ফ্রিজ কিনে গাড়ি পেলেন গৃহবধূ

এবার ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেলেন চট্টগ্রামের গৃহবধূ সীমা শীল। এর আগে চলতি মাসের ৪ তারিখে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেয়েছেন ঢাকার পুলিশ কনস্টেবল আরাধন চন্দ্র সাহা।

চলছে ‘ওয়ালটন ঈদ মেগা ডিজিটাল ক্যাম্পেইন’। ঈদের খুশি জমবে ভারী, নতুন গাড়ির ছড়াছড়ি- এই স্লোগানে চলতি মাসের ১ তারিখ থেকে দেশব্যাপী শুরু হয়েছে এই মেগা ক্যাম্পেইন। চলবে কোরবানি ঈদ পর্যন্ত।

এর আওতায় চট্টগ্রামের গৃহবধূ সীমা শীল গত রবিবার চট্টগ্রামের কালুরঘাটে ওয়ালটনের এক্সক্লুসিভ শোরুম লাবিব মার্কেটিং থেকে ৩০ হাজার টাকায় ১৫ সিএফটি’র একটি ফ্রিজ কিনেন। এরপর তার মোবাইল ফোন থেকে এসএমএস পাঠিয়ে ফ্রিজটি রেজিস্ট্রেশন করেন তিনি। কিছুক্ষণ পরেই ওয়ালটনের কাছ থেকে নতুন গাড়ি পাওয়ার একটি ফিরতি এসএমএস পান তিনি। অপ্রত্যাশিত এই প্রাপ্তিতে সীমা শীলের পরিবারে এখন চাঁদের হাট।

আজ মঙ্গলবার সীমা শীলের কাছে নতুন গাড়িটি হস্তান্তর করা হয়। তার হাতে গাড়ির চাবি তুলে দেন ওয়ালটনের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. হুমায়ূন কবির এবং ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মো. রায়হান।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি ডিরেক্টর মো. শওকত আলী সৈকত, সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো. মিরাজুল হক, চট্টগ্রাম জোনের এরিয়া ম্যানেজার মো. সাখাওয়াত হোসাইন, ডেপুটি ডিরেক্টর রাকিবুল হোসাইন এবং ওয়ালটনের এক্সক্লুসিভ শোরুম লাবিব মার্কেটিং এর স্বত্তাধিকারী মো. শাখাওয়াত হোসেন।

সূত্রমতে, মেগা ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় ওয়ালটন টিভি, ফ্রিজ, এসি ও ইলেকট্রিক ফ্যান কিনে রেজিস্ট্রেশন করতেই ক্রেতারা পাচ্ছেন নতুন গাড়ি, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ অসংখ্য পণ্য। পাচ্ছেন নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। ক্রেতারা এসব সুবিধা পাবেন ঈদুল আযহা বা কোরবানি ঈদ পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, এই ক্যাম্পেইনের আওতায় চলতি মাসে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের সদস্য আরাধন চন্দ্র সাহা। তিনি ঢাকার মিরপুর ন্যাশনাল বাংলা হাইস্কুল মার্কেটে ওয়ালটনের এক্সক্লুসিভ পরিবেশক মেসার্স ইন্টারএকটিভ ইলেকট্রনিক্স থেকে মাত্র ১৮ হাজার ২০০ টাকা দিয়ে ৮ সিএফটি’র ফ্রিজ কিনে রেজিস্ট্রেশন করতেই পুরস্কারটি পেয়ে যান। আরাধনের পর এবার ফ্রিজ কিনে নতুন গাড়ি পেলেন বন্দর নগরী’র সীমা শীল।

উপহার পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় সীমা শীল জানান, স্বামী শিবু শীল ৮ বছর ধরে কাজ করছেন ওমানে। তিন মেয়েকে নিয়ে থাকছেন শ্বশুরবাড়ি কালুরঘাটের মোহরায় থাকেন তিনি। পরিবারে কোনো ছেলে নাই। এ নিয়ে প্রায়ই বিভিন্ন নেতিবাচক কথা বলে অনেকে। আমি মনে করি মেয়েদের ভাগ্যেই আজ এতবড় উপহার পেলাম। প্রতিবেশিরাও বলছে মেয়েদের ভাগ্যে ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে গাড়ি পেয়েছি। আমরা সবাই মহাখুশি। ওমানে থাকা আমার স্বামী এবং শ্বশুর-শাশুড়িও অনেক আনন্দিত।

তার মতে, ওয়ালটন ফ্রিজের দাম সবার সাধ্যের মধ্যে। অনেক ভালো সার্ভিস দেয়। যৌথ পরিবারে অনেকদিন ধরে ওয়ালটন ফ্রিজ ব্যবহার করেছেন। ওই ফ্রিজে ভালো সার্ভিস পাওয়ায় আবারো ওয়ালটনেরই ফ্রিজ কিনেছেন বলে জানান সীমা।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.