বিসিএস এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এর ‘২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা’, ১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় শাহবাগস্থ ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিসিএস এর সভাপতি আলী আশফাক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই বার্ষিক সাধারণ সভায় মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সহ-সভাপতি  ইউসুফ আলী শামীম, মহাসচিব ইঞ্জি. সুব্রত সরকার, যুগ্ম-মহাসচিব নাজমুল আলম ভূঁইয়া (জুয়েল), পরিচালক মো. শাহিদ-উল মুনীর, পরিচালক এ. টি. শফিক উদ্দিন আহমেদ, পরিচালক এস. এম ওয়াহিদুজ্জামান। সংগঠনের শাখা কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্যসহ তিন শতাধিক সদস্য উক্ত বার্ষিক সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। তারপর নির্ধারিত আলোচ্যসূচি অনুযায়ী সভাপতি সভার কার্য পরিচালনা করেন। আলোচ্যসূচি অনুসারে ২৫তম বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী সভায় অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করেন বিসিএস সভাপতি আলী আশফাক। কণ্ঠভোটে বিগত বছরের কার্যবিবরণী অনুমোদন করেন উপস্থিত সদস্যরা। এরপর সভাপতির সম্মতিক্রমে মহাসচিব ইঞ্জি. সুব্রত সরকার বিসিএস এর ২০১৭ সালের সকল কর্মকাণ্ডের বিবরণী উপস্থাপন করেন এবং সংগঠনের সহ-সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউসুফ আলী শামীম ২০১৬-১৭ অর্থবছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পেশ করেন ও আগামী ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করেন। সভাপতি আগামী ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের জন্য নিরীক্ষক নিয়োগ ও তাদের ভাতা নির্ধারণ প্রস্তাব পেশ করেন।

২০১৭ সালের কার্যক্রম, নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং আগামী অর্থ বছরের জন্য সমিতির বাজেট এবং নিরীক্ষক নিয়োগের উপর সভায় উপস্থিত সদস্যরা মতামত প্রদান করেন। সভায় সদস্যদের উত্থাপিত মতামত ও মন্তব্যের উপর বিস্তারিত আলোচনা সাপেক্ষে ২০১৭ সালের কার্যক্রম, নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং আগামী অর্থ বছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট ও নিরীক্ষক নিয়োগ ও ভাতা নির্ধারণ প্রস্তাবগুলো অনুমোদিত হয়।

দেশে হার্ডওয়ার শিল্প গড়ে তোলা ও এবং এ খাতে দেশকে স্বনির্ভর করে তোলার বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়। দেশের আইসিটি খাতকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিসিএস এর সকল উদ্যোগে বর্তমান সরকারের সদয় দৃষ্টিসহ এখাতের উন্নয়নে আইসিটি ডিভিশনের বিপুল পরিমাণ বাজেট বরাদ্দের জন্য বিসিএস এর মহাসচিব ইঞ্জি. সুব্রত সরকার আইসিটি ডিভিশনের মাননীয় প্রতিমন্ত্রীসহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

বিসিএস মহাসচিব ইঞ্জি. সুব্রত সরকার সমিতির ২০১৭ সালের পরিচালিত সকল কার্যক্রমের বিস্তারিত বর্ণনা দেন এবং সকল কার্যক্রমের উপর তথ্য ও ছবি প্রজেক্টরের মাধ্যমে সদস্যদের দেখানো হয়। তিনি বলেন, বিসিএস বাংলাদেশের সকল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবসায়ীদের প্রাণের সংগঠন। বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে নিরলসভাবে গৃহীত সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছে এবং সমিতির চলমান অগ্রযাত্রায় বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির উল্লেখযোগ্য সাফল্যের তথ্য উপস্থাপন করেন। সমিতির ওয়েবসাইটের আধুনিকায়ন ও ইন্টারঅ্যাক্টিভ করা, ওয়ারেন্টি পলিসি ও এমআরপি কার্যক্রমে অগ্রগতি, সকল শাখা কমিটির নিয়মমতো বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত করা, সফল অডিট সম্পন্ন করা, শাখার সঙ্গে কেন্দ্রের নিবিড় যোগাযোগ স্থাপন, কম্পিউটার ও কম্পিউটার যন্ত্রাংশের উপর মূসক ও কর হার কমানো ও কোনো কোনো ক্ষেত্রে প্রত্যাহারে সরকারের সঙ্গে সফল সমঝোতা করা, বিসিএস সেন্টার অব আইসিট এক্সিলেন্স গড়ে তোলার কর্মপরিকল্পনা, আন্তর্জাতিক সংগঠনে সমিতির সক্রিয় ভূমিকা রাখায় সফলতা ইত্যাদি বিষয় সদস্যদের অবহিত করেন । তিনি বার্ষিক সাধারণ সভায় সদস্যদের বার্ষিক সদস্য ফি অনলাইনে পরিশোধ করার ওয়েবপোর্টাল এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন এবং সরাসরি সদস্য ফি প্রদানের কার্যক্রমের সফলভাবে তা উপস্থাপন করে দেখানো হয়।

সভাপতি আলী আশফাক সদস্যদের উত্থাপিত প্রশ্নোত্তরে বলেন, আমরা দেশের সকল আইসিটি ব্যবসায়ীদের সফলভাবে ব্যবসা করার জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছি এবং সবার সহযোগিতায় এর দ্রুত আশানুরূপ ফল সকল সদস্য পাবে বলে দৃঢ় বিশ্বাস। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমিতির নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সমিতি সরকারের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে কাজ করছে এবং সারাবিশ্বে বাংলাদেশের আইসিটি ক্ষেত্রে প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন হিসেবে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান তৈরি করতে সমর্থ হয়েছে।

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.