বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে প্লট পেলো সাত দেশি প্রতিষ্ঠান

 

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটির ইন্ডাস্ট্রিয়াল জোনে আরো ০৭টি (সাত) কোম্পানিকে প্লট বরাদ্দ প্রদান করেছে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। আজ সোমবার বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে এই চুক্তি সম্পন্ন হলো। এর মাধ্যমে আগামী ৪০ (চল্লিশ) বছরের জন্য বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি-তে ডাটা সফট, আমরা হোল্ডিংস, ডেভ নেট লিমিটেড, স্পেকট্রাম ইঞ্জিনিয়ারিং কনসোর্টিয়াম লিমিটেড, মিডিয়া সফট ডাটা সিস্টেম লিমিটেড, ইউ ওয়াই সিস্টেম লিমিটেড নামীয় প্রতিষ্ঠানসমূহ বিনিয়োগের সুযোগ পেলো। এর আগে এসবি টেল এন্টারপ্রাইজ গত ২৮ নভেম্বর, ২০১৮ তারিখে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়।

বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে ২.৭৫ একর জায়গা বরাদ্দ পেয়েছে ডাটা সফট। কোম্পানিটি এখানে আইটি/আইটিইএস, ডিভাইস মেনুফ্যাকচারিং ও এসেম্বল করবে। এ লক্ষ্যে কোম্পানিটি ৮০.৭৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে সেইসাথে ২৫০ জনের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করবে।

আমরা হোল্ডিংস এর অনুকূলে ৩.৫০ একর জমি বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে তারা মোবাইল ফ্যাক্টরি স্থাপন করবে। তারা আগামী তিন বছরে ২৩১ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এখানে প্রায় ৫০০ জনের কর্মসংস্থান হবে।

ডেভ নেট লিমিটেড-কে দেওয়া হচ্ছে ২.০০ একর জমি। এখানে তারা আইটি সার্ভিস, আইওটি প্রোডাক্ট, ডকুমেন্ট স্ক্যানিং, রেকর্ড ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কাজ করবে। কোম্পানিটি সেখানে ২০.৭৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে, এতে করে প্রায় ৪০০ জনের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

স্পেকট্রাম ইঞ্জিনিয়ারিং কনসোর্টিয়াম লিমিটেড পাচ্ছে ২.০০ একর জমি। বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটিতে তারা ডাটা সেন্টার ও আইটি প্রোডাক্ট উৎপাদন করবে। কোম্পানিটি সেখানে বিনিয়োগ করছে ৭৫ কোটি টাকা।

মিডিয়া সফট ডাটা সিস্টেম লিমিটেডকে দেওয়া হচ্ছে ১.০০ একর জমি। হার্ডওয়্যার পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যে এই কোম্পানিটি বিনিয়োগ করবে ১১.৩৮ কোটি টাকা, এখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে প্রায় ৬০০ জনের।

ইউ ওয়াই সিস্টেম লিমিটেড এর অনুকূলে যাচ্ছে ১.০০ একর জমি। কোম্পানিটি সেখানে প্রিন্টিড সার্কিট বোর্ড উৎপাদন এবং স্মার্ট হোম ও ফ্লিট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম নিয়ে কাজ করবে। প্রায় ৫০০ জনের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে কোম্পানিটি এখানে বিনিয়োগ করছে ১৯ কোটি টাকা।

এছাড়া এসবি টেল এন্টারপ্রাইজ গত ২৮ নভেম্বর, ২০১৮ তারিখে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়। তারা সেখানে মোবাইল ফোন সংযোজন ও উৎপাদন করবে। এই কোম্পানিটি বাংলাদেশে সিম্ফোনি মোবাইল ফোন সংযোজন ও বাজারজাতকরণ করে। এদেরকে বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে ৮.১৬ একর জমি। কোম্পানিটি সেখানে আগামী তিন বছরের মধ্যে প্রায় ১২০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে এবং প্রায় ৩০০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে।

এই চুক্তির মাধ্যমে যে ৭টি কোম্পানি এখানে ২০.৪১ একর জমি বরাদ্দ পেলো, তারা হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার, আইওটি, বিপিও, ট্রেনিং সেন্টার, ডাটা-সেন্টার, মোবাইল ফোন সংযোজন ও উৎপাদন, R&D প্রভৃতি উচ্চ প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে যা এই হাই-টেক পার্কে প্রায় ৫২৫০ লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে। কোম্পানিগুলো এখানে প্রায় ৫৫৮ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। বঙ্গবন্ধু হাই-টেক সিটি দেশের প্রথম হাই-টেক পার্ক।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম এনডিসি,  কোম্পানিসমূহের প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠানে হোসনে আরা বেগম বলেন, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের আওতায় নির্মিত/নির্মিতব্য হাই-টেক পার্ক সমূহে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। বিভিন্ন হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য লন্ডনে সেমিনার, রোডশো-সহ বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

-সিনিউজভয়েস

Please Share This Post.