নতুনভাবে যাত্রা শুরু করল ‘সহজ’

২১ মে সোমবার, আইসিটি মন্ত্রণালয়ে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ‘সহজ’ এর নতুন লোগো উন্মোচন করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সহজের ফাউন্ডিং ম্যানেজিং ডিরেক্টর মালিহা এম কাদির এবং সহজের নবনিযুক্ত ব্র্যান্ড আম্ব্যাসেডর বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের গতি তারকা তাসকিন আহমেদ।

‘জীবনটাকে সহজ করুন’ এই ধারণাকে সামনে রেখে বাংলাদেশের মানুষের নিত্যদিনের চাহিদা পূরণে তথ্যপ্রযুক্তির বিভিন্ন সার্ভিস যেমন অনলাইনে টিকেটিং থেকে শুরু করে সম্প্রতি চালু করা রাইড শেয়ারিং সার্ভিস এর মতো ডিজিটাল সেবার সুফল সবার কাছে আরো নতুন আঙ্গিকে পৌঁছে দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত ‘সহজ’। গতি ও উন্নতি, বিশ্বস্ততা এবং সবার প্রতি সম্মান ও আস্থা প্রকাশ করা হয়েছে ‘সহজের’ নতুন লোগো এবং চলমান চাকায়।

নতুন লোগো উন্মোচন উপলক্ষে সহজের ফাউন্ডিং ম্যানেজিং ডিরেক্টর মালিহা এম কাদির বলেন, ‘২০১৪ থেকে উন্নত তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে মানুষের জীবনটাকে সহজ করার জন্যে আমরা যেভাবে বিভিন্ন পর্যায়ের সেবামূলক কাজ করছি তার সমন্বয়মূলক বাস্তব প্রতিফলন যেন লোগো থেকে শুরু করে আমাদের কর্ম পরিকল্পনায় সব কিছুতেই থাকে- এটাই ছিল আমাদের নব যাত্রার মূল উদ্দেশ্য।’ মালিহা এম কাদির আরো বলেন, ‘আমাদের মূলবার্তাকে খুব সহজে সবার কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্যে আমরা বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের গতি তারকা তাসকিন আহমেদকে আজ থেকে ব্র্যান্ড আম্ব্যাসেডর হিসেবে পাশে পাচ্ছি; আগামীতে দেশের জন্যে আরো ভালো কিছু করা, দেশকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে অবদান রাখার দৃঢ় আশাবাদ থেকেই আমাদের এই জুটি।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘প্রযুক্তির এই যুগে যোগাযোগ ও ছুটে চলা-ই সব। গত চার বছরেরও বেশি সময় ধরে অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ‘সহজ’ সর্বসাধারণের কাছে বিভিন্ন পর্যায়ের টিকেটিং সার্ভিস পৌঁছে দিচ্ছে। খুব অল্প সময়ে দেশের অন্যতম প্রধান জনপ্রিয় রাইড শেয়ারিং সার্ভিস হিসেবে ‘সহজ রাইডস’ নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। আমি আশা করব, এভাবে অন্যরাও এগিয়ে আসবেন নিজস্ব জায়গা থেকে, কেননা এ ধরনের উদ্যোগ জীবনটাকে সহজ করার পাশাপাশি কর্মসংস্থানেরও সুযোগ তৈরি করে, যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে সক্রিয় ভুমিকা পালন করবে।’

ব্র্যান্ড আম্ব্যাসেডর তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘জীবনটাকে সহজ করুন’ এই ধারণাকে সামনে রেখে মানুষের নিত্যদিনের চাহিদা পূরণে সহজ যে ডিজিটাল সেবা দিচ্ছে তার সঙ্গে এক হতে পেরে আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি। আগামীতে সহজের বেশকিছু সমাজ উন্নয়ন ও প্রচারণামূলক কর্মকাণ্ডে আমি প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করবো।

– সিনিউজভয়েস ডেস্ক