মনের বন্ধু’র আয়োজনে অভিভাবকদের ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

নানা কারণে হতাশ কিশোর-তরুণদের মা-বাবা ও অভিভাবকরা বিশেষায়িত রেসপন্সিভ প্যারন্টিংয়ের ওয়ার্কশপে অংশ নিয়েছেন। অনলাইন সাইকোলজিক্যাল সাপোর্ট সেন্টার মনের বন্ধু এই ওয়ার্কশপ আয়োজন করে।

মোহাম্মদপুরের ডিনেট অফিসে মা-বাবাকে সন্তানের মানসিক হতাশা-দুশ্চিন্তায় সাড়া দেয়ার নানা কৌশল নিয়ে এই ওয়ার্কশপে আলোচনা করা হয়। ওয়ার্কশপটি পরিচালনা করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের মনোবিদ ডা. হেলাল উদ্দিন। ওয়ার্কশপে কিশোরদের মানসিক সমস্যায় অভিভাবকদের ইতিবাচক সাড়া নিয়ে আলোচনা করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘সারা বিশ্বের প্রায় ৭০ ভাগ শিশু-তরুণ কোনো না কোনো মানসিক রোগে আক্রান্ত। এই হার দিনে দিনে বাড়ছে, বাংলাদেশে এখন শিশু-কিশোরদের মধ্যে হতাশা-নৈরাশ হওয়ার প্রবণতা গেল এক দশক ধরে সবচেয়ে বেশি। বাবা-মা যদি তার সন্তানের জন্য ইতিবাচক ভূমিকা না পালন করেন তাহলে এই প্রজন্ম আরো হতাশার দিকে চলে যাবে।’

ওয়ার্কশপে আরো আলোচনা করেন উন্নয়ন সংস্থা ডিনেটের গভর্নিং বডির সদস্য সিরাজুল ইসলাম, তরুণদের স্টার্টআপ বিষয়ক প্রতিষ্ঠান জাংশনের প্রধান পরিচলন কর্মকর্তা এস এম কামরুদ্দিন এবং লেখক ও সাংবাদিক পল্লব মোহাইমেন।

সমাজের নানা শ্রেণির ৩০ জন অভিভাবক এই ওয়ার্কশপে অংশ নেন। ওয়ার্কশপে শিক্ষার্থীদের অমনোযোগিতা, মানসিক হতাশা-বিষাদ, মাদক, জঙ্গিবাদ থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনাসহ বিভিন্ন পারিবারিক ইস্যু নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.