নবম বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ডে দেশ সেরা ব্র্যান্ডগুলো সম্মানিত

অনুষ্ঠিত হল বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ডের নবম আসর। বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে দেশের সেরা ব্র্যান্ডগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়।

গতকাল রাজধানীর লা-মেরিডিয়ান ঢাকা হোটেলে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

২০০৮ সাল থেকে শুরু হওয়া এ পুরস্কার আয়োজন দেশের সর্বাধিকপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোকে সম্মাননা জানানো হয়। এটি বাংলাদেশের ব্যবসায়িক সম্প্রদায়ের সাফল্যের স্বীকৃতি এবং ব্র্যান্ড বিল্ডিংয়ে তাদের কৃতিত্ব চিত্রিত করার শীর্ষস্থানীয় প্ল্যাটফর্ম। কান্তার মিলওয়ার্ড ব্রাউন দ্বারা দেশব্যাপী সঞ্চালিত একটি ভোক্তা জরিপ এর উপর ভিত্তি করে এবছর ৩৫টি ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

নবম বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ডে সর্বমোট ১০৩টি ব্র্যান্ডকে সম্মানিত করা হয়, এর মধ্যে প্রতিটি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ ব্র্যান্ডগুলোর প্রতিনিধিদের হাতে সম্মাননা পদক তুলে দেয়া হয়। এছাড়াও পদক লাভকরেন সেরা দেশীয় ১০ ব্র্যান্ড এবং সর্বশ্রেণীয় সেরা ১০ ব্র্যান্ড এর প্রতিনিধিরা।

সর্বশ্রেণীয় সেরা ৩০টি ব্র্যান্ড এর মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানলাভ করেছে যথাক্রমে গ্রামীণফোন, হরলিকস এবং রুপচাদা।দেশীয় সেরা ১০টি ব্র্যান্ড এর মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান লাভ করেছে যথাক্রমে ইস্পাহানী মির্জাপুর চা, রাধুঁনী মসলা এবং সুপারফ্রেশ ফর্টিফাইড সয়াবিন তেল।

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম আয়োজিত নবম বেস্ট ব্র্যান্ড অ্যাওয়ার্ডে সহযোগীতায় ছিলো ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার, এছাড়া সাহায্য করেছে রিসার্চ পার্টনার কান্তর মিলওয়ার্ড ব্রাউন; ইতিহাদ এয়ার রয়েছে এয়ারলাইন্স পার্টনারের ভূমিকায়; ইভেন্ট পার্টনার লা-মেরিডিয়ান ঢাকা; নলেজ পার্টনার এমএসবি (মার্কেটারস সোসাইটি অব বাংলাদেশ)।

আমরা রয়েছে আইটি পার্টনার;জনসংযোগ পার্টনারের দায়িত্ব পালন করছে মাস্টহেড পিআর। সোশ্যাল মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ওয়েবেবল।

সিনিউজভয়েস//ডেস্ক/

Please Share This Post.