চাহিদার ভিত্তিতে বাংলাদেশে হুয়াওয়ের স্মার্টফোন দ্বিতীয় অবস্থানে


স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির পাশাপাশি চাহিদার ভিত্তিতে বাংলাদেশে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন ও প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। বাংলাদেশে গ্রাহকদের চাহিদা ও সন্তুষ্টিকে মাথায় রেখে ডিভাইসে অভিনব প্রযুক্তির সন্নিবেশ ঘটিয়ে আজকের এই অবস্থানে এসেছে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১৮ সালের মার্চের জিএফকে জরিপের তথ্য অনুযায়ী, গত জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত আর্থিক মূল্যের বিচারে হুয়াওয়ের দখলে আছে ১৯.১ শতাংশ। এছাড়া বিক্রির সংখ্যা বিচারে হুয়াওয়ে দখল করে আছে ১৫ শতাংশ। চ্যানেল বিস্তৃতি, নতুন ডিভাইস উন্মোচন এবং আকর্ষণীয় অফারের কারণে বাংলাদেশে এ অভাবনীয় সাফল্য আনতে সক্ষম হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকটি স্মার্টফোন মডেল যেমন- ওয়াইনাইন ২০১৮, ওয়াই সিক্স প্রাইম ২০১৮, ওয়াইসেভেন প্রো ২০১৮ ও হুয়াওয়ে নোভা থ্রিই উন্মোচন করেছে হুয়াওয়ে। উক্ত হ্যান্ডসেটগুলোর অভাবনীয় সাফল্য হুয়াওয়েকে বাংলাদেশের বাজারে কয়েক ধাপ সামনের দিকে নিয়ে গেছে। জিএফকের তথ্য অনুযায়ী, মধ্যম পর্যায়ের ডিভাইসগুলো দ্রুতগতিতে বাজার দখলের ক্ষেত্রে হুয়াওয়ের জন্য সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপ (বাংলাদেশ)-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর অ্যারন বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের সাফল্যের পেছনে ক্রেতাদের অবদান সবচেয়ে বেশি বলে আমরা বিশ্বাস করি। বাজেটের মধ্যে আমরা ক্রেতাদের সেরা পণ্যটি দেয়ার চেষ্টা করি। গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে হুয়াওয়ে ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে। ডিভাইসে নতুনত্ব নিয়ে আসার ব্যাপারে আমাদের প্রতিশ্রুতির পাশাপাশি প্রিমিয়াম ব্র্যান্ডের ক্ষেত্রে দৃঢ়-প্রতিজ্ঞ মনোভাবই এর প্রধান কারণ। বাংলাদেশের স্মার্টফোনের বাজার আমাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং ২০১৮ সালে অভিনব ও উন্নতমানের ডিভাইস বাজারে নিয়ে আসার মাধ্যমে গ্রাহকের চাহিদা মেটানোই আমাদের লক্ষ্য থাকবে।’

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক