনতা টাওয়ারের সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে প্রধান অতিথি হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি অ্যাপটির উদ্বোধন করেন। এসময় রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, হেড অব কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স শাহেদ আলম, মিডিয়া, কমিউনিকেশন অ্যান্ড সাস্টেইনেবিলিটি’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবীর এবং রবি-টেন মিনিট স্কুল’র প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আয়মান সাদিক উপস্থিত ছিলেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি বলেন, ‘শহর ও গ্রামের মধ্যে থাকা বৈষম্য দূর করে মানসম্মত শিক্ষা বিস্তারে কাজ করে যাচ্ছে রবি-টেন মিনিট স্কুল। আমার বিশ্বাস, তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে রবি টেন মিনিট স্কুল সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে তাৎপর্যপূণ ভূমিকা পালন করবে।”
রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, “ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্প বাস্তবায়নে ডিজিটাল শিক্ষা এক গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। অন্যতম এই অনুষঙ্গের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পেরে আমরা গর্বিত। অ্যাপটি চালু হওয়ার মাধ্যমে দেশের বৃহত্তম এই অনলাইন স্কুলের ব্যবহার ও সহজলভ্যতা দুটোই বাড়বে। রবি-টেন মিনিট স্কুলের এই অগ্রগতি ডিজিটাল জীবনধারার প্রসারে এক অনন্য মাত্রাও যোগ করেছে।”
জাতীয় শিক্ষাবোর্ড প্রণীত প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠ্যপুস্তকের ওপর ভিত্তি করে ১২ হাজারের বেশি ভিডিও নিয়ে সাজানো হয়েছে সমৃদ্ধ এই অ্যাপটি। এছাড়া অ্যাপ ব্যবহারকারীরা যেকোন বিষয়ের উপর নিজেদের দক্ষতা যাচাইয়ের জন্য চার হাজারের বেশি কুইজ টেস্টে অংশ নিতে পারবেন। অ্যাপটি সাথে সাথে ফলাফল এবং শিক্ষার্থীর আরো উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করবে।
অ্যাপটির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সেরা শিক্ষকদের নেয়া লাইভ ক্লাসগুলিতে অংশ নিতে পারবেন। পাশাপাশি তাদের কোন প্রশ্ন থাকলে সাথে সাথে সে উত্তরও দেবেন শিক্ষকরা।
ব্যবহারকারীগণ জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার যেকোন পাঠ্যবিষয়ের ওপর এক হাজারের বেশি ‘স্মার্টবুকস’ ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। এ শিক্ষা উপকরণ থেকে কোন পাঠ্য বিষয় সম্পর্কে বিশদ ধারণা নিতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। স্মার্টবুকগুলিতে বিভিন্ন জটিল বিষয়গুলো ব্যাখ্যাসহ সহজভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।
এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা, পেশাগত ও দক্ষতা উন্নয়ন কোর্স, ব্যক্তিগত বিবরণ লেখা, মাইক্রোসফট অফিস, অ্যাডোবিসহ আরো অনেক বিষয়ে শিক্ষণীয় কন্টেন্ট পাবেন ব্যবহারকারীরা। অ্যাপটিতে ৯শ’র বেশি শিক্ষণীয় ব্লগ রয়েছে যা থেকে শিক্ষার্থীরা পাঠ্য বিষয় ও জীবন সম্পর্কে জানার পাশাপাশি শিক্ষা, প্রযুক্তি ও অনুপ্রেরণামূলক বিষয়াবলী পড়ার সুযোগ পাবেন।

গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে।

-সিনিউজভয়েস/

Please Share This Post.