বিজনেস অটোমেশনের সাপোর্টে বেজার উন্নত ওয়ানস্টপ সার্ভিস

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) ও বিজনেস অটোমেশন লিমিটেড এর মধ্যে প্রস্তুতকৃত কন্ট্রাক্ট এগ্রিমেন্ট স্বাক্ষর প্রদান অনুষ্ঠান ২০ জুন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বেজার এক্সেকিউটিভ চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী ও অ্যাডিশনাল সেক্রেটারি এম. এমদাদুল হক এবং বিজনেস অটোমেশনের সিইও ই-সার্ভার বজলুল হক বিশ্বাস। বেজার  ‘ওয়ানস্টপ সার্ভিস’ অ্যাপ্লিকেশনের প্রেজেন্টেশন দেন বিজনেস অটোমেশনের প্রকল্প ব্যবস্থাপক আফসার উদ্দিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেজার সেক্রেটারি মহম্মদ আয়ুব এবং বিজনেস অটোমেশনের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জাহিদুল হাসান।

বিজনেস অটোমেশন এবং বেজার মধ্যে ‘ওয়ানস্টপ সার্ভিস’ এর দ্বিতীয় ধাপের কন্ট্রাক্ট স্বাক্ষর করা হয়। প্রথম ধাপে বিজনেস অটোমেশন সার্ভিস মডেল এ বেজার ৬টি সেবা মডিউলে কাজ সম্পূর্ণ করেছে। এই ৬টি মডিউলে বেজার কাছ থেকে ইউনিট ইনভেস্টর প্রজেক্ট ক্লিয়ারেন্স, ইম্পোর্ট পার্মিট, এক্সপোর্ট পার্মিট, ভিসা অ্যাসিস্ট্যান্স, ভিসা রেকমেন্ডেশন ও ওয়ার্ক পার্মিট এর জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন এবং তারা তাদের সার্টিফিকেটগুলো আবার অনলাইনে গ্রহণ করতে পারবে। এই সেবার সুবাদে বেজা কর্তৃপক্ষের কাজ আরো দ্রুত এবং কার্যকর হয়। অনলাইনে আবেদন গ্রহণ এবং অ্যাপ্লিকেশন প্রসেসিং সিস্টেম দ্বারা বেজা তার কার্যক্রম আরো দ্রুত শেষ করতে পারে, তাই তারা আরো বেশি সেবা এই ‘ওয়ানস্টপ সার্ভিস’ মডেল এ নিয়ে আসেন।

দ্বিতীয় ধাপের কন্ট্রাক্টে বেজার সঙ্গে আরো ২৪টি নতুন সেবা যোগ করা হয়েছে। যাদের মধ্যে আছে ল্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন, লোকাল সেলস, লোকাল পারচেজ, এনওসি সার্টিফিকেট আরো অনেক সেবার তালিকা। বিজনেস অটোমেশন লিমিটেডের প্রত্যাশা, এই দ্বিতীয় ধাপের কন্ট্রাক্টটি দ্রুত সম্পূর্ণ করা যাতে বেজা এবং ইউনিট ইনভেস্টররা পর্যাপ্ত সেবা প্রদান এবং গ্রহণ করতে পারে।

বেজা এবং বিজনেস অটোমেশন আশাবাদী যে এই ‘ওয়ানস্টপ সার্ভিস’ দ্বারা বাংলাদেশের ১০০টি ইকোনমিক জোনকে কার্যকর সার্ভিস প্রদান করা সম্ভব। বেজা ‘ওয়ানস্টপ সার্ভিস’ এর মাধ্যমে ইউনিট ইনভেস্টরদের দ্রুততম নির্ঝঞ্ঝাট সেবা প্রদানে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.