প্রিয়শপের ৭ম বর্ষে পদার্পণে ২ কোটি টাকার ধন্যবাদ ক্যাম্পেইন

প্রিয়শপ ডটকম বাংলাদেশের প্রথম সারির কাস্টমার কেন্দ্রিক একটি অনলাইন শপিং সাইট। ৫৬ হাজার বর্গমাইলের প্রতিটি দোরগোড়ায় প্রয়োজনীয় পণ্যটি সঠিক মূল্যে এবং শতভাগ সেবা নিশ্চিতপূর্বক পৌঁছে দেয়ার প্রত্যয়ে ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারির ৭ তারিখে যাত্রা শুরু হয়েছিল PriyoShop.com  এর। অসংখ্য ক্রেতার ভালবাসা, আস্থা ও অদম্য গতিতে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণায় সফলতার ৭ম বর্ষে প্রিয়শপ। গত ৬ বছরের মধ্যেই বাংলাদেশের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে পরেছে প্রিয়শপ। বর্তমানে বাংলাদেশের গন্ডি পেরিয়ে প্রিয়শপের সেবা মিলছে বিশ্বের যেকোন প্রান্ত হতেই। অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে বিশ্বের যেকোন প্রান্ত হতে কিংবা দেশে থেকে প্রবাসী প্রিয়জনের জন্য কেনাকাটা করার সুবিধা রয়েছে প্রিয়শপ ডটকমে।

প্রিয়শপ ১০০০ এর অধিক অথেন্টিক ভেন্ডর ও ব্র্যান্ডের লক্ষাধিক পণ্যের পসরা নিয়ে সাজিয়েছে সাইটটি। বর্তমানে লাইফ স্টাইলের এ-টু-জেড পণ্যই মিলবে এই সাইটে! নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য থেকে বিলাসবহুল পণ্য মিলছে বিশেষ ছাড়ে। এর মধ্যে রয়েছে ছেলে মেয়ের পোশাক, ফ্যাশন অনুষঙ্গ, প্রসাধনী, ঘড়ি, জুয়েলারি, ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য, স্মার্ট গ্যাজেট, হোম অ্যাপলায়েন্স, মটর বাইক, বিভিন্ন উৎসবের গিফট আইটেম, এবং বিভিন্ন সেবা।

প্রতিটি পণ্যের গুনগত মান নিশ্চিত করতে প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তুলেছে নিজস্ব ওয়্যারহাউজ ও ফুলফিলমেন্ট সেন্টার। ঢাকায় ডেলিভারির জন্য রয়েছে নিজস্ব রাইডার। এছাড়াও যথাসময়ে পণ্য পৌঁছে দিতে পাঠাও, পেপারফ্লাই, সুন্দরবন, ই-কুরিয়ার কাজ করছে প্রিয়শপের সাথে। প্রিয়শপে ক্যাশ অন ডেলিভারি, বিকাশ, সকল প্রকার কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিংসহ রয়েছে কিস্তিতে মূল্য পরিশোধের সুবিধা। রয়েছে পণ্যের মূল্য পরিশোধের আগে তা যাচাই করে নেয়ার অবাধ স্বাধীনতা। পণ্য পছন্দ হলেই কেবল মূল্য পরিশোধ করতে হবে, নয়তো ফেরত দেয়ার অপশন রয়েছে। কোনো গ্রাহক মানসম্পন্ন পণ্য না পেলে তাকে পরিবর্তনের সুযোগ দেওয়া হয়। পণ্য দিতে ব্যর্থ হলে ইনস্ট্যান্ট মূল্য রিফান্ড করা হয়।

প্রিয়শপের একটি ইউনিক ফিচার হলো- এটি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা সহায়ক একটি প্লাটফর্ম। এসএমই উদ্যোক্তাদের কোনো প্রকার সার্ভিস চার্জ ছাড়াই মার্চেন্ট পার্টনার হবার সুযোগ রয়েছে। একজন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তার পক্ষে অনেক টাকা বিনিয়োগ করে বিভিন্ন জেলা শহরে ব্রাঞ্চ খোলা কিংবা পণ্য বিপনন করা সম্ভব নয়। তবে প্রিয়শপ কোনো বিনিয়োগ ছাড়া পণ্য সরবরাহে সহায়তা করে থাকে।

গ্রাহক সন্তুষ্টি অর্জনে সেবার মান বৃদ্ধি করে এগিয়ে যেতে চায় প্রিয়শপ। ৭ম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষ্যে প্রিয়শপ ডটকম আয়োজন করেছে ৭ দিনের একটি ধন্যবাদ ক্যাম্পেইন। নিয়মিত ও নতুন কাস্টমারদের জন্য প্রায় ২ কোটি টাকা সমমূল্যের উপহার নিয়ে সাজানো হয়েছে এই ক্যাম্পেইন।

০১-০৭ ফেব্রুয়ারির ধন্যবাদ ক্যাম্পেইন চলাকালে ৭০০ বা তার অধিক টাকার পণ্য কিনলেই মিলবে ফ্রি ডেলিভারি, ১০০ টাকা মূল্যের ৭টি কুপনে ৭০০ টাকার ক্যাশ ভাউচার, ২০০ টাকার ভাউচারসহ কৃতজ্ঞতা কার্ড এবং আপ-টু ৭০০ টাকা মূল্যের ধন্যবাদ বক্স।

বর্ষপূর্তি মাস উপলক্ষ্যে প্রিয়শপ খুঁজছে প্রিয় ক্রেতাকে। ০১-২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যকবার অর্ডারকৃত কাস্টমারদের মধ্য হতে দৈবচয়নে একজন ভাগ্যবান ক্রেতা পাবেন ৫০,০০০ টাকার শপিং ভাউচার! এছাড়াও থাকছে আরও উপহার।

  • ১ জন পাবেন ২৫,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ১ জন পাবেন ১৫,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ১ জন পাবেন ১০,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ৫ জন পাবেন ৫,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ৫ জন পাবেন ২,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ১০ জন পাবেন ১,০০০ টাকার শপিং ভাউচার
  • ১০ জন পাবেন ৫০০ টাকার শপিং ভাউচার

ক্যাশলেস সোসাইটি গঠনে শুরু হতেই নানা রকম অফার দিয়ে আসছে প্রিয়শপ ডটকম। এইবার ক্যাশলেস ট্রানজেকশন বাড়াতে বিভিন্ন পেমেন্ট মেথডে রয়েছে ক্যাশব্যাক ও ছাড়। বিকাশ পেমেন্টে ২০% ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক (সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা),  যেকোন কার্ড পেমেন্টে ১০% অতিরিক্ত ছাড় (সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা),  ক্যাশলেস ট্রানজেকশনের মাধ্যমে সর্বোচ্চ সংখ্যক অর্ডারের জন্য ১০ জন গ্রাহক পাবেন ৫০০০ টাকার প্রিপেইড ডেবিট কার্ড।

এই ক্যাম্পেইনের মূল লক্ষ্য ক্রেতাদের মধ্যে অনলাইন শপিংকে জনপ্রিয় করে তোলা। প্রিয়শপ ডটকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জানান যে এমন ক্যাম্পেইন নিয়মিত আয়োজন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানের সিইও আশিকুল আলম খাঁন সহ অনেকেই উপস্থিত ছিল। ক্যাম্পেইন সহযোগী হিসাবে থাকছে সাউথ ইস্ট ব্যাংক লিমিটেড, এসএসএল ওয়্যারলেস, বিকাশ, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, রেকিট বেনকিজার ও স্কয়ার টয়লেট্রিজ।

–সিনিউজভয়েস/

Please Share This Post.