বাংলাদেশে ৫০টি বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড আনবে ফ্র্যান গ্লোবাল

সিঙ্গাপুরভিত্তিক ফ্রাঞ্চাইজি সলিউশনস কোম্পানি ফ্র্যান গ্লোবাল দেশি এবং বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে ২৪ ফেব্রুয়ারি শনিবার।  এদিন হোটেল ওয়েস্টিনে হয়ে গেল বাংলাদেশের প্রথম ‘আন্তর্জাতিক ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং রিটেইল এক্সপো ২০১৮’।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই এর সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। এছাড়াও অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মিস সেলিমা আহমেদ, সভাপতি, বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিস; মির্জা নুরুল গনি শোভন, সভাপতি, এনএএসসিআইবি এবং পরিচালক, এসএমই ফাউন্ডেশন; রাশেদ মায়মুনুল ইসলাম, ডিএমডি, মুন্নু হোম এবং গৌরব মারইয়া, চেয়ারম্যান, ফ্র্যান গ্লোবাল।

১০০ এর বেশি আন্তর্জাতিক এবং স্থানীয় ব্রান্ড নিয়ে এটিই দেশের প্রথম আন্তর্জাতিক ফ্র্যাঞ্চাইজ এবং রিটেইল এক্সপো। এর মূল আয়োজক হিসেবে ফ্র্যান গ্লোবাল বিভিন্ন দেশে ব্যবসা শুরু এবং সম্প্রসারণের জন্য বৈচিত্র্যময় বিভিন্ন বৈশ্বিক কোম্পানিগুলির সঙ্গে অংশীদারিত্ব করা জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশে তাদের ৬টি আন্তর্জাতিক অফিস নিয়ে ফ্র্যান গ্লোবাল কোম্পানিগুলোর পক্ষে লাভজনকভাবে অংশীদার হিসেবে কাজ করে। আয়োজনের মূল স্পন্সর হিসেবে ছিল মুন্নু হোম।

দিনব্যাপী এই এক্সপো তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইতালি, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড এবং ভারত থেকে বিভিন্ন ব্র্যান্ড অংশগ্রহণ করে যাদের মধ্যে উল্লেযোগ্য ব্র্যান্ড ছিল এফঅ্যান্ডবি, রিটেইল, ই-কমার্স এবং শিক্ষা খাতের থেকে। স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের দ্বারা নলেজ শেয়ারিং সেশনগুলো তাদের ফ্র্যাঞ্চাইজির সুযোগগুলো প্রদর্শন করে। অনেক ভিআইপি, চেম্বার নেতারা, ব্যবসা মালিকরা এবং কর্পোরেট নেতারা অতিথি হিসেবে ছিলেন এইসব সেশনগুলোতে।

ফ্র্যান গ্লোবালের চেয়ারম্যান এবং এশিয়ার প্রথম সারির ফ্রাঞ্চাইজি বিশেষজ্ঞ গৌরব মারইয়া একটি বিশেষ মাস্টার ক্লাস পরিচালনা করেন, যেখানে তিনি ফ্রাঞ্চাইজিং এবং বৈশ্বিক ব্র্যান্ডগুলোর সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ব্যবসা সম্প্রসারণের সর্বোত্তম উপায় সম্পর্কে আলোচনা করেন।

যেসব বৈশ্বিক ব্র্যান্ড বাংলাদেশের বাজারে প্রবেশ করতে চায় তাদের জন্য সব সহায়তা ও সেবা প্রদান করছে ফ্র্যান গ্লোবাল। পাশাপাশি যেসব বাংলাদেশি ব্র্যান্ড দেশে এবং বিদেশে নিজেদের ব্যবসা ছড়িয়ে দিতে চায়, তাদের জন্যও কাজ করছে তারা। এছাড়াও স্থানীয় বাংলাদেশি ব্র্যান্ডগুলোকে ফ্র্যাঞ্চাইজি ডেভেলপমেন্ট কনসালটেশন প্রদান করে ফ্র্যান গ্লোবাল।

ফ্র্যান গ্লোবালের চেয়ারম্যান গৌরব মারইয়া বলেন, পিডব্লিউসি অনুযায়ী, ‘২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের দ্রুততম দ্রুতগতিশীল অর্থনীতির মধ্যে দাড়াবে। বাংলাদেশে হাজার হাজার ব্যবসা- বাণিজ্য হচ্ছে এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর সর্বাধিক ঘনত্বের দেশ হিসাবে আবির্ভূত হচ্ছে। যদিও খুব কম সংখ্যক বাংলাদেশি স্থানীয় ব্রান্ড রয়েছে যারা তাদের ব্যবসা বাড়িয়ে বিশ্বব্যাপী ফ্র্যাঞ্চাইজি হতে চায়। সামনে সংখ্যাটা আরো বাড়বে বলে আমাদের বিশ্বাস।

আমরা বিশ্বাস করি এই বাজারে প্রবেশের জন্য ফ্র্যান গ্লোবালের জন্য উপযুক্ত সময় এবং আমরা খুব এখানে খুব ভালো কিছু কাজ করতে মুখিয়ে আছি।

অন্যদিকে বাংলাদেশে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশি স্থানীয় ব্র্যান্ড আছে যারা তাদের ব্যবসা নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান এবং বিশ্বব্যাপী ফ্রাঞ্চাইজি ব্যবসায় পা রাখতে চান। আমরা আগামী ২ বছরে বাংলাদেশে ৫০টিরও বেশি ব্র্যান্ডের ফ্রাঞ্চাইজি নিয়ে আসতে চাই এবং সঙ্গে ৩৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ সম্ভব চাই। যা বাংলাদেশ বাজারে ২৫০০ নতুন চাকরি তৈরি করবে বলে আশা করছি।’

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.