বিপিএল এ প্রথমবারের মত প্রযুক্তিপণ্যের ব্যবহার

প্রতিবারের মত এবারও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল)  ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে । দেশের প্রায় প্রতিটি স্থানে বিপিএল উন্মাদনা ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ক্রিকেট প্রেমীদের এমন সাড়া পাওয়ায় বেশ উচ্ছসিত।

চলতি বছরের বিপিএল আসরে প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে বড় ধরনের পরিবর্তন এনেছে বিসিবি। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন বিভিন্ন গ্যাজেটের সাহায্যে সম্প্রচার হচ্ছে আন্তর্জাতিক মানের। মাঠের বাইরে এবং ভেতরে দর্শকদের অনিন্দ্য অভিজ্ঞতার সুযোগ করে দিচ্ছে বিপিএল। অত্যাধুনিক স্ট্যাম্পের ব্যবহার, স্পাইডার ক্যাম ও ড্রোনের কারণে বৈশ্বিক রুপ পেয়েছে এবারের বিপিএল আসর। সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের কারণে লাখো দর্শক স্টেডিয়ামে উপস্থিত না থেকেও প্রাণবন্ত সম্প্রচারে খেলা উপভোগ করতে পারছেন।

এছাড়া প্রথমবারের মতো এ আসরে ড্রোন ক্যামেরা ও স্পাইডার ক্যাম ব্যবহারের কারণে আরও প্রাণবন্তভাবে দেখা উপভোগ করতে পারছেন দর্শকরা। মাঠে অ্যাম্পিয়ার ক্যামেরার ব্যবহারের কারণে ভক্তরাও এর প্রশংসা করছেন। কেননা এ প্রযুক্তির সাহায্যে ক্রিজে কি ঘটছে তা দেখতে পারছেন দর্শকরা।

পাশাপাশি প্রথমবারের মতো জিং বেইলস টেকেনোলজি ব্যবহারের সুবাদে তাৎক্ষণিক স্ট্যাম্প হিটের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এর সাহায্যে স্ট্যাম্পে বল আঘাত হানার সাথেই ইনস্টল করা লাইটগুলো জ্বলে ওঠে। ফলে দর্শকরাও তাৎক্ষণিক ফল পেয়ে উল্লাসে মেতে উঠছেন।

ঢাকার ক্রিকেট ভক্ত  ইমান-উল-হক বলেন, আমার কাছে জিং বেইলস এর ধারণাটি ভালো লেগেছে। কেননা এতে দর্শকরা তাৎক্ষণিক উইকেটের ফলাফল পাচ্ছেন। এর সাহায্যে খেলোয়াড়দের সঙ্গেও এক ধরনের যোগসূত্রতা তৈরি হচ্ছে। যখনি স্ট্যাম্পে আলো জ্বলে, তখনই হাজার হাজার দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক উচ্ছাস ছড়িয়ে পড়ে।

এদিকে সম্প্রচারকারীরা টিভি অ্যাম্পিয়ারদের সুবিধার জন্য ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের সময় আল্ট্রা- মোশন ক্যামেরা ব্যবহার করছেন।

ক্রিকেট প্রেমীদের ব্যাপক সাড়া ও বিশ্বব্যাপী দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য বিপিএল অন্যতম টি-২০ লীগের আসর হিসেবে গণ্য হচ্ছে। এজন্য বিসিবি আসরকে আরও দৃষ্টিগ্রাহ্য করতে আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে সম্প্রচার করছে।

-সিনিউজভয়েস/

Please Share This Post.