নতুন অর্থবছর ২০১৬-১৭ বাজেটে আইএসপিএবি’র কিছু প্রস্তাবনা

ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার নিমিত্তে দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ কাজ করে আসছে। ইন্টারনেট সেবা, তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে আমরা সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পথে সফলভাবে এগিয়ে যাব। আর এ জন্য ইন্টারনেটের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিতকল্পে কিছু প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণের প্রয়াস গ্রহণ অনস্বীকার্য। এই প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করার জন্য আইএসপি অ্যাসোসিয়েশনের প্রস্তাবনা গুলো নিম্নরুপ।

১. ইন্টারনেটের উপর থেকে ভ্যাট প্রত্যাহার
গ্রাহক পর্যায়ে সুলভে ইন্টারনেট সেবা পৌছে দেয়ার জন্য ইন্টারনেটের উপর আরোপিত ১৫% ভ্যাট প্রত্যাহার অতীব জরুরি। সর্বস্তওে ইন্টারনেটের পূর্ণ সুবিধা নিশ্চিতকরণে এই ভ্যাট একটি বড় বাধা হিসেবে প্রতীয়মান।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : ইন্টারনেটের উপর থেকে ১৫% ভ্যাট প্রত্যাহার করা হোক যাতে করে সাধারণ জনগণের কাছে সুলভে ইন্টারনেট সংযোগ পৌছে দেয়া যায়।
২. ইন্টারনেট ইকুইপমেন্টের উপর শুল্ক প্রত্যাহার
ইন্টারনেট সেবা মানুষের দোড়গোড়ায় পৌছানোর জন্য নেটওয়ার্ক ইকুইপমেন্ট-এর প্রয়োজন হয়। নেটওয়ার্ক যন্ত্রপাতির সহজলভ্যতা ও সুলভ মূল্য আইসিটি উন্নয়নে প্রধান হাতিয়ার। ইন্টারনেট যন্ত্রপাতি যেমন, মডেম, ইথারনেট ইন্টারফেস কার্ড, কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুইচ, হাব, রাউটার, সার্ভার ব্যাটারির উপর বর্তমানে ২২.১৬% ভ্যাট ও শুল্ক আরোপিত রয়েছে। যেটা এই শিল্পের প্রসারে একটি বড় প্রতিবন্ধকতা।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : ইন্টারনেট মডেম, ইথারনেট ইন্টারফেস কার্ড, কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুইচ, হাব, রাউটার, সার্ভার ব্যাটারিসহ সকল ইন্টারনেট ইকুইপমেন্টের উপর বর্তমানে আরোপিত ২২.১৬% ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করে ০% করতে হবে।
৩. অপটিক্যাল ফাইবার, অপটিক্যাল ফাইবারস বান্ডল এবং ক্যাবলস এর উপর থেকে শুল্ক প্রত্যাহার
ইন্টারনেট সংযোগ এক জায়গা থেকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য মূল উপকরণ ফাইবার অপটিক ক্যাবলের উপরে বর্তমানে ৩৭.৮৩% ভ্যাট ও শুল্ক আরোপিত রয়েছে। এর ফলে আশানুরূপ সুলভ মূল্যে গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট সেবা পৌছে দেয়া সম্ভব হয় না।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : আমরা ফাইবার অপটিক ক্যাবল এর উপর আরোপিত ভ্যাট ও শুল্ক সর্বনিম্ন রাখার অনুরোধ করছি। অপটিক্যাল ফাইবার, অপটিক্যাল ফাইবারস বান্ডল এবং ক্যাবলস এর উপর হতে শুল্ক হ্রাস করে ০% করা হোক।
৪. উইন্ডিং ওয়্যার অব কপার এবং ইউটিপি ক্যাবল এর উপর শুল্ক কমানো
উইন্ডিং ওয়্যার অব কপার এবং ইউটিপি ক্যাবলের এর উপর বর্তমানে ৫৯.১৮% ভ্যাট ও শুল্ক প্রদান করতে হয়। যা ইন্টারনেটের প্রসারের একটি অন্যতম অন্তরায়।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : উইন্ডিং ওয়্যার অব কপার এবং ইউটিপি ক্যাবলের উপর আরোপিত ৫৯.১৮% ভ্যাট ও শুল্ক সম্পূর্ণরূপে প্রত্যাহার করা হোক।
৫. কো অ্যাক্সিয়াল ক্যাবল এবং অন্যান্য কো অ্যাক্সিয়াল ইলেক্ট্রিক কন্ডাক্টর এর উপর শুল্ক কমানো
কো অ্যাক্সিয়াল ক্যাবল এবং অন্যান্য কো অ্যাক্সিয়াল ইলেক্ট্রিক কন্ডাক্টর এর উপর বর্তমানে ৯০.০২ ভ্যাট ও শুল্ক আরোপিত রয়েছে। ইন্টারনেটের প্রসার ও ব্যবসার জন্য বড় এক বাধা।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : কো অ্যাক্সিয়াল ক্যাবল এবং অন্যান্য কো অ্যাক্সিয়াল ইলেক্ট্রিক কন্ডাক্টর এর উপর হতে শুল্ক প্রত্যাহার করে ০% করা হোক।
৬. আইএসপি সেবাকে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবায় অন্তর্ভুক্তি
বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর সেবার [ Information Technology Enabled Services] এর সংজ্ঞায় বর্তমানে সফ্টওয়্যার প্রতিষ্ঠানগুলো তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর কিছু সেবায় অন্তর্ভুক্ত আছে। কিন্তু ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের সেবা অন্তর্ভুক্ত নেই। যেটা এই শিল্পকে সামনে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে একটি প্রতিকূলতা।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার সেবাকে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর (Information Technology Enabled Services) সেবায় অন্তর্ভুক্তির জন্য দাবি জানাচ্ছি।
৭. কর্পোরেট ট্যাক্স কমানো
বর্তমানে কর্পোরেট ট্যাক্স ৩৭.৫০% আরোপিত রয়েছে, যা আইসিটি খাতের উন্নয়ন ও ব্যবসায়ের প্রসাওে বড় একটি বোঝা।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : আইসিটি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে কর্পোরেট ট্যাক্সের এই উচ্চহার কমানোর হোক।
৮. আইটিইএসকে মূসক অব্যাহতি দেয়া
তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবাকে আয়কর অব্যাহতি দেয়া থাকলেও মূসক অব্যাহতি দেয়া হয়নি। ন্যায়ানুগ আচরণের শর্তে এই সেবাকে মূসকও অব্যাহতি দেয়া প্রয়োজন।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : ১৯৯১ সালের মূসক আইনের অধীনে জারি করা এসআরও #২৩৯-আইন ২০১২/৬৫৬- মূসকে যথাযথ সংশোধনী এনে এই খাতকে মূসক অব্যাহতি দেয়া হোক।
৯. আইসিটি শিল্পকে বাড়ি-ভাড়ার মূসক থেকে সম্পূর্ণ অব্যাহতি দেয়া
ইন্টারনেট শিল্পে সুনিপুণ বিকাশ লাভের জন্য সর্বসাধারণের বিশেষ করে প্রান্তিক পর্যায়ে সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে সামগ্রিক ব্যয় সংকোচন অনিবার্য। এই লক্ষ্যে এই শিল্পের জন্য ব্যবহৃত বাড়ি বা স্থানের উপর প্রযোজ্য (৯%) মূসক অব্যাহতি দেয়া বিশেষ প্রয়োজন।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : ইন্টারনেট সেবা প্রদানে ব্যবহৃত বাড়ি বা স্থানের উপর আরোপিত মূসক অব্যাহতি দেয়া হোক।
১০. ইন্টারনেট শিল্পকে ট্যাক্স হলিডের আওতাভুক্ত করা
বাংলাদেশের যেকোন খাতের সূচনা লগ্নে বা প্রসারকালে ট্যাক্স হলিডে প্রণোদনা দেয়া হয়। কিন্তু ইন্টারনেট আইসিটি শিল্প (সফটওয়্যার ব্যতীত) এই ধরনের কোন সূযোগ সুবিধা আজও পায়নি। এই খাতের বিকাশ লাভের ব্যাপকতা ও গতি বর্তমানে পোষাকশিল্পের বৃদ্ধির হারকে অচিরেই হার মানাবে। বর্তমান সরকারও আইসিটি শিল্পকে দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ খাত হিসেবে বিবেচনা করছে। বিশেষত আইসিটি খাতে ব্যক্তি পর্যায়ে সক্ষমতা ও সাফল্য দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশের স্বীকৃতি আদায় করেছে।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : আইসিটি শিল্প তথা ইন্টারনেটের সর্বোচ্চ বিকাশ লাভের নিমিত্তে আইএসপি প্রতিষ্ঠানদেরকে ট্যাক্স হলিডে দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।
১১. ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) সংযোগের উপর থেকে ভ্যাট প্রত্যাহার
আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলোর গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট সেবা পৌছে দেয়ার একমাত্র মাধ্যম দুইটি এনটিটিএন প্রতিষ্ঠান। তাদের মাধ্যমেই গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট সেবা পৌছাতে হয়। এনটিটিএন প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের নেটওয়ার্কে সংযোগের ক্ষেত্রে আইএসপিদের উপর ১৫% ভ্যাট আরোপ করায় গ্রাহক পর্যায়ে সুলভে ইন্টারনেট সেবা পৌছানোর ক্ষেত্রে তা একটি বড় বাধা।
আইএসপিএবির প্রস্তাব : এনটিটিএনের পক্ষ থেকে আরোপিত ১৫% ভ্যাট প্রত্যাহার করে গ্রাহক পর্যায়ে সুলভে ইন্টারনেট সেবা পৌছে দেয়ার ব্যবস্থা করা হোক।

-বিজ্ঞপ্তি

Please Share This Post.