লামুদিকে অধিগ্রহণের চুক্তিতে বিপ্রপার্টি

প্রপার্টি পোর্টাল ‘লামুদি ডটকম ডটবিডি’ অধিগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছে দেশের একমাত্র রিয়েল এস্টেট মার্কেটপ্লেস এবং এ বিষয় সম্পর্কিত যাবতীয় সার্ভিস প্রদানকারী কোম্পানি বিপ্রপার্টি ডটকম। সম্প্রতি  রাজধানীর এক হোটেলে এ বিষয়ে ঘোষণা দেন বিপ্রপার্টি ডটকম-এর সিইও মার্ক নসওয়ার্দি।

বিপ্রপার্টির মাধ্যমে দেশের রিয়েল এস্টেট সার্ভিসগুলো একত্রীকরণ এরই এক প্রতিচ্ছবি এই চুক্তিটি। এর মাধ্যমে বাংলাদেশে বিপ্রপার্টি ডটকম-এর উদ্ভাবনীয় এবং শীর্ষস্থানীয় রিয়েল এস্টেট সার্ভিসগুলো আরও শক্তিশালী হলো। এখন থেকে লামুদি ডটকম ডটবিডি-এর গ্রাহক এবং রিয়েল এস্টেট ডেভেলপাররা বিপ্রপার্টি ডটকম-এর সব ধরনের সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন।

রিয়েল এস্টেট খাতে গত কয়েক বছরে দ্রুততার সাথে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পৌঁছে গেছে বিপ্রপার্টি ডটকম। এই খাতে গ্রাহকরা যেন প্রপার্টি সম্পর্কিত যেকোনো প্রয়োজনে নিজের পছন্দমতো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন সেটাই বিপ্রপার্টি ডটকম-এর মূল লক্ষ্য। আর বাংলাদেশে লামুদি অধিগ্রহণের মাধ্যমে তারা তাদের এই লক্ষ্যে আরও একধাপ এগিয়ে গেল। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থাকা বিপ্রপার্টির সেলস অফিসগুলোতে গ্রাহকরা কোনো প্রপার্টি সম্বন্ধে সঠিক তথ্য পেয়ে থাকেন। এছাড়া এই অফিসগুলোতে বিপ্রপার্টির প্রতিনিধিরা গ্রাহকদের সাথে সরাসরি কথা বলেন এবং তাদের প্রপার্টি সম্পর্কিত সব সমস্যা নিরসন করার চেষ্টা করেন। ফলে ক্রেতা-বিক্রেতা, বাড়িওয়ালা-ভাড়াটিয়া সবাই প্রপার্টির বিষয়ে তাদের নিজের পছন্দমতো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ভাড়া দেয়া ও বিক্রি করার জন্য বর্তমানে ২৫,০০০ এরও বেশি প্রপার্টির তথ্য দেয়া আছে বিপ্রপার্টি ডটকম-এর ওয়েবসাইটে। ফলে গ্রাহকরা যেমন সহজেই তাদের পছন্দমতো প্রপার্টি বেছে নেয়ার সুবিধা পাচ্ছেন তেমনি বাড়িওয়ালারাও সহজেই তাদের বাড়ি বিক্রি বা ভাড়া দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।

বাংলাদেশের রিয়েল এস্টেট খাতে বিশ্বখ্যাত মানের সার্ভিস প্রদানের লক্ষ্যে বিপ্রপার্টি ডটকম কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি তারা ভার্চুয়াল ট্যুর নামে একটি ফিচার এনেছেন, যার মাধ্যমে গ্রাহকরা তার পছন্দের প্রপার্টিটি ঘরে বসেই দেখতে পারবেন এবং এক্ষেত্রে কোনো ধরনের অলংকরণও থাকবে না।

বিপ্রপার্টি ডটকম-এর সিইও মার্ক নসওয়ার্দি বলেন, “বাংলাদেশের রিয়েল এস্টেট খাতে এই চুক্তিটি এক মাইলফলক। রিয়েল এস্টেট বিষয়ে বিপ্রপার্টির পরিপূর্ণ সার্ভিসগুলো গ্রাহকদের সঠিক ধারণা ও পরামর্শ দেয়ার মাধ্যমে মার্কেট সম্বন্ধে তাদেরকে সচেতন রাখে। এছাড়াও এই কাজগুলো করা হয় সম্পূর্ণ স্বচ্ছতার সাথে যেন গ্রাহকদের প্রপার্টি কেনাবেচার ক্ষেত্রে কোনো ধরনের সমস্যায় পড়তে না হয়। সবাই যেন এই ধরনের সার্ভিস পায় সেটা নিশ্চিত করার মাধ্যমে রিয়েল এস্টেট খাতে গ্রাহকদের আস্থা আরও বৃদ্ধি করা সম্ভব, যা এই খাতের উন্নতির পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

সিনিউজভয়েস/

Please Share This Post.