নাটোর হবে তথ্যপ্রযুক্তির উত্তরাঞ্চলীয় হাব

‘বর্তমান সরকার দেশে প্রযুক্তিনির্ভর কর্মসংস্থান নিশ্চিতে কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে দেশের প্রথম ‘শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার’ নাটোরে স্থাপিত হয়েছে। ইতোমধ্যে, উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রশিক্ষণার্থীরা এখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে উপার্জন শুরু করেছে। ভবিষ্যতে নাটোর হবে তথ্যপ্রযুক্তির উত্তরাঞ্চলীয় হাব।’

শনিবার, নাটোরে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের নতুন ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তিতে পেশাদার মানবসম্পদ তৈরির মাধ্যমে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বছরপ্রতি রপ্তানি আয় পাঁচ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রায় এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। হাই-টেক পার্ক নির্মাণের মাধ্যমে সারা দেশের সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন আইটি নির্ভর কাজকর্ম দ্রুততর সমাধান করা সম্ভব হবে। এতে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ও জীবিকার ধারা বদলাবে, যা অর্থনীতিতে সরাসরি ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।’

বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশের ভবিষ্যত অর্থনীতি হবে ‘মেধানির্ভর’ ও ‘জ্ঞানভিত্তিক’ উল্লেখ করে পলক আরো বলেন, সরকার দেশে প্রযুক্তি খাতে আরো বেশি বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভবিষ্যতে নাটোরে আইটি সেন্টারটির সম্প্রসারণে ৪৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব)হোসনে আরা বেগম বলেন, ‘এই কর্মসুচির আওতায় ইতোমধ্যে ২১টি ব্যাচে মোট ৪৮০ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে, প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে তারা বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্দেশ্যে আগ্রহী শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীদের দক্ষতা বৃদ্ধি এবং ফ্রিল্যান্সিং/আইটি পেশায় আগ্রহী উদ্যোক্তাদের জন্য ইনকিউবেশন ও প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামোগত সুবিধা দেওয়াই আমাদের কর্মসূচির উদ্দেশ্য ছিল। এই ভবন নির্মাণ শেষ করার মাধ্যমে আমরা আমাদের উদ্দেশ্য পূরণে সক্ষম হবো। আমরা আইটি খাতে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির বিষয়টি বিবেচনা করে দেশের আরো সাতটি স্থানে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। নাটোরের সিংড়া উপজেলায় আরেকটি আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার ও একটি হাই-টেক পার্ক স্থাপন করা হচ্ছে।’

প্রায় ৭ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যয়ে নাটোরে শেখ কামাল ইনকিউবেশন সেন্টারে নতুন ভবনের কাজ শেষ হয়েছে। পুরাতন জেলখানার ভবনগুলো সংস্কার করে এতোদিন প্রশিক্ষণ প্রদানের কাজ চলছিল। নতুন ভবন উদ্বোধনের ফলে প্রশিক্ষণার্থীরা এখন থেকে ইনকিউবেশনের সুবিধাও পাবেন।

নাটোরের জেলা প্রশাসক বেগম শাহিনা খাতুনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক (উপসচিব) ফাহমিদা আখতার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাজেদুর রহমান খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ মর্তুজা আলী বাবলু, দফতর সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস প্রমুখ। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অন্যান্য কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক
Please Share This Post.