‘ফুটবল ম্যানেজার ২০১৯’ পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় গেমগুলোর একটি

ফুটবল ম্যানেজার ২০১৯ গেমের ভুবনে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় গেমটির একজন সফল ব্যবস্থাপক হতে গেলে আপনাকে অনেক ব্যাপারেই দক্ষ হতে হবে। আপনার টিমের মনোবলকে সুদৃঢ় রাখার পাশাপাশি ভালো ভালো সব খেলোয়াড়কে দলে আনার কাজটিও করতে হবে সুন্দরভাবে। এর পাশাপাশি আছে ট্রেনিং গ্রাউন্ড ঠিক করা, খেলোয়াড়রা যাতে আহত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখাসহ আরো অনেক মাইক্রোম্যানেজমেন্টের কাজ। এগুলো মাথা গরম কোনো লোকের পক্ষে করা সম্ভব নয়। ফুটবল ম্যানেজার সিরিজের আগের গেমগুলোর মতো এটিও আপনার হাতে এনে দেয় অনেক বেশি নমনীয়তা ও নিয়ন্ত্রণ, যা আপনি অবশ্যই উপভোগ করবেন।

ফুটবল-ম্যানেজার-২০১৯

খেলার চলার সময় বল হারানোর পর কীভাবে আবার বল ফিরে পেতে হবে, কীভাবে নিজের কৌশলের ফাঁদে প্রতিপক্ষকে ফেলতে হবে এবং আপনার দলের প্রতিরক্ষা ব্যুহকে প্রতিপক্ষের খেলার ধরনের সাথে মিল রেখে ঠিক কীভাবে সাজাতে হবে সবই আপনি ঠিক করতে পারবেন। আর এভাবেই আপনি আপনার টিমের একটি নির্দিষ্ট পরিচিতি বা আইডেন্টিটি দাঁড় করাতে পারবেন।

এই গেমে কৌশল নির্ধারণ ও সেটিকে বাস্তবে রূপ দেয়ার ওপর জোর দেয়া হয়েছে অনেকটাই। মনে রাখতে হবে, ফুটবল যতটা না শারীরিক, ঠিক ততটাই মানসিক এবং এখানে একজনের ম্যাজিক্যাল ক্যারিশমা নয়, বরং এগারোজন খেলোয়াড়ের সম্মিলিত শক্তিতেই কার্যোদ্ধার করতে হয়। গেমটির সামগ্রিক চরিত্র আপনাকে এটি খেলার ব্যাপারে অনুপ্রেরণা জোগাবে। গেমটির থ্রিডি ম্যাচ ইঞ্জিনকে নতুনভাবে ঢেলে সাজানো হয়েছে যাতে করে এটি উপভোগ করার ব্যাপারে আপনার কোনো ধরনের সমস্যা না হয়।
এটি ফুটবল পাগল মানুষদের জন্য অসাধারণ একটি গেম তাতে কোনো সন্দেহ নেই। গেমটি খেলুন এবং উপভোগ করুন; সহসা আর কোনো গেম খেলতে মন চাইবে না।

গেমটি খেলতে যা যা প্রয়োজন:
অপারেটিং সিস্টেম: উইন্ডোজ ৭/৮.১ অথবা ১০ (শুধুমাত্র ৬৪বিট)
প্রসেসর: ইন্টেল কোর আই৭-৩৭৭০ অথবা এএমডি এফএক্স ৮৩৫০
গ্রাফিক্স কার্ড: এনভিডিয়া জিফোর্স জিটিএক্স ৭৭০ অথবা এএমডি রেডিয়ন আর৯ ২৯০
র‌্যাম: ৮ গিগাবাইট
হার্ডডিস্ক: ৫৫ গিগাবাইট খালি জায়গা

-সিনিউজভয়েস/জিডিটি 

Please Share This Post.