বাংলাদেশে আইবিএম’র ক্যানসার সেবা চালু

রিট সল্যুশনস লিমিটেডের সহযোগিতায় গত ১২ জুন, ২০১৭ বাংলাদেশের হাসপাতালগুলোতে ‘ওয়াটসন ফর অনকোলজি’ সেবা চালুর ঘোষণা দিয়েছে আইবিএম।

এ চুক্তির আওতায় হাসপাতালগুলোর সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে দেশজুড়ে চিকিৎসকদের কাছে নির্দিষ্ট ক্যানসার রোগীর জন্য কম্পিউটারভিত্তিক আলাদা আলাদা তথ্য-প্রমাণ প্রদান করবে প্রতিষ্ঠানটি। এই প্রথম বাংলাদেশে সেবা প্রদানের জন্য কোনো চুক্তি সই করল আইবিএম ওয়াটসন।

‘ওয়াটসন ফর অনকোলজি’ চিকিৎসা বিজ্ঞান সম্পর্কিত সাময়িকীর মান নির্ণয় ও র‌্যাংকিং, নির্দিষ্ট ক্যানসার রোগীর চিকিৎসায় কোন কোন পদ্ধতি গ্রহণ করা যেতে পারে তার প্রমাণসহ পরামর্শ এবং যুক্তরাষ্ট্রের মেমোরিয়াল স্লোয়ান কেটারিং ক্যানসার সেন্টার’র ক্যানসার বিশেষজ্ঞদের মতামত প্রদানের মাধ্যমে চিকিৎসকদের সহায়তা করবে।

ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি’র তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশে প্রায় ১৫ লাখ ক্যানসার রোগী রয়েছেন এবং প্রতি বছর ২ লাখের বেশি ক্যানসার-আক্রান্ত রোগী শণাক্ত করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য খাতের এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দেশে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ক্যানসার বিশেষজ্ঞের অভাব রয়েছে। দেশে মাত্র ১৫০ জন দক্ষ ক্যানসার বিশেষজ্ঞ এবং ১৬ জন শিশু ক্যানসার বিশেষজ্ঞ রয়েছেন। অর্থাৎ, প্রতি ১০ হাজার ক্যানসার রোগীর জন্য ক্যানসার বিশেষজ্ঞের সংখ্যা মাত্র ১ জন।

প্রাণঘাতী এ রোগের চিকিৎসায় ‘ওয়াটসন ফর অনকোলজি’ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে মনে করছে আইবিএম। রিট সল্যুশনস ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হসপিটাল ও আহসানিয়া মিশন ক্যানসার হাসপাতালের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে এ সেবা প্রদান করছে। দেশের চিকিৎসকদের ‘ওয়াটসন ফর অনকোলজি’ সেবা গ্রহণের সুযোগ করে দিয়ে দেশে ক্যানসার চিকিৎসায় এক তাৎপর্যপূর্ণ পরিবর্তন আনবে রিট সল্যুশন।

রিট সল্যুশনস’র সিইও রিদওয়ান মুস্তাফিজ বলেন, ‘দেশের মানষের জন্য মানসম্মত ক্যানসার চিকিৎসা প্রদানের বিকল্প নেই। আইবিএম’র সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে আমাদের লক্ষ্য প্রত্যেক ক্যানসার রোগীর জন্য উপযোগী আলাদা আলাদা চিকিৎসা প্রদানে চিকিৎসকদের সহায়তা করা। বাংলাদেশের পাশাপাশি আমরা নেপাল, ভূটান ও পূর্ব ভারতের মানুষদেরও এ সেবার আওতায় আনতে চাই। বাংলাদেশ ও বিশ্বজুড়ে চিকিৎসকরা যেভাবে ক্যানসারের চিকিৎসা করেন তাতে এক আমূল পরিবর্তন আনতে পারে ওয়াটসন ফর অনকোলজি। ওয়াটসন ফর অনকোলজির মাধ্যমে ক্যানসার বিশেষজ্ঞরা কোনো নির্দিষ্ট রোগীর বর্তমান স্বাস্থ্যগত অবস্থা, সাম্প্রতিক গবেষণা, সাময়িকী ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য তথ্যের ওপর ভিত্তি করে কোন রোগীর জন্য কোন চিকিৎসা পদ্ধতিটি উপযোগী তা জেনে সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নিতে পারেন।’

ইতোমধ্যে ‘ওয়াটসন অনকোলজি’তে ২শ’র বেশি চিকিৎসাবিজ্ঞান বিষয়ক পাঠ্য বই এবং ৩শ’র বেশি সাময়িকীসহ প্রায় ১ কোটি ৫০ লাখ পৃষ্ঠার চিকিৎসা বিষয়ক কন্টেন্ট রয়েছে।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.