বাংলাদেশের নামকরা ১০ বিশ্ববিদ্যালয়

মর্যাদাপূর্ণ বেশকিছু ইতিহাস ধারণ করে আছে বাংলাদেশ। একই সঙ্গে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সেই ইতিহাসকে আরো রাঙিয়ে তুলেছে দেশের স্বাধীনতার আগে থেকেই। এখানে দেশের দশটি নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিতি তুলে ধরা হলো।

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)
বুয়েট বাংলাদেশের অন্যতম সেরা একটি শিক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীরা এখানে প্রকৌশল এবং স্থাপত্য বিষয়ে পড়তে আসে। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭১ সালে। তখন এটির নাম ছিল ঢাকা সার্ভে স্কুল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
দেশের পুরাতন এবং বর্তমান সময়ের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। দেশে ব্রিটিশ শাসনের সময়ে ১৯২১ সালে বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা পায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এখানকার রাজনৈতিক আন্দোলন সংগ্রামের অপর একটি নামও বলা যায়। এখান থেকেই বাংলা ও পাকিস্তান বিভক্ত করার দাবী উঠেছিল। এটি ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এবং এখানকার প্রথম কোনো সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়
২০০১ সালে বেসরকারি খাতে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন স্যার ফজলে হাসান আবেদ। এখন এর আচার্য হিসেবে রয়েছে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। যদিও অনেকটাই নতুন, তবে দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে মানসম্মত শিক্ষা ও উন্নত সিলেবাস প্রণয়ন করে একটি মানসম্মত শিক্ষা পৌছে দিচ্ছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
১৯৬৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়। এখানে বহুমুখী বেশকিছু বিষয়ে পড়ানো হয়। এটি দেশের সবচেয়ে বেশি আওতনের ক্যাম্পাস।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
দেশের দ্বিতীয় পুরাতন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে এর যাত্র্রা শুরু হয় ১৯৫৩ সালে পাকিস্তান শাসনামলে। এটি রাজশাহী বিভাগের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতোই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে গৌরবময় রাজনৈতিক আন্দোলনের ইতিহাস। এটিও পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে ভূমিকা রেখেছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
দেশে একমাত্র সম্পূর্ণ আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। দেশের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অন্যতম। ১৯৭০ সালে ঢাকার অদূরে সাভারে প্রতিষ্ঠা করা হয় এটি।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
১৯৬১ সালে দেশের প্রথম কৃষি গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ময়মনসিংহে অবস্থিত। কৃষি গবেষণায় এশিয়ার স্বনামধন্য একটি প্রতিষ্ঠান এটি।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৯৮৬ সালে সিলেটে অলাভজনক হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করে সরকার। নতুন নতুন গবেষণা ও প্রযুক্তির উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে বিশ্ববিদ্যালটি।

ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ
ঢাকায় বেসরকারি খাতে প্রথম দিককার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। এটি ১৯৯৩ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়।

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকৌশল নির্ভর বিশ্ববিদ্যালয় খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ১৯৬৭ সালে এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এরপর ২০০৩ সালে এটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে।

দেশের তথ্যবহুল সেরা এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকা দেখে যদি আপনি সেগুলোতে ভ্রমণে আগ্রহী হোন এবং আসলেই যদি জানতে চান এই প্রতিষ্ঠানগুলো অতীতে কত ধরনের ভূমিকা রেখেছে বিভিন্ন আন্দোলনে এবং এখন কি রাখছে তাহলে আপনার সহায়ক হতে পারে হোটেল বুকিংয়ের ওয়েবসাইট জোভাগো!

অনলাইন হোটেল বুকিংয়ে বাংলাদেশের শীর্ষ অনলাইন প্ল্যাটফর্ম।এটি রকেট ইন্টারনেট এআইজির একটি উদ্যোগ। বিশ্বে দুই লাখ ২৫ হাজারের বেশি হোটেলের বুকিং সুবিধা রয়েছে জোভাগোতে। সহজ ভ্রমণ সুবিধা নিশ্চিত করতে সহজতম উপায়ে অনলাইন বুকিং ও মানানসই থাকার সুবিধা নিশ্চিত করতে কাজ করছে জোভাগো। বিস্তারিত জানতে যেতে পারেন www.jovago.net লিংকে।

বি.দ্র. বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিং করা হয়েছে ওয়ার্ল্ড ওয়েব ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিং ওয়েবসাইট থেকে। এখানে কর্তৃপক্ষের কোনো অভিপ্রায় নেই।

লেখক : ইসতিয়াক হোসেন, হেড অব পাবলিক রিলেশন, জোভাগো বাংলাদেশ।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.