রবি গ্রাহকদের জন্য ‘মায়া আপা প্লাস’

মায়া আপার সঙ্গে হাত মিলিয়ে গ্রাহকদের জন্য ডিজিটাল ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সহায়ক ‘মায়া আপা প্লাস’ https://goo.gl/LTW2OA– চালু করেছে মোবাইল ফোন অপারেটর রবি। অনন্য এই সেবাটির মাধ্যমে রবি গ্রাহকরা ব্যক্তিগত, স্বাস্থ্যগত ও মানসিক সমস্যার নির্ভরযোগ্য পরামর্শ গ্রহণ করতে পারবেন।

৫ ফ্রেব্রুয়ারি রোববার, রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার ডেভলপমেন্ট পার্কে সেবাটির উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ‘মায়া আপা’র প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আইভি হক রাসেল এবং রবি’র চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।

দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক বা মাসিক প্যাকেজে সাবস্ক্রাইব করে এই সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন রবি গ্রাহকরা। অনন্য এই সেবাটি এসএমএস ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে গ্রহণ করা যাবে।

আমাদের সমাজে ব্যক্তিগত, স্বাস্থ্যগত অথবা মানসিক সমস্যা নিয়ে নির্ভরযোগ্য পরামর্শ পাওয়া অনেক সময় কঠিন হয়ে পড়ে। এ ধরনের পরিস্থিতি তরুণ সমাজকে অনেক সময় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থার মুখোমুখি করে ফেলে। কারণ বিশেষজ্ঞ পরামর্শ না পাওয়ায় কিংবা বন্ধু-বান্ধব ও পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে সঠিক পরামর্শ না পাওয়ায় তারা অসহায় বোধ করেন।

কখনও কখনও তারা এমন বিষন্নতায় আক্রান্ত হয়ে যান যে তারা আত্মহত্যা-প্রবণ হয়ে উঠে অথবা হার্ট অ্যাটাকের মতো মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিও দেখা দেয়। গর্ভাবস্থার শেষ সময়ে গর্ভবতী মা দৈনন্দিন স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কিত পরামর্শ থেকেও বঞ্চিত হন। এই সমস্যাগুলোর সমাধান করতে রবি ও মায়া’র যৌথ উদ্যোগে এবং রবি’র সৌজন্যে চালু হয়েছে ‘মায়া আপা প্লাস’।

‘মায়া আপা প্লাস’ সেবা সাবস্ক্রাইব করে রবি গ্রাহকরা প্রতিদিন ২৪ ঘন্টা মায়া বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে যে কোনো প্রশ্নের বিশেষজ্ঞ পরামর্শ ১০ মিনিটের মধ্যেই নিতে পারবেন। এখানে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যবহারকারীদের সর্বশেষ প্রশ্নের উত্তর আপডেট করা, ফটো এটাচমেন্ট ও ভয়েস জিজ্ঞাসাসহ বিভিন্ন আকর্ষণীয় ফিচারসহ ‘মায়া’ অ্যাপটি সাজানো হয়েছে।

‘মায়া আপা প্লাস’ সেবাটি পে-পার ইউজের ভিত্তিতে এখন এসএমএসও পাওয়া যাবে। এর ফলে রবি গ্রাহকরা এসএমএস’র মাধ্যমে বাংলা, ইংরেজি বা ইংরেজি ফন্টে বাংলা ভাষায় তাদের শারিরীক ও মানসিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা বা প্রশ্ন করতে করতে পারবেন। এছাড়া সেবাটির গ্রাহক হয়ে বিষেশজ্ঞদের পরামর্শও গ্রহণ করতে পারবেন গ্রাহকরা। এই সেবার সবচেয়ে বড় একটি সুবিধা হলো গ্রাহকরা তাদের পরিচয় গোপন রেখে সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে নারীদের উদ্যেগে ‘মায়া আপা’র মত প্রযুক্তিগত স্বাস্থ্য সেবা চালু হয়েছে যা দেশের মঙ্গলের উদ্দেশে তৈরি এবং স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছে। রবির সাথে তাদের অংশীদারিত্বের মাধ্যমে এই সেবাটি দেশে ও দেশের বাইরে আরও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে বলে আমাদের প্রত্যাশা। সরকারও মায়া আপা সেবাটি’র পাশে দাঁড়িয়েছে এবং শিগগিরই আমরা এই বিষয়ে কিছু ভাল সংবাদ পাব।’

রবি’র চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ বলেন, ‘মায়া আপার মত ডিজিটাল প্লাটফর্ম নারী ও পুরুষের শারিরীক সমস্যা এবং মানসিক হতাশা দূর করতে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ পাওয়ার অন্যতম মাধ্যম। ডিজিটাল বাংলাদেশে এটি একটি সময়োগপযোগী উদ্যোগ। আমি মায়া আপাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে গ্রাহকদের সেবা প্রদানের জন্য। ’

‘মায়া আপা’র প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও আইভি হক রাসেল বলেন, ‘এই অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে রবি ও মায়া দেশের প্রত্যেকের হাতে ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে এটি একটি যৌথ পদক্ষেপ এবং এই পথচলায় রবিকে সাথে পেয়ে আমরা আনন্দিত।’

পরিচয় গোপন রেখে এবং নিরাপদ অনলাইন ম্যাসেজিং সার্ভিসের মাধ্যমে বিশেষজ্ঞদের (চিকিৎসক, পরামর্শক ইত্যাদি) সঙ্গে ব্যবহারকারীর যোগসূত্র তৈরি করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে মায়া আপা। এখন সারা দেশে থেকে আসা দৈনিক প্রায় ৫০০ প্রশ্নের উত্তর দেয়া হয় এই সেবার মাধ্যমে। ২০১৪ সাল থেকে মায়া আপা ব্র্যাক’র সহযোগী হিসেবে কাজ করছে এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ইনোভেশন ফান্ড আওয়ার্ড পুরস্কারে ভূষিত হয়েছে।

সেবাটি ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত। মায়া আপা’র ওপর নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকায়ও প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। পাশাপাশি বৈশ্বিক আইসিটি ব্যক্তিত্ব ফেসবুক’র সিওও শেরিল বার্গ’র মতো ব্যক্তিরা বলেছেন, ‘মায়া আপার মত সেবা অন্ধকারে আলো ফোটাচ্ছে’।

বিস্তারিত জানতে গ্রাহকরা http://www.maya.com.bd সাইটটি ভিজিট করতে পারেন। https://goo.gl/LTW2OA সাইট থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন গ্রাহকরা। অন্যদিকে প্রয়োজনীয় তথ্য ও এসএমএস টিপস’র জন্য এসএমএস করতে হবে ৮০০৮ নম্বরে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.