নির্যাতিত নারী ও শিশুর সেবায় ওয়েবসাইট

এখন থেকে সরাসরি থানায় না গিয়েও অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন নির্যাতনের শিকার নারী ও শিশুরা। আর এ কাজে সহায়তা করবে ওয়েব বেইজড অ্যাপ্লিকেশন ‘ম্যানেজিং ভায়োলেন্স অ্যাগেইনস্ট উইমেন অ্যান্ড চিলড্রেন’। ইন্টারনেট সংযোগ থাকলে কম্পিউটার অথবা মোবাইল থেকে ওয়েব বেইজড অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করা যাবে।

২৫ আগস্ট বুধবার, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের আইসিটি বিভাগের ইনফো সরকার-২ প্রকল্প আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ অ্যাপ্লিকেশনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের আওতায় তৈরি নতুন এই ওয়েব বেইজড অ্যাপ (www.vawcms.gov.bd) অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কাছে হস্তান্তর করে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ।

ওয়েব বেইজড এই অ্যাপ্লিকেশনটি তৈরি করেছে বাংলাদেশের বহুজাতিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান রিভ সিস্টেমস।

অনুষ্ঠানে আলোচকেরা জানান, অনেকেই নির্যাতনের শিকার হলেও থানায় যেতে চান না নানা ধরনের বিড়ম্বনার কারণে। এখন আর সরাসরি থানায় যাওয়ার দরকার হবে না। নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে ঘরে বসে তাৎক্ষণিক অভিযোগ জানানো এবং স্বচ্ছ ও দ্রুত বিচার নিশ্চিত করতে এ অ্যাপটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এর মাধ্যমে নারী ও শিশুদের প্রতি যে কোনো সহিংসতার অভিযোগ অনলাইনে জানানো যাবে। এছাড়াও সশরীরে অভিযোগ জানানো যাবে দেশব্যাপী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ও মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের কার্যালয়সমূহে।

এই বিশেষ ওয়েব অ্যাপে অ্যাকসেস থাকছে ম্যাজিস্ট্রেট, ডিসি, টিএনও, ওসি, উপজেলা ও জেলা নারী বিষয়ক কর্মকর্তা ও মহিলা অধিদপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের। এতে সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থা যেমন ঘরে/বাইরে বিপদগ্রস্ত নারী বা শিশুকে সাহায্য করতে পারবেন তেমনি দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসনিক ব্যক্তিরাও সার্বক্ষণিক তা ট্র্যাক করতে পারবেন।

এছাড়া, নাগরিকদের জন্যও ট্র্যাকিং সুবিধা উন্মুক্ত থাকায় অভিযোগকারী ঘরে বসেই সর্বশেষ গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে জানতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশু-বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে এ অ্যাপ্লিকেশনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

সভাপতির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘এ অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আলাদা ফরম ডাউনলোড করার দরকার নেই। অভিযোগ করার পর তা চলে যাবে কাছের মহিলা-বিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের কাছে।’

অনুষ্ঠানে রিভ সিস্টেমসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আজমত ইকবাল এই আপ্লিকেশনের ব্যবহারবিধি বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা যখন এই প্রজেক্টের কাজের দায়িত্ব পাই তখন থেকেই এটাকে আমরা আমাদের নিজেদের একটি প্রজেক্ট হিসেবেই দেখতে শুরু করি, কোনো ব্যবসায়িক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নয়।’

অনুষ্ঠানে রিভের পক্ষ থেকে হেড অব সেলস রায়হান হোসেন এবং অন্যন্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের এ অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দিতে আইসিটি বিভাগকে আহ্বান জানান মহিলা ও শিশু-বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এবং মহিলা-বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সাহিন আহমেদ চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন।

 

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক

Please Share This Post.