নানা আয়োজনে শুরু বেসিসের ২০ বছর পূর্তি

২০ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে নানা আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)। তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠনটির ২০ বছর পূর্তি উৎসব আজ থেকে শুরু হয়েছে স্টুডেন্টস ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত ইয়ুথ ফেস্ট দিয়ে।

ইয়ুথ ফেস্টে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শরীয়তপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক এবং এটুআইয়ের পিপলস পারস্পেকটিভ স্পেশালিস্ট নাইমুজ্জামান মুক্তা উপস্থিত ছিলেন।

আরো উপস্থিত ছিলেন ২০ বছর উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও বেসিসের সাবেক সভাপতি হাবিবুল্লাহ এন করিম, বেসিসের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি এ তৌহিদ, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান, বেসিসের সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ, সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান, পরিচালক তামজিদ সিদ্দিক স্পন্দন এবং বেসিস ইয়ুথ ফেস্টের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন ফারুক।

স্বাগত বক্তব্যে ইয়ুথ ফেস্টের আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন ফারুক বলেন, ‘তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মোবাইল গেম ও অ্যাপ্লিকেশন এর দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের সহযোগিতায় বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের উদ্যোগে ‘ইয়ুথ ফেস্ট’ এর আয়োজন করা হয়েছে। এ আয়োজনের উল্লেখযোগ্য দিকগুলো হল: সরাসরি ৭ হাজার শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণ, কনসার্ট, শিক্ষার্থীদের তৈরি তথ্যপ্রযুক্তি খাতভিত্তিক প্রকল্প প্রদর্শন, দেশসেরা তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের অংশগ্রহণে টেকটক, বেসিস সদস্য প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে চাকরি মেলা, তথ্যপ্রযুক্তি খাতভিত্তিক প্রায়োগিক জ্ঞান বৃদ্ধির লক্ষ্যে কর্মশালা।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘১৯৯৮ সালে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অবদান রাখার লক্ষ্যে বেসিস গঠিত হয়েছিল, আজ বেসিস তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নেতৃত্ব দিচ্ছে। শিক্ষার্থীরাই ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রাণ। আজ বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের ২৬ হাজার শিক্ষার্থীরা মিলে বিশাল যে আয়োজন করেছে তা অভূতপূর্ব, বেসিসের ২০ বছর শুরু হলো আরো ২০ বছর পরের ভবিষ্যত নেতাদের হাত ধরে। আশা করি, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ এভাবেই এগিয়ে নেবে বেসিস।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, মাত্র ২০ বছর আগে জন্ম নেয়া বেসিস আজ ডিজিটাল বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নেতৃত্ব দিচ্ছে। আশা করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ২০৪১ সালের মধ্যে মেধা নির্ভর উন্নত বাংলাদেশের নেতৃত্বও দেবে বেসিস। তাই আমরা আইসিটি ইন্ডাষ্ট্রি ও একাডেমিয়া একযোগে কাজ করছি, তার প্রতিফলন বেসিস স্টুডেন্টস ফোরাম।’

বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, ‘বেসিস সদস্য প্রতিষ্ঠানসমূহের পাশাপাশি অংশীজন হিসেবে বেসিসের সকল সহযোগী সরকারি, বেসরকারি এবং দেশি-বিদেশি সংগঠনসমূহ ২০ বছর পূর্তি উৎসবে অংশ নেবে। পাশাপাশি থাকবে বেসিস স্টুডেন্টস ফোরাম ও উইমেনস ফোরামের উদ্যোগে অনুষ্ঠিতব্য নানা আয়োজন। আয়োজিত হবে ই-কমার্স সপ্তাহ, থাকছে উইমেন ফোরামের উদ্যোগে সেলিব্রেটিং উইমেন অ্যাট ওয়ার্ক, বেসিস সদস্যদের জন্যে সেবা সপ্তাহ, বেসিস সদস্যদের জন্য নতুন সেবার উদ্বোধন, ২০ বছরে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অগ্রযাত্রা নিয়ে সেমিনার, দেশি-বিদেশি সহযোগীদের নিয়ে নেটওয়ার্কিং অনুষ্ঠান, বেসিসের হিস্টরি বুক উন্মোচন এবং সবশেষে সকল অংশীজনকে নিয়ে গালা ডিনার।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক
Please Share This Post.