মাইক্রোসফট-ইয়াং বাংলা ২০১৮ সামিটে বিজয়ী ৫ উদ্যোগ

চার দিনব্যাপী উদ্ভাবনী প্রকল্প উপস্থাপন শেষে পাঁচটি উদ্ভাবক-উদ্যোক্তা বিজয়ী হলেন- গরুর ডাক্তার, ফিন্যান্স উইজার্ড, ব্লেজ ওয়ারিয়ার্স, বিএসএল এবং মাইক্রো বিটস। তরুণদের উদ্ভাবনী ভাবনার বিকাশের সুযোগ করে দিতে উদ্যোক্তা তৈরি করার লক্ষ্যে গত ৩ অক্টোবর ঢাকার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে অনুষ্ঠিত হয় মাইক্রোসফট ইয়াং বাংলা সামিট ২০১৮।

গরুর ডাক্তার : তাদের দলের মূল ভাবনা গবাদি পশুর চিকিৎসক সরবরাহ নিয়ে। গবাদি পশু অসুস্থ হলে কিভাবে দ্রুত একজন খামারি পশু চিকিৎসক খুঁজে পাবেন, সেই ভাবনা থেকেই অ্যাপ তৈরিসহ বিভিন্ন ধারণা দেন দলটি।
ফিন্যান্স উইজার্ড : তারা নিজেদের মত তরুণ উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তার কথা মাথায় রেখে অ্যাপ তৈরি করতে চায় । তাদের উদ্যেশ্য হলো কোনো ধারণাই যেন অর্থের অভাবে হারিয়ে না যায়।
ব্লেজ ওয়ারিয়ার্স: নিঃসঙ্গ বৃদ্ধদের জন্য একটা বিশেষ সোশ্যাল সাইট তৈরি করতে চায় ।
বিএসএল: বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের জন্য শিক্ষামূলক অ্যাপ বানাতে কাজ করবে তারা। স্মার্টফোন ব্যবহার করে স্কুলের শিক্ষা গ্রহন করতে পারবে এই অ্যাপের সাহায্যে।
মাইক্রো বিটস: অপচনশীল দ্রব্য, যেমন পলিথিনের বদলে পচনশীল প্যাকেজিং ব্যবস্থা এবং পণ্য সরবরাহের এমন এক প্রক্রিয়া তৈরি করা, যাতে প্রকৃতি বা পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

বিজয়ী পাঁচটি দল মাইক্রোসফট ও ইয়াং বাংলার পক্ষ থেকে ব্যবসার মূলধন থেকে শুরু করে সকল প্রকার সহযোগিতা পাবে তাদের উদ্যোগগুলো বাস্তবায়ন করতে। পাশাপাশি তারা এই নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত থেকে নিজেদের উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে স্টার্ট আপ ওগমেডিক্স, সোল শেয়ার, প্রিয়শপ, সেবা এক্সওয়াইজেড ও ই-ভিলেজের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের সুযোগ পাবে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু ও মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশীর কবির, তিনি বলেন, ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা ১০০ ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর এখন মাইক্রোসফট ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর।

-সিনিউজভয়েস
Please Share This Post.